ঢাকা, শুক্রবার , ২২ নভেম্বর ২০১৯, ০৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

বিরতিই মাসাকাদজার অনুপ্রেরণা

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩ নভেম্বর, ২০১৮, ১২:০১ এএম

স্বাগতিকের সুবিধা নিয়ে বাংলাদেশ এ ভেন্যুতে চলে এসেছে আগেই। জিম্বাবুয়েকে বৃষ্টি-বাগড়ায় আধখেঁচড়া প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে হয়েছে চট্টগ্রামে। আগের দিন সিলেটে পা দিয়ে গতকালই কেবল সুযোগ পেয়েছে অনুশীলনের।

এ কারণেই হয়তো মাঝদুপুরে অনুশীলন শুরু করেও শেষ করার নামই নেই। বিকেল গড়িয়ে যাচ্ছে, তবু ঘাম ঝরিয়ে যাচ্ছেন হ্যামিল্টন মাসাকাদজা, ব্রেন্ডন টেলররা। চট্টগ্রামের সঙ্গে কন্ডিশনের খুব একটা তফাৎ হয়তো নেই, তবু পুরোদস্তুর অনুশীলনের সুযোগ এ মাঠে মিলল মাত্র এক দিন। এ কারণে বাড়তি খেটে খুটে পুষিয়ে নেওয়ার চেষ্টা। এমনকি কোচ লালচাঁদ রাজপুতকেও দেখা গেল, ফিরতি দফায় সেন্টার উইকেট দেখে নিচ্ছেন আরও একবার। সেই সুদিন আর নেই। মধ্যবিত্তের সংসারে এখন পান্তা ফুরানোর হাহাকার। তবু এই দলের খেলোয়াড়দের প্রতিভা নিয়ে তো প্রশ্ন নেই। টানা পরাজয় একটা ডমিনো এফেক্ট তৈরি করে। জিম্বাবুয়ে এখন অপেক্ষা করছে কোনো একটা ব্লক যেন রুখে দাঁড়ায় পতনের স্রোতে।

তবে হারের মধ্যে থাকা একটি দলকে অনুপ্রাণিত করা সহজ নয়। তবে টেস্ট সিরিজ শুরুর আগে কঠিন এই কাজ বেশ সহজে করতে পারছেন মাসাকাদজাও। জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক জানান, টেস্টে ভালো করতে লম্বা বিরতিকে অনুপ্রেরণা হিসেবে নিচ্ছেন তারা। গত ডিসেম্বরে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে দুই দিনে টেস্ট হেরে যাওয়ার পর এই সংস্করণে আর খেলা হয়নি জিম্বাবুয়ের। বাংলাদেশের বিপক্ষে দুই ম্যাচের সিরিজ শেষে আবার খেলতে হবে লম্বা বিরতিতে। সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের অভিষেক টেস্টের অংশ হতে পেরে খুশি মাসাকাদজা জানান, স্বাগতিকদের উৎসব মাটি করতে মাঠে নিজেদের উজাড় করে দেবেন তারা, ‘আমরা খুব বেশি টেস্ট খেলি না বলে ছেলেদের অনুপ্রাণিত করাটা খুব সহজ। ওদের বলাটা সহজ, ‘মাঠে যাও, আর নিজেদের সেরাটা দাও’। আমরা সুযোগ দুই হাতে কাজে লাগাতে উন্মুখ। আমরা নিজেদের সেরা ক্রিকেট খেলতে মুখিয়ে আছি। পরের টেস্ট সিরিজের আগেও আছে লম্বা বিরতি। তাই এমন পরিস্থিতিতে এই সুযোগ কাজে লাগাতে ছেলেদের আরও বেশি অনুপ্রাণিত করা সম্ভব।’

টেস্ট সিরিজের আগে জিম্বাবুয়ে আদর্শ প্রস্তুতি নিতে পারেনি। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে তিন দিনের প্রস্তুতি ম্যাচের বেশির ভাগ খেলাই নষ্ট হয় বৃষ্টিতে। বৃহস্পতিবার সিলেটে এসেও মানিয়ে নিতে খুব বেশি সময় পায়নি দলটি। অভিজ্ঞতা দিয়ে প্রস্তুতির ঘাটতি পুষিয়ে নিতে উন্মুখ মাসাকাদজা, ‘বৃষ্টির জন্য প্রস্তুতি ম্যাচে খুব একটা খেলার সুযোগ পাইনি। এখানে কেবল একটা অনুশীলন সেশনের পরই আমাদের খেলতে হবে। কাজটা সহজ নয়। তবে আমাদের দলে অভিজ্ঞতার কোনো ঘাটতি নেই। আশা করি, আমরা দ্রুত মানিয়ে নিয়ে ভালো খেলতে পারব। আমরা বড় দৈর্ঘ্যরে ক্রিকেট খুব বেশি খেলি না। আমরা এই সিরিজের গুরুত্বটা বুঝতে পারছি। গত কয়েক বছর ধরে বড় দৈর্ঘ্যরে ক্রিকেটেও বাংলাদেশের দলটি অভিন্ন। তাই ওদের হারাতে আমাদের ভিন্ন কিছু করতে হবে।’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন