ঢাকা, মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯, ০৮ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৯ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

জাতীয় সংবাদ

নোবিপ্রবি’র ভিসির অনিয়ম দুর্নীতি নিরাপত্তাহীনতার কারণে ফিরে গেলেন ইউজিসি তদন্ত টীম

প্রকাশের সময় : ২৮ এপ্রিল, ২০১৬, ১২:০০ এএম

নোয়াখালী ব্যুরো : নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. এম ওহিদুজ্জামান এর বিরুদ্বে অনিয়ম, দুর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারিতার বিষয়ে আরোপিত অভিযোগ তদন্তে গঠিত ইউজিসি তদন্ত টিম নিরাপত্তাহীনতার কারণে শেষতক নোয়াখালী সার্কিট হাউস থেকে পুনরায় ঢাকায় ফিরে যেতে বাধ্য হন। মঙ্গলবার বিকালে তিন সদস্যের তদন্ত টিম ঢাকা থেকে নোয়াখালী সার্কিট হাউসে এসে অবস্থান করেন।
রাত নয়টার দিকে নোবিপ্রবি’র সহকারী রেজিস্ট্রার ও ও অফিসার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি তারেক মো. রাশেদের নেতৃত্বে ৩৫/৪০ জন লোক সার্কিট হাউস কম্পাউন্ড ও বাইরে অবস্থান নেয়। এসময় কয়েকজন শিক্ষক তদন্ত কমিটির সাথে দেখা করতে এসে বিরূপ পরিস্থিতির মুখোমুখি হন। পরে পুলিশ ও গোয়েন্দা সংস্থার লোকজন এলে বহিরাগতরা বাইরে অবস্থান নেয়। অপরদিকে রাতে ভিসি’র পক্ষের কিছু শিক্ষক ও কর্মচারী কয়েকজন নবীন শিক্ষকের কাছ থেকে জোরপূর্বক সাদা কাগজে দস্তখত আদায় করেন বলে পরিচয় প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন শিক্ষক জানান। বুধবার ভিসি ড. এম ওহিদুজ্জামান একটি অঙ্গীকারনামা তৈরী করে শিক্ষকদের বিভিন্ন কক্ষে প্রবেশ করে তাদের থেকে জোরপূর্বক দস্তখত আদায় করেন। এবিষয়ে কয়েকজন শিক্ষক অভিযোগ করেন যে, অঙ্গীকারনামায় এক স্থানে উল্লেখ ছিল ‘ভিসি অনিয়ম ও দুর্নীতির সাথে জড়িত নেই এবং তার নেতৃত্বে নোবিপ্রবি’তে সুষ্ঠু কার্যক্রম চলছে’। নোবিপ্রবি’র বেশ কয়েকজন শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারী পরিচয় গোপন রাখার শর্তে ইনকিলাবকে জানায়, মঙ্গলবার বিকালে ঢাকা থেকে ইউজিসি তদন্ত টীম নোয়াখালী সার্কিট হাউসে আগমনের সাথে সাথে ভিসি ড. এম ওহিদুজ্জামান অস্থির হয়ে পড়েন। কেউ যেন সার্কিট হাউসে অবস্থানরত তদন্ত টিমের সাথে দেখা না করতে পারে সেজন্য রাতে সেখানে লোকজন জড়ো করা হয়। বুধবার বিশ^বিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বেশ কিছু বহিরাগত অবস্থান নেয়া ছাড়াও তদন্ত টিমকে বাধাপ্রদানের উদ্দেশে সোনাপুর জিরো পয়েন্টে বেশকিছু বহিরাগত অবস্থান নেয় এবং সকালেও সার্কিট হাউসের বাইরে বেশ কিছু বহিরাগত হোন্ডা নিয়ে আনাগোনা করার দৃশ্য প্রত্যক্ষ করেন গোয়েন্দা সংস্থার লোকজন। পুরো ঘটনাটি সার্বক্ষণিক মনিটর করেন ইউজিসি তদন্ত টিম। উদ্ভুত পরিস্থিতিতে তদন্ত টিম বিশ^বিদ্যালয় ক্যাম্পাসে না গিয়ে দুপুর ১২টার দিকে ঢাকার উদ্দেশে রওয়ানা হন। জানতে চাইলে ঢাকা থেকে আগত তিন সদস্য বিশিষ্ট ইউজিসি তদন্ত টিমের আহবায়ক প্রফেসর ড. আকতার হোসেন ইনকিলাবকে জানান, এত বৈরী, এত অসহনশীল ও বিরূপ পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে যে, আরো একটা অপ্রীতিকর ঘটনার সৃষ্টি হোক এজন্য আমরা নোবিপ্রবি ক্যাম্পাসে তদন্তে যাইনি। পূরো ঘটনায় তদন্ত টিম বেশ হতাশ। উল্লেখ্য, ভিসি প্রফেসর ড. এম ওহিদুজ্জামান কয়েকদিন পূর্বে এ প্রতিবেদককে দ্ব্যর্থহীনভাবে বলেছেন যে, ‘আমি সত্যের পথে আছি এবং থাকব। আল্লাহ ছাড়া কারো কাছে মাথানত করব না’। কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে, সত্য পথে থাকার শ্লোগানধারী ব্যক্তিটি ইউজিসি তদন্ত টিমকে প্রতিরোধ করার জন্য দিনভর নাটকের অবতারণা করলেন কেন? তিনি যদি দুর্নীতিমুক্ত থাকতেন- তাহলে তদন্ত টিমকে স্বাগত জানিয়ে তাদেরকে সহযোগিতা প্রদান করতেন বলে সচেতন মহলের অভিমত। কিন্তু তদন্ত টিম ফিরে যাওয়ায় ভিসি’র কি সম্মান বৃদ্ধি পেয়েছে? এখন তো এটা প্রমাণিত হয়েছে যে, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে প্রেরিত অভিযোগসমূহ সঠিক।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন