ঢাকা, মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯, ০৮ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৯ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

সারা বাংলার খবর

ভর্তি সংক্রান্ত সুবিধা দেবে চবি শিক্ষার্থীদের উদ্ভাবিত অ্যাপ

মীর রাসেল, চবি থেকে | প্রকাশের সময় : ৩ অক্টোবর, ২০১৮, ৩:২৯ পিএম

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের কয়েকজন শিক্ষার্থী তৈরি করেছেন ৩০ টি ফিচার সমৃদ্ধ বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি সহয়াতা কারি ‘অ্যাডমিশন অ্যাসিস্ট্যান্ট’ নামের একটি বিশেষ অ্যাপ। বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার সময় পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকরা ভর্তি ফরম পূরণ, টাকা জমা দেওয়ার তারিখ, প্রবেশ পত্র পাওয়া, পরীক্ষার সিট কোথায় পড়ল,কীভাবে দূরের ক্যাম্পাসে যেতে হবে ইত্যাদি বিষয় নিয়ে বেশ উদ্বিগ্ন থাকেন। এসব উদ্বেগ দূর করবে এই বিশেষ অ্যাপ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি সংক্রান্ত এত তথ্য বহুল অ্যাপ এটিই প্রথম বলে দাবি করেছেন নির্মাতারা।
ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী আবদুল্লাহ আল মামুনের নেতৃত্বে অ্যাপটি তৈরি করতে ৬ মাস ধরে নিরলস পরিশ্রম করেছেন একই বিভাগের আরো কয়েকজন শিক্ষার্থী। অ্যাপটি বর্তমানে গুগল প্লে স্টোরে উন্মুক্ত করা হয়েছে। অ্যাপটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তীচ্ছুদের মধ্যে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। ইতিমধ্যে বাংলাদেশ সরকারের একসেস টু ইনফরমেশন এর অধীনে জাতীয় পর্যায়ে প্রতিযোগিতার জন্য এটি মনোনীত হয়েছে।
অ্যাপটিতে যা যা রয়েছে:
বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে পাঁচ ভাগে ভাগ করা হয়েছে। সাধারণ বিশ্ববিদ্যালয়, ইঞ্জিনিয়ারিং, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, কৃষি ও ভেটেরিনারি বিশ্ববিদ্যালয় এবং মেডিক্যাল কলেজ। যে শিক্ষার্থী যে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে চান ক্যাটাগরি অনুযায়ী সেখানে ক্লিক করলেই যানতে পারবেন পছন্দের বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিসংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য। প্রত্যেক বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি দেওয়া আছে অ্যাপটিতে। বিজ্ঞপ্তি বোঝার সুবিধার্থে সহজ ফরম্যাট ও প্রতিটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের সাথে সাথেই বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে অ্যাপস ব্যবহারকারীকে জানিয়ে দেওয়া হবে। তাই এখন বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিজ্ঞপ্তি খোঁজাখুঁজি করে সময় নষ্ট করতে হবে না।
অ্যাডমিশন কাউন্টডাউন বাটনে ক্লিক করে কোন বিশ্ববিদ্যালয়ের আবেদন কখন শুরু শেষ- তা একসাথে তালিকা আকারে জানতে পারবে ব্যাবহারকারী। পাশাপাশি রয়েছে অ্যাপ্লাই বাটনে ক্লিক করে কোনো ঝামেলা ছাড়া আবেদন করার সুবিধা। এছাড়া কোথায় ভর্তি পরীক্ষার সিট পড়ল সেই সিটপ্লানও এটির মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে। এ ছাড়া, যখন যে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রবেশপত্র, আসন বিন্যাস, ফল প্রকাশিত হবে- তা সঙ্গে সঙ্গেই দেখা যাবে।
ভর্তি পরীক্ষার সময় অচেনা শহরে যাতায়াত সংক্রান্ত নানা সমস্যায় পড়েন শিক্ষার্থীরা। এই অ্যাপ দেবে 'ম্যাপিং' সুবিধা এতে পরীক্ষার্থী যে কোনো জায়গা থেকেই বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে কারো সাহায্য ছাড়াই চলে যেতে পারবেন। আর রয়েছে বাস, ট্রেন টিকেট, এমনকি হোটেল বুকিং করার সুবিধাও।
অ্যাপটি 'লগ ইন' করতে যেসব তথ্য লাগবে:
এসএসসি, এইচএসসি রোল, রেজিস্ট্রেশন নম্বর, বোর্ড ও ছবি দিয়ে একটি ক্লিকের মাধ্যমেই পছন্দের বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদন করা যাবে। কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে কোন ইউনিটে পরীক্ষা দেবে এবং কোন কোটা রয়েছে কি-না তা সিলেক্ট করেই যে কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদন করা যাবে। বিকাশ অথবা রকেটের মাধ্যমে ভর্তি ফরমের ফিস প্রদান করার সুযোগ রয়েছে। তবে কেউ এই সুবিধা নিতে না চাইলে শুধু ফোন ও ই-মেইল দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করে অ্যাপটির বাকি সুবিধাগুলো নিতে পারবেন। কারো স্মার্টফোন না থাকলে সে অন্যের ফোন থেকে একাউন্ট খুলে এই অ্যাপের সকল সুবিধা নিতে পারবেন।
এ বিষয়ে ‘অ্যাডমিশন অ্যাসিস্ট্যান্ট’ অ্যাপ নির্মান টিমের প্রধান আব্দুল্লাহ আল মামুন ইনকিলাবকে বলেন, ইতিমধ্যে অনেক অঞ্চল থেকে অনেক ব্যবহারকারী আমাদের সাথে যুক্ত হয়েছেন। আমরা স্বপ্ন দেখি, এই অ্যাপ একদিন লাখো ভর্তি পরীক্ষার্থীর বিশ্বস্ত সহযোগী হয়ে উঠবে। সঠিক সময় সঠিক তথ্যের অভাবে উচ্চ শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হবে না দেশের একজন শিক্ষার্থীও।
তিনি আরো বলেন, আগামীতে এগুলোর সাথে কলেজের এ্যাডমিশন ও স্কলার শীপের বিষয়ও যুক্ত করা হবে। এছাড়া আগামী বছর থেকে দেশ সেরা একশত জন দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থীর ভর্তি কোচিংএর সব খরচ বহন করতে চান তিনি।

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন