ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ আগস্ট ২০২০, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৩ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

ভোট স্থগিত হলেও ডিএনসিসিতে অচলাবস্থা সৃষ্টি হবে না -স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

| প্রকাশের সময় : ১৮ জানুয়ারি, ২০১৮, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী ও সংসদ সদস্য শামীম ওসমানের কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে যে সংঘর্ষ হয়েছে, সেটা তাঁদের ব্যক্তিগত সমস্যা থেকে ঘটেছে বলে মনে করেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন। এছাড়া ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র ও স¤প্রসারিত অংশের কাউন্সিলর পদের ভোট স্থগিত হলেও প্রতিষ্ঠানটির কার্যক্রমে কোনো অচলাবস্থা সৃষ্টি হবে না বলে মনে করছেন তিনি। গতকাল বুধবার সচিবালয়ে এ বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এই মন্তব্য করেন। আইভী ও শামীম ওসমানের বিষয়ে সরকারের হস্তক্ষেপের দরকার হলে তা করা হবে বলে জানান খন্দকার মোশাররফ হোসেন। তিনি বলেন, আর এটা (হস্তক্ষেপ) করবেন প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রী যদি তাঁকে দায়িত্ব দেন, তাহলে তিনি তা করবেন। এ বিষয়ে ইতিমধ্যে প্রতিবেদন চাওয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।
নাগরিকদের স্বচ্ছন্দে চলাফেরা নিশ্চিত করতে নারায়ণগঞ্জ পুলিশ ও সিটি করপোরেশন স¤প্রতি শহরের ফুটপাত হকারমুক্ত করার কার্যক্রম শুরু করে। এর বিরুদ্ধে গত সোমবার মাঠে নামেন সাংসদ শামীম ওসমান। এক দিন পর মঙ্গলবার বিকেলে শহরের চাষাঢ়ায় মেয়র আইভী ও তাঁর সমর্থকদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে। এতে মেয়র আইভী, অন্তত ১০ জন সাংবাদিকসহ অর্ধশত নেতা-কর্মী আহত হন। হামলার সময় নিয়াজুল ইসলাম খান নামের একজনকে অস্ত্র উঁচিয়ে গুলি করতে দেখা যায়। একপর্যায়ে বাগে পেয়ে আইভীর উত্তেজিত কর্মীরা তাঁকে মারধরও করেন।
স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী বলেন, ফুটপাত করা হয়েছে নাগরিকদের চলাচলের সুবিধার জন্য। তাদের চলাচলের বিঘœ করে যদি হকারেরা বসেন এবং মেয়র যদি তাতে বাধা দেন, তাহলে তিনি (আইভী) আইনগতভাবে ঠিক জায়গায় আছেন। আবার এটাও ঠিক, হকারদের পুনর্বাসন না করে এটা (উচ্ছেদ) করা অমানবিক। খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, নারায়ণগঞ্জের ঘটনা তাঁদের কাছে অপ্রত্যাশিত। এমন হবে, তা তাঁরা বুঝতে পারেননি। বুঝলে হস্তক্ষেপ করতেন।
ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র পদে উপনির্বাচনের তফসিলের কার্যকারিতা স্থগিত হওয়ার বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, উপনির্বাচন স্থগিত হলেও সিটি করপোরেশনে কোনো অচলাবস্থার সৃষ্টি হবে না। এ জন্য সিটি করপোরেশনের কাজকর্মে ক্ষতি হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই। কারণ, ডিএনসিসিতে প্যানেল মেয়র আছেন।
খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, এত বড় সিটি করপোরেশন মেয়র ছাড়া চালানো সম্ভব নয়। তাই সংগত কারণে তফসিল ঘোষণা করা হয়। এখানে মন্ত্রণালয়ের কর্তব্য হচ্ছে-মেয়র পদটি শূন্য ঘোষণা করা। নির্বাচন কমিশনকে তা অবহিত করা। ভোটার তালিকা, সীমানা নির্ধারণের বিষয়গুলো ইসির কাজ। ইসি সহায়তা চাইলে তা দেওয়া হয়। কিন্তু ইসি তা চায়নি।
স্থানীয় সরকারমন্ত্রী বলেন, মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে ডিএনসিসির উপনির্বাচন হওয়ার জন্য যা যা সহযোগিতা দরকার, তা করা হবে।
ডিএনসিসির মেয়র পদে উপনির্বাচনের তফসিলের কার্যকারিতা আজ তিন মাসের জন্য স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। ডিএনসিসির স¤প্রসারিত অংশের কাউন্সিলর নির্বাচনের সার্কুলারের কার্যক্রমও স্থগিত করা হয়েছে। গতকাল বুধবার সকালে পৃথক দুটি রিট আবেদনের ওপর শুনানি শেষে বিচারপতি নাইমা হায়দার ও বিচারপতি জাফর আহমেদের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ রুলসহ এই আদেশ দেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন