সোমবার, ০৮ আগস্ট ২০২২, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯, ০৯ মুহাররম ১৪৪৪ হিজরী

সারা বাংলার খবর

নেত্রকোনায় প্রচ- কালবৈশাখী ঝড় তিন শতাধিক বাড়িঘর বিধ্বস্ত

প্রকাশের সময় : ২৮ এপ্রিল, ২০১৬, ১২:০০ এএম

নেত্রকোনা জেলা সংবাদদাতা : নেত্রকোনা সদর, দূর্গাপুর ও কলমাকান্দা উপজেলার উপর দিয়ে গত মঙ্গলবার মধ্যরাতে বয়ে যাওয়া প্রচ- কালবৈশাখী ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে বোরো ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ঝড়ে প্রায় তিন শতাধিক কাঁচা ঘরবাড়ি ধসে পড়েছে, ভেঙ্গে পড়েছে অসংখ্য বৈদ্যুতিক খুঁটি ও গাছপালা। ঝড়ের সময় ঘরবাড়ি গাছের নিচে চাপা পড়ে কমপক্ষে ৫ জন আহত হয়েছে।
জানা যায়, গত মঙ্গলবার মধ্যরাতে নেত্রকোনা সদর, দূর্গাপুর ও কলমাকান্দা উপজেলার উপর দিয়ে প্রচ- কালবৈশাখী ঝড় বয়ে যায়। এ সময় ঝড়ের সাথে শিলাবৃষ্টিও হয়। প্রচ- ঝড়ে সদর উপজেলার কে-গাতী, মৌগাতী, সিংহের বাংলা, ঠাকুরাকোনা, দূর্গাপুর উপজেলার বিরিশিরি, কাকৈরগড়া, বাকলজোড়া, কলমাকান্দা উপজেলার কৈলাটি, পোগলা ইউনিয়নের উঠতি বোরো পাকা ধানের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। অনেক স্থানে বোরো পাকা ধান গাছ মাটির সাথে মিশে যায়। ঝড়ে এ সকল ইউনিয়নের প্রায় তিন শতাধিক ঘরবাড়ি ধসে পড়েছে। ভেঙ্গে গেছে অসংখ্য বৈদ্যুতিক খুঁটি ও গাছপালা। দূর্গাপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এমদাদুল হক খান জানান, দূর্গাপুর উপজেলার বাকলজোড়া ইউনিয়নের রামনগর গ্রামের বেশির ভাগ বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ক্ষেতের পাকা ধান মাটির সাথে মিশে গেছে। ঘরবাড়ি হারিয়ে অনেকেই খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছে। এছাড়াও বিরিশিরি ইউনিয়নেরও বিভিন্ন গ্রামের অসংখ্য ঘরবাড়ির ক্ষতি হয়। বৈদ্যুতিক খুঁটি ভেঙ্গে যাওয়ায় দূর্গাপুর উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের বিদ্যুৎ সরবরাহ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। সদর উপজেলার কে-গাতী, মৌগাতী, সিংহের বাংলা, ঠাকুরাকোনা ইউনিয়নের  বিভিন্ন গ্রামে ঝড়ের তা-বে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। সবচেয়ে বেশি দূর্গাশ্রম ও নয়পাড়া গ্রামের ঘরবাড়ি ধসে পড়ে। কালবৈশাখী ঝড়ে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মসজিদ, মাদরাসার টিনের চাল উড়ে যায়। ঝড়ে ভেঙ্গেপড়া ঘরবাড়ি ও গাছপালার নিচে চাপা পড়ে দূর্গ্রাশ্রম গ্রামের ক্বারি রইছ উদ্দিন (৭০), বাকলজোড়া গ্রামের সবুজ মিয়া (৫৮), জামাল মিয়া (৫৪), বিরিশিরি গ্রামের সুশীল ¤্রং (৪৯) ও পোগলা গ্রামের শহীদ মিয়া (৬০) আহত হয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন