ঢাকা, রোববার, ০৭ জুন ২০২০, ২৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ১৪ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

চল্লিশের ইতিহাসে অদ্বিতীয় মিরাজ

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১২:০২ এএম


সিরিজের শুরুতে আলোচনা ছিল বাংলাদেশের ‘স্পিন কোয়াট্রেট’ নিয়ে। সিরিজ জুড়ে চলল তাদেরে রাজত্ব। সিরিজ শেষে সেই চার স্পিনারের সৌজন্যেই বাংলাদেশের নাম লেখা হয়ে গেল টেস্ট ইতিহাসে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে দুই ম্যাচে ৪০টি উইকেটই নিয়েছেন বাংলাদেশের স্পিনার। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে প্রতিপক্ষের সবকটি উইকেটই স্পিনারদের শিকার টেস্ট ইতিহাসে এটিই প্রথম।
দুই ম্যাচের সিরিজে স্পিনারদের আগের সবচেয়ে বেশি উইকেটের রেকর্ডও ছিল বাংলাদেশের। ২০১৬ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ থেকে দেশের মাটিতে টার্নিং উইকেট বানিয়ে টেস্ট জয়ের কৌশল নিয়েছে বাংলাদেশ। সেই সিরিজে বাংলাদেশের স্পিনাররা নিয়েছিল ৩৮ উইকেট।
এবার ৪০ উইকেট ভাগাভাগি করে নিয়েছেন ৪ স্পিনার। প্রথম টেস্টে মেহেদী হাসান মিরাজ নিয়েছিলেন ৩ উইকেট। দ্বিতীয় টেস্টে ১২ উইকেট নিয়ে মিরাজ সিরিজ শেষ করেছেন সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি হয়ে। নিয়েছেন মোট ১৫ উইকেট। বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম নিয়েছেন ১০টি। আরেক বাঁহাতি স্পিনার অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের শিকার ৯ উইকেট। স্পিন চতুষ্টয়ের নবীনতম সদস্য নাঈম হাসান নিয়েছেন ৬ উইকেট।
আগের দিন বিকেলে ছিল তিনটি। গতকাল তৃতীয় দিন সকালে চারটি। মেহেদী হাসান মিরাজের স্পিনে ভেঙে পড়ল ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটিং। মিরপুর টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৭ উইকেট নিয়ে এই অফ স্পিনার নাম লেখালেন রেকর্ড বইয়ে। এক ইনিংসে ৭ উইকেট বাংলাদেশের হয়ে এর আগেও নিয়েছেন ৩ জন। তবে অফ স্পিনে ৭ উইকেট শিকারি প্রথম বোলার মিরাজই। বাংলাদেশের হয়ে ৭ উইকেট নেওয়া আগের তিন বোলারই বাঁহাতি স্পিনার-এনামুল হক জুনিয়র, সাকিব আল হাসান ও তাইজুল ইসলাম।
অফ স্পিনার হিসেবে আরেকটি জায়গাতেও মিরাজের নাম এখন সবার ওপরে। ৫৮ রানে নিয়েছেন ৭ উইকেট। বাংলাদেশে কোনো অফ স্পিনারের সেরা বোলিংয়ের রেকর্ড এটিই। গত বছর চট্টগ্রামে অস্ট্রেলিয়ান অফ স্পিনার নাথান লায়নের ৯৪ রানে ৭ উইকেট ছিল আগের সেরা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (6)
K. U RayHan ৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২:২৮ এএম says : 0
Dear cricket fans i just want to say that this is the best ever win that i have ever seen in last 20 years of test cricket... Bangladesh is now one of the dangerous team in all three formats like other top teams
Total Reply(0)
Md Mukhter UZ Zaman ৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২:২৮ এএম says : 0
Thank you miraj
Total Reply(0)
AK Didar ৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২:৩০ এএম says : 0
Future Bangladesh Captain not a bad move at all. looks like it was very fine.i must say nathing bad at all.
Total Reply(0)
Rumman Noman MiraZ ৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২:৩০ এএম says : 0
VI u r a perfect allounder
Total Reply(0)
Abdullah Tousif ৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২:৩১ এএম says : 0
Wow bhai.Hope you will be sustainable.
Total Reply(0)
Käžï Jähîd Häšäñ Jőý ৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২:৩১ এএম says : 0
next captin bangladesh
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন