ঢাকা শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৮ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

অর্থনীতিতে নোবেল দুই মার্কিন গবেষকের

জলবায়ু সঙ্কটে প্রবৃদ্ধি সচল রাখার তত্ত

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ অক্টোবর, ২০১৮, ১২:০১ এএম

চলতি বছর অর্থনীতিতে অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন উইলিয়াম নর্ডহাউস ও পল রোমার। সোমবার রয়েল সুইডিশ অ্যাকাডেমি অফ সায়েন্সেস অর্থনৈতিক বিজ্ঞানে ৫০তম এ পুরস্কারে বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করে। বিজয়ী দুই অর্থনীতিবিদ যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক।
নোবেল কমিটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, জলবায়ু পরিবর্তনজনিত কারণে সংঘটিত অর্থনৈতিক ক্ষতির বিষয়গুলো নিরুপণ করতে সমর্থ হয়েছেন নর্ডহাউস। আর রোমার খুঁজে বের করেছেন, কী করে অর্থনীতিবিদরা প্রবৃদ্ধির ধারাকে গতিশীল রাখতে পারেন।
দুজন মিলে এমন একটি মডেল দাঁড় করিয়েছেন, যা পরিবর্তিত জলবায়ু পরিস্থিতিতে প্রবৃদ্ধি ধরে রাখার উপায় দেখিয়ে দিয়েছে। সামষ্টিক অর্থনীতিকে তারা এমন একটা পর্যায়ে নিতে সক্ষম হয়েছেন, যেখানে দাঁড়িয়ে বিশ্বের অন্যতম বড় সংকট মোকাবেলার পথ সৃষ্টি হয়েছে। জলবায়ু অর্থনীতির জন্য নর্ডহাউস এবং ‘এন্ডোজেনাস গ্রোথ’ থিওরির জন্য রোমারকে এই সম্মানজনক পুরস্কার দেয়া হয়েছে।
উইলিয়াম ডি. নর্ডহাউস যুক্তরাষ্ট্রের ইয়েল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক। আর পল এম. রোমার অধ্যাপনা করছেন নিউ ইয়র্ক ইউনিভার্সিটির স্টার্ন স্কুল অব বিজনেস-এ।
অর্থনীতিতে তাঁদের অবদানের স্বীকৃতি দিয়ে নোবেল কমিটি বলেছে, এই গবেষণা আমাদের সময়ের সবচেয়ে মৌলিক ও গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, বিশ্ব অর্থনীতির দীর্ঘকালীন টেকসই প্রবৃদ্ধি এবং মানুষের কল্যাণ।
‘জলবায়ু ও অর্থনীতির পারস্পরিক সম্পর্ক’ ইস্যুটি নর্ডহাউসই সর্বপ্রথম সামনে নিয়ে আসেন। তিনি দেখান, রাষ্ট্র পরিচালনার নীতি নির্ধারণে এখন জলবায়ু পরিবর্তনের পরিমাণগত দিক নির্ণয় করা হচ্ছে। উদাহরণস্বরূপ তিনি তুলে ধরেন ‘কার্বন ট্যাক্সের’ ধারণা। একই সাথে অর্থনৈতিক কার্যক্রম কিভাবে রসায়ন ও পদার্থবিজ্ঞানের সাথে সম্পর্কিত হয়ে জলবায়ু পরিবর্তনে ভূমিকা রাখছে, সেটিও হাতেকলমে দেখিয়ে দেন তিনি।
রোমার ২০১৮ সালের জানুয়ারি পর্যন্ত বিশ্ব ব্যাংকের প্রধান অর্থনীতিবিদ হিসেবে কাজ করেছেন। ‘এন্ডোজেনাস গ্রোথ’ থিওরি তৈরিতে সহায়তা করেছেন তিনি।
২০১৭ সালে অর্থনৈতিক সিদ্ধান্ত গ্রহণে মনস্তত্তে¡র ভূমিকা নিরুপণ করে অর্থনীতিতে নোবেল জিতে নেন মার্কিন অর্থনীতিবিদ রিচার্ড থ্যালার। ২০১৬ সালে বাজার অর্থনীতির চালিকাপ্রবাহে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্রিটিশ বংশোদ্ভূত অর্থনীতিবিদ অলিভার হার্ট এবং ফিনল্যান্ডে জন্ম নেওয়া ম্যাসাচুয়েটস ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি (এমআইটি) বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতিবিদ বেঙ্কট হোমস্ট্রমকে অর্থনীতিতে নোবেল দেওয়া হয়। তার আগের বছর অর্থাৎ ২০১৫ সালে ভোগ, দারিদ্র্য ও জনকল্যাণ সংক্রান্ত গবেষণায় অবদানের জন্য অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার জিতেছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রিন্সটন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক অ্যাঙ্গাস ডেটন।
এর মধ্য দিয়ে শেষ হলো ২০১৮ সালের নোবেল পুরস্কার ঘোষণা। ৭০ বছরের ইতিহাসে এবারই প্রথম ঘোষণা হয়নি সাহিত্যের নোবেল। সূত্র: রয়টার্স, এপি, এএফপি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন