ঢাকা, বুধবার, ২৭ মে ২০২০, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৩ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

দ্রুততম ফিফটি লোকেশের আইপিএলের কনিষ্ঠ মুজিবর

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ এপ্রিল, ২০১৮, ১২:৪০ এএম

এক ম্যাচে দুই রেকর্ড। একজন গড়লেন মাঠে নেমেই, আরেকজন ব্যাট হাতে ঝড় তুলে। প্রথমজন হলেন আফগান স্পিনার মজিব উর রহমান, দ্বিতীয়জন লোকেশ রাহুল। তাদের দল কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবও ৬ উইকেটের দারুণ জয় পেয়েছে দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের বিপক্ষে।
মাঠে নেমেই আইপিএলের সর্বকনিষ্ঠ খেলোয়াড় হওয়ার রেকর্ড গড়েন মুজিবর। এসময় তার বয়স ছিল ১৭ বছর ১১ দিন। আগে যে রেকর্ডের মালিক ছিলেন সরফরাজ খান। তিন বছর আগে আইপিএলে অভিষেকের সময় তার বয়স ছিল ১৭ বছর ১৭৭ দিন। ক্রিস গেইলের মত তারকার পরিবর্তে এদিন একাদশে সুযোগ পান মুজিবর।
বল হাতে এর প্রতিদানও দিয়েছেন মুজিবর। ডানহাতি অফ ব্রেকে ৪ ওভারে ২৮ রানে ২ উইকেট নিয়ে রবিচন্দ্রন আশ্বিনের দলের সফল বোলার তিনিই। ৩৩ রানে ২ উইকেট নেন মোহিত শর্মাও। টস হেরে ব্যাট করা দিল্লি করতে পারে ৭ উইকেটে ১৬৬ রান। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫৫ রান (৪২ বলে) করেন অধিনায়ক গৌতম গাম্ভির। এছাড়া ঋশব পন্তের ১৩ বলে ২৮ ও ক্রিস মরিসের ১৬ বলে ২৭ রানের ক্যামিওয় লড়াইয়ের পুুঁজি পায় দিল্লি।
কিন্তু লোকেশ লড়াইয়েরও সুযোগ দেননি দিল্লিকে। ব্যাট হাতে ইনিংসের শুরুতেই ম্যাচ থেকে দিল্লিকে ছিটকে দেন পাঞ্জাব ওপেনার। ১৫ বলে ৪ ছক্কা ও ৬ চারে আসরের ইতিহাসে দ্রæততম ফিফটির (৫১) রেকর্ড গড়েন এই উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান। এর আগে ১৫ বলেই ফিফটির রেকর্ড আছে ইউসুফ পাঠান ও সুনীল নারাইনের। পরের বলেই অবশ্য বোল্টের শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরেন লোকেশ। ৩৩ বলে ঠিক ৫০ রান করেই ফেরেন করুন নায়ারও।
তবে তাদের দেখানো পথ ধরেই ৭ বল হাতে রেখে দলের জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়েন ডেভিড মিলার (২৩ বলে ২৪) ও মার্ক স্টয়নিস (১৫ বলে ২২)।
রাতের অপর ম্যাচে শক্তিশালি রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুকে ৪ উইকেটে হারায় কোলকাতা রাইট রাইডার্স। টস হেরে ব্যাটে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৭৬ রান করে ব্যাঙ্গালুরু। সর্বোচ্চ ৪৪ রান (২৩ বলে) করেন এবি ডি ভিলিয়ার্স। এছাড়া ব্রান্ডন ম্যাককালাম ২৭ বলে ৪৩ ও মান্দিপ সিংয়ের ১৮ বলে ৩৭ রান রড় সংগ্রহে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখে। বিরাট কোহলির ব্যাট থেকে ৩১ রান আসলেও একটু বেশিই ধীর ছিল অধিনায়কের ব্যাট। এজন্য তিনি খেলেন ৩৩ বল, যা তার নামের পাশে এতেবারেই বেমানান। দুটি করে উইকেট নেন বিজয় কুমার ও নতিশ রানা।
জবাবে ওপেনিংয়ে নামা সুনীল নারাইনের ঝড়ো ফিফটিতে (১৯ বলে ৫ ছক্কা ও ৪ চারে ৫০) জয়ের পথ পেয়ে যায় শাহরুখ খানের দল। নতিশ রাইনা ২৫ বলে ৩৪ ও অধিনায়ক দিনেশ কার্তিকের ২৯ বলে অপরাজিত ৩৫ রানের কল্যাণে ১৩ বল হাতে রেখে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় কোলকাতা। ৩৬ রানে ৩ উইকেট নেন ক্রিস ওকস, ২৭ রানে ২টি নেন উমেশ যাদব।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন