ঢাকা শুক্রবার, ২২ জানুয়ারি ২০২১, ০৮ মাঘ ১৪২৭, ০৮ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

বিচারবহির্ভূত হত্যাকান্ড বন্ধ করো

‘ফ্যাসিবাদ-রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস রুখে দাঁড়াও’ শীর্ষক সেমিনার

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১২ জুলাই, ২০১৮, ১২:০০ এএম

দেশে সব ধরনের বিচারবহির্ভূত হত্যাকান্ড বন্ধ করে স্বচ্ছ আইনি প্রক্রিয়া প্রতিষ্ঠার দাবি জানিয়েছে ফ্যাসিবাদ ও সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী জাতীয় কমিটি। গতকাল জাতীয় প্রেস ক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে আয়োজিত ‘ফ্যাসিবাদ ও জনগণের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস রুখে দাঁড়াও’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে আলোচকরা এ দাবি জানান। তারা বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়ে এ পর্যন্ত অনেক মানুষকে বিনা বিচারে হত্যা করা হয়েছে। মাদক দমনের নামে নির্বিচারে হত্যা করা প্রতিটি মানুষের নাম ঠিকানাসহ পূর্ণাঙ্গ পরিচয় জনসম্মুখে প্রকাশের দাবি জানাচ্ছি।
সংগঠনের সভাপতি প্রখ্যাত চিন্তাবিদ বদরুদ্দীন উমরের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তৃতা করেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মোঃ নূরুন্নবী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আকরাম হোসেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সি আর আবরার, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ড. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, বাংলাদেশ বিপ্লবী ওয়ার্কাস পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, মানবাধিকার কর্মী শিরীন হক, পাহাড়ী ছাত্র পরিষদের বিনযন চাকমা প্রমুখ।
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মোঃ নূরুন্নবী বলেন, দেশে গণতন্ত্রের কথা বলা হলেও কোনো গণতন্ত্র নেই। এ ছাড়া মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা লোক দেখানো, এটা সফল হবে না। কারণ যারা মাদকের মূল হোতা তাদেরকে সরকার আইনের আওতায় আনতে পারছে না। চুনোপুটিদের ধরে ধরে হত্যা করছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সি আর আবরার বলেন, যে ন্যাক্কারজনক ঘটনা আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ে দেখেছি, সে জন্য শিক্ষক হিসেবে লজ্জিত। শিক্ষার্থীরা বলছে- হলে থাকার জন্য বড় ভাইদের পা ধরতে হয়। শিক্ষক হিসেবে আমরা কি করছি?
গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ড. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, মাদক বিরোধী অভিযানের নামে মানুষে নির্বিচারে হত্যা ছাড়াও জেলে ভরে রাখাও হয়েছে অনেককে। অন্যদিকে কোটা সংস্কারের আন্দোলন এখন পর্যন্ত শিক্ষার্থী সবচেয়ে বড় আন্দোলন। কিন্তু যারা মুক্তিযুদ্ধের নাম ভাঙিয়ে চলছে, তারা এটি হতে দিচ্ছে না।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (2)
নাঈম ১২ জুলাই, ২০১৮, ৩:১৯ এএম says : 0
এটা এখন দেশের সবচেয়ে বড় ব্যাধি
Total Reply(0)
Noor Ul Islam ১২ জুলাই, ২০১৮, ১১:৩১ এএম says : 0
স্বাধীন দেশের নাগরিককে আজ তারা পিটায়,মারে,হাড় ভাঙ্গে,রক্ত ঝরায়।আবার পুলিশেও দেয়।পুলিশও মারে,মেরেই ফেলে,অথবা আদালতে দেয়।আদালতও আবার রিমান্ডে দেয়,অথবা সাজা দিয়ে কারাগারে পাঠায়।এ যেন জঙ্গল আর জঙ্গলের হরিণ! হায়েনারা শিকার করে তুলে দেয় সিংহ আর বাঘের হাতে,যেখান থেকে ফেরার আর কোনো উপায় থাকেনা।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন