ঢাকা সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ১০ কার্তিক ১৪২৭, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

হিসেবের ভুলে সেমিতে খেলেছে বাংলাদেশ!

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৭ ডিসেম্বর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

আসর শেষে হয়েছে গত জুনে। প্রায় ছয় মাস পর বিষ্ফরোক এক তথ্য দিল ক্রিকেটের নির্ভরযোগ্য ওয়েবসাইট ক্রিকইনফো। ডাকওয়ার্থ-লুইস পদ্ধতির ভুল ব্যবহারের কারণেই নাকি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেমিফাইনালে খেলেছিল বাংলাদেশ! দাবী ডাকওয়ার্থ-লুইস পদ্ধতির আবিষ্কারক ফ্রাঙ্ক ডাকওয়ার্থ ও টনি লুইসের। ক্রিকইনফোকে দেওয়া এক কলামে এমনটাই উল্লেখ করেন তারা।
মনে করিয়ে দেওয়া ভালো, সর্বশেষ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে (২০১৭ সাল) নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে মাত্র ১৮২ রানে গুটিয়ে যায় বাংলাদেশ। রান তাড়া করতে নেমে ১৬ ওভারে এক উইকেটে ৮৩ রান করে অস্ট্রেলিয়া। এরপরে একটানা বৃষ্টির কারণে শেষ পর্যন্ত ম্যাচটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়। এরপরে নিজেদের শেষ ম্যাচে নিউজিল্যান্ডকে গুঁড়িয়ে দিয়ে সেমিফাইনালে উঠে যায় মাশরাফি-সাকিবরা। আর এই ঘটনার অনেক মাস পরে একে ‘হিসেবের ভুল’ বলছেন স্বয়ং ফ্রাঙ্ক ডাকওয়ার্থ ও টনি লুইস, ‘বাংলাদেশ বনাম অস্ট্রেলিয়ার ম্যাচটায় হিসেব অনুযায়ী জয়ী হয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। সে ক্ষেত্রে সেমিফাইনালেও বাংলাদেশ নয়, অস্ট্রেলিয়ার উঠে যাওয়ার কথা। আসরে বাংলাদেশ সেমি ফাইনালে যাওয়াটা ছিল হিসেবের ভুল।’
অবশ্য এই ব্যাপারে নিজেদের যুক্তি উপস্থাপন করেন তারা। সর্বোচ্চ ৩৪ ওভার থেকে সর্বনিম্ন ২২ ওভার পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ার লক্ষ্যের হিসেব দেন তারা। যেখানে দেখা যায় ম্যাচটি ২২ ওভার হলে লক্ষ্য দাড়ায় ৭৯ রান, যা তখনই পার করে ফেলেছিল অজিরা।
উল্লেখ্য, ওয়ানডে ক্রিকেটের বৃষ্টির এই আইনের ক্ষেত্রে কোনও ফলাফল আনতে হলে দুই পক্ষকে কমপক্ষে বিশ ওভার করে ব্যাট চালাতে হবে। অস্ট্রেলিয়া ১৬ ওভার ব্যাট করলেও ডাকওয়ার্থ ও লুইস দাবি করেন, সেই ম্যাচে নীতিমালা অনুযায়ীই অস্ট্রেলিয়াই জয়ী!
ডাকওয়ার্থ ও লুইস লিখেছেন, ‘বৃষ্টির জন্য ঘন ঘন পরিবর্তিত হচ্ছিল লক্ষ্যের, সেটা প্রতি ওভারেই। ম্যাচটা ৩০ ওভারে নেমে আসলে অস্ট্রেলিয়ার লক্ষ্য হতো ১২০। আর সেটা ২২ ওভারে নেমে আসলে অস্ট্রেলিয়ার লক্ষ্য হতো ৭৯, যা তখনই অস্ট্রেলিয়া পার করে ফেলেছিল। আর ম্যাচটা ২২ ওভারে নেমে আসার যে সময় সেটা কাট অফের আগেই ছিল। অর্থাৎ রাত ৯টা ৫১ মিনিটের সময় দুই আম্পায়ার যদি বৃষ্টির খোঁজ না নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার পরিবর্তিত লক্ষ্যের হিসেব নিতেন, তাহলেই অস্ট্রেলিয়া বিজয়ী হয়ে যেত।’
সেই ম্যাচে রাত ৮টার সময় খেলা থামিয়ে দিয়ে রাত সাড়ে ৮টায় সেটা পুনরায় শুরু করার কথা থাকলেও বৃষ্টির কারণে তা সম্ভব হয়নি। সাড়ে ৮ টায় খেলা হলে অজিদের ইনিংস থেকে সাত ওভার কেটে রাখা হতো শুরুতেই (নতুন লক্ষ্য ১৬৬)! আর বৃষ্টির জন্য এক ওভার করে কমতে কমতে লক্ষ্য কমে যেতো অজিদের। সেক্ষেত্রে কাট অফ সময় ৯টা ৫৯ মিনিটের আগে খেলা শুরু হলেই অস্ট্রেলিয়ার লক্ষ্যটা কমে আসতো অনেক। তবে কাট অফের আগেই শুরু করা অসম্ভব বিধায় ম্যাচটি বাতিল করেছিলেন দুই আম্পায়ার।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন