ঢাকা, বুধবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৬ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৪ জামাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

রক্ত ঝরার খেসারত দিচ্ছে ফ্রান্স : ম্যাখোঁ

ইরাক ও সিরিয়ার বদলা নিতেই প্যারিসে হামলা : আইএস

| প্রকাশের সময় : ১৪ মে, ২০১৮, ১২:০০ এএম


ইনকিলাব ডেস্ক : ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে ছুরি হামলায় দু’জন নিহত ও পাঁচজন আহত হয়েছেন। পুলিশের গুলিতে প্রাণ হারিয়েছেন হামলাকারীও। বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, শনিবার রাতে প্যারিসের অপেরা ডিস্ট্রিক্টে এই হামলার ঘটনা ঘটে। আহত দুইজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। এদিকে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাখোঁ হামলা ঘটনার নিন্দা করে জঙ্গিদের নির্মূল করার পাল্টা হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। সেই সঙ্গে জানিয়েছেন, রক্ত ঝরার খেসারত দিচ্ছে ফ্রান্স। অপর দিকে, জিহাদি সংগঠন আইএস প্যারিস হামলার দায় স্বীকার করেছে। এক বিবৃতিতে তারা হামলাকারীকে ‘ইসলামিক স্টেটের সৈনিক’ বলে উল্লেখ করেছে। সেই সঙ্গে বিবৃতিতে তারা জানিয়েছে, ইরাক ও সিরিয়ার বদলা নিতেই এই হামলা। খবরে বলা হয়, তদন্তকারী কর্মকর্তারাও এটিকে জঙ্গি হামলা ধরে নিয়েই তদন্ত শুরু করেছেন। আইসিস জিহাদিদের বিবৃতি ছাড়াও আরও একটি কারণে এটিকে জঙ্গি হামলা বলে মনে করা হচ্ছে। গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যাওয়ার সময় শেষ বারের মতো ‘আল্লাহু আকবর’ ধ্বনি শোনা গিয়েছিল হামলাকারীর গলায়। এমনটাই জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। তাই এই হামলাকে জঙ্গি হামলা বলেই তদন্ত শুরু করেছে প্যারিস পুলিশ। তবে এখন পর্যন্ত আঁততায়ীর নাম, পরিচয় জানাতে পারেনি পুলিশ। এএফপি, রয়টার্স।
ট্রাম্প মধ্যপ্রাচ্য পরিস্থিতিকে আরো জটিল করে তুলেছেন : মারকেল
ইনকিলাব ডেস্ক : ইরানের পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে গিয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প মধ্যপ্রাচ্য পরিস্থিতিকে আরো বেশি জটিল করে ফেলেছেন বলে মন্তব্য করেছেন জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মারকেল। তিনি এই চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রের বেড়িয়ে যাওয়ার ট্রাম্পের সিদ্ধান্ত দুঃখজনক। শনিবার ইতালিতে শান্তি পুরস্কার গ্রহণ অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন। ইয়েমেন যুদ্ধ সম্পর্কে চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মারকেল বলেন, ইয়েমেন যুদ্ধে জড়িত দেশগুলোর কাছে অস্ত্র বিক্রি করবে না তার সরকার। ইয়েমেনের পরিস্থিতি আর সহ্য করার মতো অবস্থায় নেই। ট্রাম্পের সিদ্ধান্তের পর ইরান ও ইসরাইলের মধ্যে যে উত্তেজনা বেড়েছে সে প্রসঙ্গে জার্মান চ্যান্সেলর বলেন, এ দ্ব›দ্ব নিরসনের জন্য প্রচেষ্টা জোরদার করা জরুরি। জার্মানি বিষয়টিকে ঘনিষ্ঠভাবে পর্যবেক্ষণ করছে বলে তিনি জানান। সিরিয়া থেকে যাওয়া বহুসংখ্যক শরণার্থী আশ্রয় দেয়ার কারণে অনুষ্ঠানে অ্যাঙ্গেলা মারকেলকে শান্তি পুরস্কার দেয়া হয়। সিরিয় শরণার্থী আশ্রয় দেয়ার সিদ্ধান্ত মারকেল এবং তার রাজনৈতিক দলের জন্য বড় রকমের ঝুঁকি ছিল। রয়টার্স।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (3)
মশিউর রহমান ১৪ মে, ২০১৮, ২:১৭ এএম says : 0
এরাই আসলে ইসলামের দুর্নাম করছে
Total Reply(0)
রোমান ১৪ মে, ২০১৮, ২:১৮ এএম says : 0
জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মারকেল একদম ঠিক কথা বলেছেন
Total Reply(0)
বুলবুল আহমেদ ১৪ মে, ২০১৮, ১:৪৮ পিএম says : 0
এই হামলার তিব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন