ঢাকা শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

সাইফের পয়েন্টে জামালের ভাগ

| প্রকাশের সময় : ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

স্পোর্টস রিপোর্টার : আগের দিন শিরোপা প্রত্যাশি চট্টগ্রাম আবাহনীর পয়েন্টে থাবা বসিয়েছে ব্রাদার্স ইউনিয়ন ক্লাব। এবার সেই পথে হাঁটলো নবাগত সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবও। তারা আরেক শিরোপা প্রত্যাশি শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের পয়েন্টে ভাগ বসালো। ঘরোয়া ফুটবলের মর্যাদাপূর্ণ আসর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের দ্বিতীয় লেগেও জামালের পয়েন্ট কেড়ে নিল সাইফ। গতকাল বিকালে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ১৯তম রাউন্ডে দিনের প্রথম ম্যাচে প্রথমে পিছিয়ে থেকেও সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের বিপক্ষে শেষ পর্যন্ত ১-১ গোলে ড্র করেছে শেখ জামাল। সাইফের ইংলিশ ফরোয়ার্ড চার্লস শেরিংহ্যাম ও জামালের গাম্বিয়ান ফরোয়ার্ড সলোমন কিং নিজ নিজ দলের পক্ষে একটি করে গোল করেন। প্রথম লেগেও গোলশূণ্য ড্র করে জামালের পয়েন্ট কেড়ে নিয়েছিলো সাইফ স্পোর্টিং। এই ড্র’তে ১৯ ম্যাচে ৪৪ পয়েন্ট পেয়ে চট্টগ্রাম আবাহনীকে পেছনে ফেলে তালিকার দ্বিতীয়স্থানে উঠে আসলো শেখ জামাল। সমান ম্যাচে ৩৫ পয়েন্ট পাওয়া সাইফের অবস্থান চারে। ৪৫ পয়েন্টে ঢাকা আবাহনী শীর্ষে এবং ৪৩ পয়েন্ট পেয়ে চট্টগ্রাম আবাহনী রয়েছে তালিকার তৃতীয়স্থানে।
গতকাল শেখ জামালের বিপক্ষে শুরু থেকেই আক্রমণাতœক ফুটবল উপহার দেয় সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব। যার ফল তারা পেয়ে যায় খুব তাড়াতাড়িই। সময় মতো জ্বলে ওঠতে না পারলে জামালের বিপক্ষে ঠিকই জ্বলে উঠেন সাইফের ইংলিশ ফরোয়ার্ড চার্লি শেরিংহ্যাম। দ্বিতীয় লেগে তিন রাউন্ড আগে ছেলে চার্লি শেরিংহ্যামের খেলা দেখতে বড় সাধ করে তার বাবা সাবেক তারকা ফুটবলার টেডি শেরিংহ্যাম ভারত থেকে ছুটে এসেছিলেন ঢাকায়। কিন্তু ওই ম্যাচে মোহামেডানের কাছে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত হয়েছিল সাইফ। তাই হতাশা নিয়েই ফিরে যান টেডি। কিন্তু কাল সেই চার্লির গোলেই এগিয়ে যায় সাইফ। ম্যাচের মাত্র ছয় মিনিটে সংঘবদ্ধ আক্রমণ থেকে গোল আদায় করে লিড নেয় প্রিমিয়ারের নবাগত দলটি। এসময় বাঁমপ্রান্ত দিয়ে বল নিয়ে সতীর্থের উদ্দেশ্য ক্রস করেন ডিফেন্ডার রহমত মিয়া। বল পেয়ে চমৎকার হেডে গোল করেন চার্লস (১-০)। ৮ মিনিটে ডি বক্সের বাইরে থেকে ফ্রি-কিক পায় শেখ জামাল। কিন্তু সলোমন কিংয়ের নেয়া শট ক্রসবারের অনেক উপর দিয়ে চলে যাওয়ায় সমতায় ফেরার সহজ সুযোগ হাতছাড়া হয় জামালের। ১৪ মিনিটে ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ এসেছিলো নবাগত দলটির। দারুণ আক্রমণে ডি বক্সের মধ্যে কলম্বিয়ার হ্যাম্বার ভ্যালেন্সিয়ার শট কর্ণারের বিনিময়ে প্রতিহত করেন শেখ জামালের ডিফেন্ডার। ম্যাচের ২১ মিনিটে প্রায় মাঝমাঠ থেকে একক প্রচেষ্টায় বল নিয়ে এগিয়ে গিয়ে বক্সের বাইরে থেকে জোরালো শট নেন ফরোয়ার্ড জাবেদ খান। কিন্তু তার শট ক্রসবারের উপর দিয়ে চলে গেলে আবারও গোলবঞ্চিত হয় ধানমন্ডির ক্লাবটি। তবে পরের মিনিটেই স্বস্তি আসে জামাল শিবিরে। ম্যাচের ২২ মিনিটে বক্সের বাইরে আবারও ফ্রি-কিক পায় তারা। সেই ফ্রি-কিক থেকে বাঁমপায়ের দর্শনীয় শটে গোল করে জামালকে সমতায় ফেরান সলোমন কিং (১-১)। ম্যাচের বাকি সময় গোলহীন কাটলে শেষ পর্যন্ত ১-১ ব্যবধানের ড্র নিয়েই মাঠ ছাড়ে দু’দল। একই ভেন্যুতে সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ ১-১ গোলে ড্র করেছে ফরাশগঞ্জ স্পোর্টিং ক্লাবের বিপক্ষে। এই ড্র’তে ১৯ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট পেয়ে তালিকার নবমস্থানে জায়গা পেল আরামবাগ। সমান ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট পাওয়া ফরাশগঞ্জ এক ধাপ উপড়ে উঠলো। তারা এক ম্যাচ কম খেলা রহমতগঞ্জকে পেছনে ফেলে এগারতমস্থানে জায়গা করে নিলো।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন