ঢাকা সোমবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২১, ১১ মাঘ ১৪২৭, ১১ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

ক্ষমতা কুক্ষিগত থাকলে গণতন্ত্র হয় না, থ্রি জিরো ধারণায় ড. ইউনূস

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০৬ এএম

ক্ষমতা কুক্ষিগত থাকলে গণতন্ত্র চর্চা হয় না বলে মন্তব্য করেছেন নোবেল বিজয়ী অর্থনীতিবিদ ড. মুহম্মদ ইউনুস। তিনি তাঁর নতুন বই ‘দ্য ওয়ার্ল্ড অব থ্রি জিরো’তে পুঁজিবাদের নতুন ধারণা ব্যক্ত করেছেন। তাঁর পুঁজিবাদের এই নতুন ধারণায় প্রতিটি ব্যক্তিই হবেন একজন উদ্যোক্তা এবং কেউই কারো অধীনে কাজ করবে না। ‘থ্রি জিরো’ ধারণায় ড. ইউনুসের ইউনুস ‘শুন্য দারিদ্র, শূন্য বেকারত্ব ও শূন্য কার্বন নির্গমনের কথা বলেছেন। সম্প্রতি ভারতের জয়পুর সাহিত্য উৎসবে ড. ইউনূস আউটলুক ইন্ডিয়াকে দেয়া সাক্ষাৎকারে পুঁজিবাদ, অর্থনীতি ও গণতান্ত্রিক ব্যবস্থাপনা নিয়ে মন্তব্য করেছেন।
দরিদ্রতা মোচন, ক্ষুদ্রঋণ ও সামাজিক ব্যবসা নিয়ে কাজ করা এই অর্থনীতিবিদ বলেন, বিশ্বের প্রতিটি প্রান্তে প্রতিনিয়তই বৈষম্য বিস্তার করে চলছে। অক্সফামের প্রতিবেদনে স¤প্রতি উঠে এসেছে, ভারতের ৭৩ ভাগ সম্পদ ১ ভাগ লোকের হাতে কুক্ষিগত। আগমী বছরগুলোতে দেখা যাবে এই সম্পদের পরিমাণ ৭৩ থেকে ৮০ বা ৮৫ ভাগে পৌঁছেছে।
ড.ইউনুস আরো বলেন, যখন কিছু মানুষের হাতে সম্পদের নিয়ন্ত্রণ থাকে, তারা নির্বাচন, রাজনীতি, গণমাধ্যমসহ সবকিছুকেই নিয়ন্ত্রণ করে তখন গণতন্ত্রের ধারণা সত্যি হতে পারে না। এটি গণতন্ত্রের বিপরীত। আমরা স্বচ্ছ নির্বাচনের দিকে তাকিয়ে থাকি, যেখানে মানুষ স্বচ্ছন্দ্যে ভোট দিতে পারবে। কিন্তু কেউ আড়ালে থেকে কল-কাঠি নিয়ন্ত্রণ করে।
বর্তমান পুঁজিবাদ ও সম্পদের কুক্ষিগত ধারণা নিয়ে ড. ইউনুস বলেন, আমাদের ব্যবস্থাপনায় সমস্যা আছে। আমরা যে ব্যবস্থা দাঁড় করিয়েছি সবাই কাউকে বড় বা আরো বড় করার জন্য কাজ করে। সাধারন মানুষ মনে করে চাকরি ছাড়া তাদের আর কোন উপায় নেই। চাকরিজীবীরা তাদের মালিককে আরো উন্নতি করার জন্য কাজ করে। আপনাকে প্রথমে এটি বুঝতে হবে পুরো ব্যবস্থাটাই ভুল। আমাদের পুরো আর্থিক ব্যবস্থাপনাটাকেই ঢেলে নতুন করে সাজাতে হবে। এর কোন সহজ সমাধান নেই কিংবা বিষয়টি এমনও নয় যে সরকার একটি আইন পাশ করলেই সব ঠিক হয়ে যাবে। আমি মনে করি তরুণরা ভুল ও সঠিক চিহ্নিত করতে পারে। আমি তাদের বলি, তাদের হাতে দুইটি উপায় আছে। প্রথমত, কারো জন্য কাজ করা অথবা নিজের জন্য কিছু করা। তাদের কাছে আমি স্পষ্ট করি, হয় তারা মেশিনের মত কাউকে ধনী করতে কাজ করবে কিংবা নিজের ব্যবসা দাঁড় করাবে। আমি আমার বইতে বলেছি, প্রতিটি মানুষই জন্মগতভাবে একজন উদ্যোক্তা। যেখানে ব্যক্তি তার সৃজনশীলতার বিকাশ ঘটাতে পারে কিন্তু চাকরির ক্ষেত্রে পারে না। (সৌজন্যে ঃ আউটলুক ইন্ডিয়া)।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন