ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৯ আশ্বিন ১৪২৬, ২৪ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

অভ্যন্তরীণ

লামার সরই বনক্যাম্প কর্মকর্তার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগ

বান্দরবান থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১০ নভেম্বর, ২০১৮, ১২:০৫ এএম

লামা উপজেলার ডলুছড়ি রেঞ্জ এর আওতাধীন সরই বনক্যাম্প কর্মকর্তা ফরেষ্টার মাসুম কবিরের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগ পাওয়া গেছে। চাঁদা না পেয়ে গত বৃহস্পতিবার দরিদ্র কৃষকের টিউবওয়েলের টিন বেড়া খুলে নিয়েছে। এ ব্যাপারে স্থানীয় একজন সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন মহলে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
জানা গেছে, সরই বনক্যাম্প কর্মকর্তা মাসুম কবির বিগত এক বছর আগে ওই ক্যাম্পে যোগদান করার পর থেকে এলাকায় ব্যাপক চাঁদাবাজি করে আসছে। দরিদ্র কৃষকদের বনমামলার ভয় দেখিয়ে এসব চাঁদাবাজি করে যাচ্ছে। এলাকাবাসীরা জানান, চাঁদা না দিলেই বলে আমি বদলী হয়ে যাবার সময় নামে ৪/৫ টা করে বনমামলার আসামী করে যাওয়া হবে। তার চাঁদা নেবার জন্য তিনি স্থানীয় একজন দালাল নিযুক্ত করেছেন। এলাকার অবৈধ কাঠ ব্যবসায়ীদের পাশাপাশি দরিদ্র কৃষকদের কাছ থেকে সে নিয়মিত চাঁদা আদায় করে থাকে। এরই জের ধরে গত বৃহস্পতিবার ওই এলাকার কৃষক মোহাম্মদ শহীদের কাছে চাঁদা না পেয়ে তার বাড়ীর সামনে টিউবওয়েলের টিন বেড়া খুলে নিয়ে যায় ফরেষ্টার মাসুম কবির। মোহাম্মদ শহীদের স্ত্রী বলেন, এই এলাকায় আর কোন টিউবওয়েল নেই। গ্রামের সব মহিলা এখানে গোসল করে। তাই আমরা চারদিকে বেড়া দিয়েছিলাম। কিন্তু আমার স্বামীর উপর ক্ষোভ ঝাড়তে গিয়ে বেড়া ও টিন খুলে নেয়।
ফরেষ্টার মাসুম কবিরের চাঁদাবাজির বিরুদ্ধে অভিযোগকারী মোহাম্মদ সেলিম উদ্দীন বলেন, দীর্ঘদিন ধরে ফরেষ্টার মাসুম কবির এই এলাকায় অবৈধ কাঠ ব্যবসায়ীর পাশাপাশি দরিদ্র কৃষকদের কাছে চাঁদাবাজি করে আসছিল। কিন্তু তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করার সাহস পায়না। তিনি বলেন, মোহাম্মদ শহীদ একজন দরিদ্র কৃষক। সে আমার বাগানের কেয়ারটেকার। চাঁদা না পেয়ে তার টিউবওয়েলের বেড়া ও টিন খুলে নেওয়াটা খুবই ন্যাক্ষারজনক ঘটনা। এ ব্যাপারে ফরেষ্টার মাসুম কবিরের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, সেটা আমাদের রিজার্ভের জায়গা। তাই টিন বেড়া খুলে নেওয়া হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন