ঢাকা, সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৮ আশ্বিন ১৪২৬, ২৩ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

কোনো কাজে ঘুষ দেবেন না -দুদক চেয়ারম্যান

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮, ৬:০৯ পিএম

কোনো কাজে ঘুস না দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ। তিনি বলেন, ‘গত বছরই ঘুষ গ্রহণের অভিযোগে প্রায় ২৫ জন সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীকে গ্রেফতার করে দুদক। ব্যবসায়ীদের প্রতি আমাদের অনুরোধ, কোনও কাজে ঘুষ দেবেন না, ঘুষ দেওয়ার আগে বিষয়টি দুদককে জানালে ঘুষ গ্রহীতাকে আইনের আওতায় আনা হবে। একইসঙ্গে ব্যবসায়ীদের বৈধ কাজ সঠিক সময়েই সম্পন্ন করার ব্যবস্থাও নেওয়া হবে।’

বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টায় বিভিন্ন চেম্বারের ব্যবসায়ী নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এ আহ্বান জানান।

দুর্নীতি ব্যবসার পরিবেশ নষ্ট করে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘ব্যবসার জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো মুক্তবাজার ব্যবস্থাপনা। এই বাজার ব্যবস্থাপনায় যে কোনও ধরনের অনৈতিক হস্তক্ষেপ বা দুর্নীতি ব্যবসার পরিবেশ বিনষ্ট করে এবং দেশীয় বিনিয়োগের পথকে বাধাগ্রস্ত করে। দেশীয় বিনিয়োগ না হলে বৈদেশিক বিনিয়োগও আসবে না।’

ইকবাল মাহমুদ বলেন, ‘দুদকের কোনও কোনও কর্মকর্তা ব্যবসায়ীদের হয়রানি করেন, এমন অভিযোগ কখনও কখনও শোনা যায়। আমি এ বিষয়ে দ্ব্যর্থহীনভাবে বলতে চাই, এমন কোনও ঘটনা আপনাদের নজরে এলে তা দুদককে জানান। আমাদের দ্বার ব্যবসায়ীদের জন্য সর্বদা উন্মুক্ত। তবে ব্যবসার একটি নৈতিক মানদণ্ড থাকা উচিৎ। ভ্যাট ফাঁকি, ট্যাক্স ফাঁকি, ওভার ইনভয়েসিং অথবা আন্ডার-ইনভয়েসিংয়ের মাধ্যমে অনৈতিক উপায়ে অর্থ উপার্জন দেশের সংবিধানও সমর্থন করে না।’

তিনি বলেন, “সংবিধানের ২০(২) অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, ‘রাষ্ট্র এমন অবস্থা সৃষ্টি চেষ্টা করিবেন, যেখানে সাধারণ নীতি হিসাবে কোনও ব্যক্তি অনুপার্জিত আয় ভোগ করতে সমর্থ হইবেন না’।” যখন অনুপার্জিত আয় কেউ ভোগ করেন এবং দুদকে অভিযোগ আসে, তখন কমিশনের আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করার বিষয়টি আইনি প্রক্রিয়ার অংশ হয়ে যায়।’

দুদক চেয়ারম্যান বলেন, ‘ব্যাংক ঋণ বিতরণ কিংবা আদায় প্রক্রিয়ায় দুদক হস্তক্ষেপ করে না। তবে ব্যাংক ঋণ প্রদানের ক্ষেত্রে কেউ যদি জাল কাগজপত্র বা দলিলাদি ব্যবহার করেন, তাহলে বিষয়টি দুদকের এখতিয়ারে এসে যায়। সবাইকে মনে রাখতে হবে, সরকারি-বেসরকারি সব ব্যাংকের অর্থই পাবলিক মানি। এটার যে কোনও প্রকার অপচয় বা ক্ষতিসাধনই দুর্নীতি।’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
গনতন্ত্র ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮, ১১:২০ পিএম says : 0
" ঘুষ" মুখ দিয়ে মিথ্যের, ফুলকি ঝরে; ভয় পেয়ে শয়তানও, থাকে দূরে। কত আত্মীয় -স্বজন, শুয়াইছি কবরে; যখন-তখন সমন হতে পারে,এই ভয়টা কেউ না করে। কত অন্যায় করিয়াছি মোরা,সত্য গোপনের তরে; হত্যার হুকুম দিয়েও আছি, না জানার ভান কর। পরের টাকায় ফ্লাট-বাড়ী, আমরা কত পেশাদার; মরার আগে হজে গিয়ে, গুনাহ করবো পরিষ্কার ।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন