ঢাকা, বুধবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৮ ফাল্গুন ১৪২৫, ১৪ জামাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী।

ইসলামী বিশ্ব

তুরস্ককে আবারো যুক্তরাষ্ট্রের হুমকি

ফিলিস্তিন ইস্যুতে ব্রাজিলের প্রতি তুরস্কের ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

রাশিয়া থেকে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র ক্রয় করলে তুরস্কের প্যাট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র সংক্রান্ত কার্যক্রম স্থগিত করা হবে। বৃহস্পতিবার শীর্ষ এক মার্কিন কর্মকর্তা এ হুমকি দেন। ২০১৭ সালে রাশিয়া ও তুরস্ক এস-৪০০ বিমান প্রতিরক্ষা সিস্টেম কেনার ব্যাপারে রাশিয়ার সাথে এক চুক্তিতে সই করে। এ বছরের অক্টোবরে এসব প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা তুরস্কে প্রতিস্থাপনের কথা রয়েছে। এস-৪০০ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাটি রাশিয়ার দূর পাল্লার বিমান বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা। এটি তার লক্ষ্যকে ধ্বংস করতে ব্যালিস্টিক, ক্রুজ মিসাইলসহ তিন ধরনের ক্ষেপণাস্ত্র বহন করতে পারে। গত ডিসেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তুরস্কের কাছে ৩৫০ কোটি ডলারের প্যাট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র এবং ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা বিক্রয়ের অনুমোদন দেয়। প্যাট্রিয়ট মিসাইল মূলত ব্যবহৃত হয় প্রতিরক্ষার জন্য। প্রধানত হামলাকারী মিসাইল ও প্লেন ভূপাতিত বা ধ্বংস করতে এটি ব্যবহৃত হয়। মার্কিন প্রতিরক্ষা নিরাপত্তা সহযোগিতা এজেন্সির সূত্রে জানা যায়, ওই সময় তুরস্কের কাছে ৮০টি প্যাট্রিয়ট এমআইএম-১০৪ই মিসাইল, ৬০টি প্যাক-৩ মিসাইলসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি বিক্রয়ের অনুমোদন দেয়া হয়। তুরস্ক যুক্তরাষ্ট্র থেকে আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কেনার জন্য চেষ্টা করেছিল। কিন্তু তাদের যখন সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন, তখন যুক্তরাষ্ট্র তাদের কাছে এ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা বিক্রি করেনি। ওয়াশিংটন অভিযোগ করছে, ন্যাটোর অন্যান্য সদস্য দেশ যেসব অস্ত্র ব্যবহার করে থাকে, রাশিয়ার প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা তার জন্য উপয্ক্ত নয়। গত নভেম্বরে পৃথক এক রিপোর্টে পেন্টাগন আঙ্কারাকে সতর্ক করে বলেছিল, রাশিয়া থেকে এস-৪০০ প্রতিরক্ষা সিস্টেম যুক্তরাষ্ট্র-তুরস্কের সম্পর্কের ক্ষেত্রে নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে। এমনকি এর ফলে ন্যাটোতেও তুরস্কের ভূমিকা নেতিবাচক প্রতিক্রিয়ার মধ্যে পড়বে বলে ইয়ানি সাফাকের প্রতিবেদনে বলা হয়। অপরদিকে, ব্রাজিলের ইসরাইলি দূতাবাস জেরুজালেমে স্থানান্তর করায় ব্রাজিলের প্রতি ভীষণ ক্ষুব্ধ হয়েছে তুরস্ক। তেলআবিব থেকে ব্রাজিলের ইসরাইলি দূতাবাস জেরুজালেমে স্থানান্তরের পর এ বিষয়ে ভীষণ উদ্বেগ জানিয়েছেন তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী। বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটনে ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আর্নেস্তো আরাজোর সঙ্গে সাক্ষাতকালে তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেসভুত তাশাউসুগøু এই উদ্বেগের কথা জানান। নিজের ব্যক্তিগত একাউন্টের একটি টুইটে তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী লিখেছেন, ব্রাজিলের ইসরাইলি দূতাবাস তেলআবিব থেকে জেরুজালেমে স্থানান্তরের বিষয়ে তুরস্ক যে, ভীষণ উদ্বিগ্ন ও হতাশ-এটা ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে জানিয়েছি এবং তার সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক আলোচনা ও আন্তর্জাতিক সম্পর্ক নিয়েও আলাপ হয়েছে। সন্ত্রাসবাদী সংগঠন আইএসের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক সংহতি সেমিনারে অংশ নিতে বিশ্বের ৭৯টি দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এখন যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনে অবস্থান করছেন। ইয়ানি সাফাক, আনাদোলু।

সর্বমোট মন্তব্য (9)
মোঃ নাজীব মোঃ নাজীব ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২২ এএম says : 0
তুরস্ক আফগানিস্তান না যে বললা আর হয়ে গেলো! তোদের কপালে শনি আছে ট্রাম্পের বাচ্চা।
Total Reply(0)
Samiya Ahmed ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২২ এএম says : 0
আমেরিকা-ইসরাইল হল সন্ত্রাসী রাষ্ট
Total Reply(0)
Naila Tabur ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২২ এএম says : 0
Cool down Trump!
Total Reply(0)
Shepon Hussain ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২২ এএম says : 0
তুমি সন্ত্রাসী সংঘটন তৈরি করবা। অন্যরা তাতে নাক গলাবে না, তা কি করে হয়!
Total Reply(0)
Samrat Shaan ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২৩ এএম says : 0
ট্রাম্প একজন সন্ত্রাসী মনোভাবের
Total Reply(0)
Mehdi Hasan Jony Khan ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২৪ এএম says : 0
এই তুরস্ক আগের তুরস্ক নয় সাবধানে কথা বলুন!
Total Reply(0)
Zia Haider ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২৪ এএম says : 0
বিসমিল্লাহ্‌, আমেরিকার নিজের পংগু হবার সময় হয়েছে। সারা বিশ্বে হত্যা,নির্যাতন অবরোধ এগুলুর জন্য আল্লাহতালা নিজেই এদের পংগু করবেন।
Total Reply(0)
Momin Hossain ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২৪ এএম says : 0
হে আল্লাহ তুরস্কের উপর রহম করুন।
Total Reply(0)
Md Osaid ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২৫ এএম says : 0
কি চায় আমেরিকা মধ্য প্রাচ্য থেকে?
Total Reply(1)
Habib Rahman ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১০:৫০ এএম says : 0
Israel becoming a middle east super power. and Iranian power in the region disestablishing.

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন