ঢাকা সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ১০ কার্তিক ১৪২৭, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

দুই মেহেদীর অভিন্ন লড়াই

মাশরাফি-তামিম-ইমরুল ছাড়াই শুরু প্রস্তুতি ক্যাম্প

| প্রকাশের সময় : ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৭, ১২:০০ এএম


ইমরান মাহমুদ : বিপিএল শেষে কেটে গেল দুই সপ্তাহ। ছুটি কাটিয়ে অবশেষে ঠিকানায় পৌঁছেছে ক্রিকেটাররা। ঠিক পনের দিন পর আবারও মুশফিক-নাসরি-রিয়াদদের পদচারণায় মুখর মিরপুরের হোম অব ক্রিকেট। আসন্ন তিন জাতি ক্রিকেট আর শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজকে সামনে রেখেই গতকাল থেকে শুরু হয়ে গেছে টাইগারদের অনুশীলন। হেড কোচ নেই, নতুন প্রধান কোচও ঠিক হয়নি। তাই সহকারি কোচ রিচার্ড হ্যালসল আর ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজনের অধীনেই শুরু হচ্ছে অনুশীলন। প্রস্তুতি ক্যাম্পে হ্যালসলই প্রধান কোচ। আর সুজন আছেন টেকনিক্যাল ডিরেক্টর হিসেবে।
ক’দিন আগেই দুই সিরিজকে সামনে রেখে ৩২ সদস্যের প্রাথমিক দল ঘোষনা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। এই দল নিয়েই গতকাল থেকে ক্যাম্প শুরু করে দিয়েছেন হ্যালসল ও সুজন। টি-টেন সিরিজ শেষে দেশে ফিরে অনুশীলনে যোগ দিয়েছেন সাকিব। পরিবারের চিকিৎসার জন্য ব্যাংকক গেছেন ওয়ানডে অধিনায়ক। তার ক্যাম্পে যোগ দেয়ার কথা ২ জানুয়ারি। আর দুবাইয়ে টি-১০ টুর্নামেন্ট শেষ করে ড্যাশিং ওপেনার তামিম গেছেন মুম্বাইয়ে চুলের চিকিৎসা করাতে। তার যোগ দেবার সম্ভাবনা আরো পরে। ওমরাহ পালন করতে সউদি আরবে আছেন ইমরুল কায়েস। মাঠে এলেও চোটের জন্য ফিটনেস পরীক্ষা দেননি মোহাম্মদ মিঠুন। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক দলের ৩২ সদস্যের বাকি সবাই। যথারীতি অনুশীলনের প্রথমেই ছিল ফিজিক্যাল ট্রেনিং ও বিপ টেস্ট। প্রথম ক’দিন ক্রিকেটারদের ফিজিক্যাল ট্রেনিং করাবেন ট্রেনার মারিও ভিল্লাভারায়নে। সকাল ৯.৩০ মিনিট থেকে টাইগারদের ট্রনিং শুরু হয়েছে। আর আজ সকাল ৯-১১ টা পর্যন্ত দুই ঘণ্টা জিম করার পর ১ টা থেকে ২.৩০ পর্যন্ত বোলিং অনুশীলন করবে রুবেল-মুস্তাফিজরা।
প্রথম দিনে সকলের নজরই ছিল বিপ টেস্টে ভালো করার। সেই হিসেবে বেশ কিছুটা এগিয়ে ছিলেন তরুনরাই। এই যেমন দুই মেহেদীর কথাই ধরুন। মেহেদী হাসান মিরাজ এক সময়ে পরিপূর্ণ অলরাউন্ডার হয়ে উঠবেন- এই বিশ্বাস বাংলাদেশ দলের প্রায় সবার মাঝেই আছে। তবে আপাতত এই তরুণের বোলিংটাই বেশি প্রয়োজন দলের। তাই নিজের ব্যাটিং নিয়ে আপাতত খুব একটা ভাবতে চান না মিরাজ। টেস্টে ২০ ইনিংসের ১২টি মিরাজ খেলেছেন আট নম্বরে, ছয়টি নয়ে। একবার নেমেছেন ১০ নম্বরে, অন্যবার পাঁচে। ওয়ানডেতে চারটি ইনিংসই খেলেছেন আট নম্বরে। টি-টোয়েন্টিতে নামেন আট-নয় নম্বরে। ১০ টেস্টে একটি ফিফটিতে ১৬.৫২ গড়ে ২৮১ রান করেছেন মিরাজ। ৭ ওয়ানডেতে একটি ফিফটিতে ২১.৫০ গড়ে তার রান ৮৬। টি-টোয়েন্টি তিন ম্যাচে করেছেন ২৭ রান। অত নিচে ব্যাটিং নিয়ে কোনো আপত্তি নেই মিরাজের। জানান, দলের প্রয়োজনে যে কোনো জায়গায় খেলতে প্রস্তুত, ‘বাংলাদেশ দলে এখন ব্যাটিং অর্ডার যেমন আছে, তাতে করে আমাকে লেট অর্ডারে ব্যাটিং করতে হবে। কিন্তু আমি খুশি। সামনে সুযোগ পেলে ব্যাটিংয়ে উন্নতি করে উপরে খেলার চেষ্টা করব। এখন বোলার হিসেবে আছি, এটাতেই আমি সন্তুষ্ট। বোলিং নিয়ে আমি খুশি। আমার কাছ থেকে দল বোলার হিসেবেই ভালো কিছু চায়।’
এদিকে, জাতীয় দলের সঙ্গে প্রথম সকালটা দারুণ কেটেছে আরেক উঠতি তারকা মেহেদি হাসানের। প্রথমবারের মতো প্রাথমিক দলে ডাক পাওয়া এই অফ স্পিনিং অলরাউন্ডার মুগ্ধ জাতীয় দলের আবহে। গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে মেহেদি বলেন, ‘প্রথমবারের মতো জাতীয় দলের ক্যাম্পে যোগ দেওয়ায় সকালটা খুবই রোমাঞ্চকর ছিল। সকালের নাস্তা থেকে শুরু করে ড্রেসিংরুম শেয়ারের অভিজ্ঞতা অন্যরকম ছিল।’ সেই অন্যরকমটা কেমন তার একটা চিত্র পাওয়া গেল মেহেদির কথায়। তাকে নিয়ে মজা করেছেন সতীর্থরা, সেটাও উপভোগ করেছেন এই তরুণ। বিপিএলে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের হয়ে মেহেদি নজর কেড়েছেন অফ স্পিনে। জাতীয় লিগের শেষ রাউন্ডে খেলেছেন ক্যারিয়ার সেরা ১৭৭ রানের দারুণ ইনিংস। যেখানে সুযোগ পাবেন সেখানে নিজেকে মেলে ধরে জাতীয় দলে একটি জায়গা চাই মেহেদির, ‘অবশ্যই আশাবাদী (চূড়ান্ত দলে থাকার ব্যাপারে)। দলে যেই আসুক, সবাই নিজের সেরাটা দিতে চাইবে। আমার যদি শতভাগের বেশি দিতে হয় আমি তাও দিব।’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন