ঢাকা, সোমবার, ২৬ আগস্ট ২০১৯, ১১ ভাদ্র ১৪২৬, ২৪ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

জাতীয় সংবাদ

যেখানে সেনাবাহিনীর গাড়ী সেখানেই পাল্টাচ্ছে ভোটের চিত্র

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনে একপক্ষীয় প্রচারণায় ভোটের আকাশে ছিল গুমোট হাওয়া। ইসির ব্যর্থতা, আইন শৃংখলা বাহিনীর পক্ষপাতিত্ব আচরণ, গ্রেফতার, ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীদের হামলা-ভয়ভীতি প্রদর্শনে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক উদ্বেগ বিরাজমান। এমনকি ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থীদের কর্মী-সমর্থকদের বাসায় বাসায় গভীর রাতে গিয়ে ভয়ভীতি দেখানো এবং ভোট দিতে কেন্দ্রে না যাওয়ার প্রস্তাব, গেলে প্রকাশ্যে নৌকায় সিল মারার নির্দেশে ভোট দিতে যাবেন কিনা তা নিয়ে ভোটারদের মধ্যে সংশয় ছিল। ভোট দেয়ার প্রস্তুতি হিসেবে কর্মজীবী মানুষ রাজধানী ছেড়ে নিজ নিজ এলাকায় যাচ্ছেন সংশয়-আতঙ্ক নিয়েই।
কয়েকদিনের পরিচিত এই দৃশ্য পাল্টাতে শুরু করেছে গতকাল কিছু কিছু এলাকায় সেনাবাহিনীর গাড়ী দেখার পর থেকে। রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশের অনেক এলাকায় সেনাবাহিনীর গাড়ী দেখা গেছে। সেনা সদস্যরা এলাকায় গিয়ে ভোটের পরিবেশের খোঁজ-খবর নিচ্ছেন। শুধু নৌকা প্রতীকের পোষ্টার দেখে জানতে চেয়েছেন অন্য প্রতীকের পোষ্টার নেই কেন? মানুষ জানাচ্ছেন ভয়েই ধানের শীষের পোষ্টার লাগাতে সাহস পাচ্ছেন না ঐক্যফ্রন্ট ও বিএনপির প্রার্থীরা। সেনা সদস্যরা ধানের শীষের পোস্টার লাগাতে বাধা দেয়া গুন্ডা-হোন্ডাদের নাম নিচ্ছেন। সেনারা নিজেদের মোবাইল নম্বর দিয়ে ঝামেলা হলেই ফোন করার পরামর্শ দিচ্ছেন। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, টহলরত সেনা সদস্যরা মানুষকে ভোট দিতে যাওয়ার জন্য উৎসাহ দিচ্ছেন এবং অভয় বাণী শোনাচ্ছেন। তারা বলছেন, ভোট দিতে যাবেন নির্ভয়ে। কেউ আপনাদের ক্ষতি করতে পারবে না। ভয়ভীতি দেখালে ফোন করবেন সঙ্গে সঙ্গে আমরা এসে ব্যবস্থা নেব। বেশ কয়েকটি এলাকায় খবর নিয়ে এসব তথ্য জানা গেছে।
রাজধানী ঢাকায় গতকাল দেখা গেছে অন্যরকম দৃশ্য। ২৪ ডিসেম্বর সেনা মোতায়েন করা হলেও বৃহস্পতিবার সেনা সদস্যদের দেখা গেছে রাজধানীর বেশ কিছু এলাকায়। সেনা বাহিনীর গাড়ী দেখে বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় ভোটারদের মধ্যে আলোচনা শুরু হয়েছে এখন ভোট দিতে পারবো। ধানের শীষ প্রতীকের কর্মী সমর্থকদের মধ্যে দেখা গেছে নতুন উৎসাহ উদ্দীপনা। কিন্তু নৌকা প্রতীকের কর্মী সমর্থকরা এতোদিন ফ্রি স্টাইলে যে প্রচার প্রচারণা, এলাকার বিএনপির প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের ভীতি প্রদর্শন কিছুটা স্থমিত হয়েছে। ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় ধানের শীষের প্রার্থীদের কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে প্রচারণা চালাতে দেখা গেছে।
নেত্রকোনা-৩ আসনের আটপাড়া উপজেলার গ্রামেগঞ্জে সেনাবাহিনীর গাড়ী যায়। স্থানীয়রা জানান, সেনা সদস্যরা এলাকায় ক্যাম্পের খোঁজখবর নিতে যায়। এ সময় তারা ভোটারকে নির্ভয়ে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দেয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। অভয় দিয়ে সেনা সদস্যরা জানিয়েছেন, আপনারা ভোট দেবেন কোনো সমস্যা হলেই জানাবেন। ভোট দিতে ভয়ভীতি যারা দেখানোর চেষ্টা করবে তাদের কঠোর ভাবে দমন করা হবে। নোয়াখালী প্রতিনিধি জানান, সেনা টহল চলছে। অপ্রীতিকর ঘটনার কারণে নোয়াখালী-৪ ও নোয়াখালী-৫ আসনে প্রচারণা বন্ধ রয়েছে। ##

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (24)
Ismil hossain ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১২:২১ এএম says : 0
ধন্যবাদ বাংলাদেশ সেনাবাহিনী
Total Reply(1)
Manir ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২:১০ এএম says : 0
We need peace for Bangladesh. We need free and fare election. We need progress of Bangladesh. I think so our Millitary force can do everything for that. we will see activities from by them PRACTICALLY. Thanks
বদর ১৯৭১ S.T.C ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১২:৫৪ এএম says : 0
বাংলাদেশ সেনাবাহিনী বিশ্বে প্রশংসিত।দায়িত্ব পালনে সদা জাগ্রত।আন্তরিক ধন্যবাদ রহিল।
Total Reply(0)
Ali Akbar ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:২৮ এএম says : 0
সেনাবাহিনীর কমান্ডিং অফিসাররা তো পুলিশ , rab এর মত আওয়ামী লীগের কর্মি না? আমাদের গর্বে সেনাবাহিনী অন্যায়ের বিরুদ্ধে হুঙ্কার দেবেই।
Total Reply(0)
Ali Akbar Nurul Amin ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:২৯ এএম says : 0
hope this is true and insaallah there will be good news for democracy
Total Reply(0)
Abdul Malek ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:২৯ এএম says : 0
Onek mas pore koment dilam fabooke.monta onek shantir nisshas nilo ai kobor pore.thank ettefak
Total Reply(0)
Ahmed Jahir Sst ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:২৯ এএম says : 0
যেকোনো পরিস্থিতিতে দেশের সেনাবাহিনী হলো মহান আল্লাহ তায়ালার অশেষ রহমত।
Total Reply(0)
Ahmed Moha ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৩০ এএম says : 0
Ak matro vhorosa sena bahini, baki sobai failed
Total Reply(0)
Shahossain Ansary ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৩০ এএম says : 0
এমনটি আর কোনো পত্রিকায় পাইলামনা।
Total Reply(0)
Rabiul Hasan Robin ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৩১ এএম says : 1
বাংলাদেশের নাম পরিবর্তন করে আওয়ামিদেশ করা দরকার
Total Reply(0)
Hafiz Ussal ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৩২ এএম says : 0
এখনও হাতে যথেষ্ট সময় আছে, সেনাবাহিনী যদি কার্যকর ভূমিকা রাখে তাহলে মানুষ খুশি হবে, পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দেবে।
Total Reply(0)
দেশপ্রেম ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৩৪ এএম says : 0
আসলে আমাদের বাস্তবতা বুঝতে হবে, সেনাবাহিনীকে যেমন ক্ষমতা দেয়া হয়নি তেমনি তাদের সংখ্যাও কম। এই সীমাবদ্ধতা না থাকলে এতদিন দেশের পরিস্থিতি পালটে যেত।
Total Reply(0)
রোস্তম ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ৯:২৭ এএম says : 0
আল্লাহ পুলিশদের কেও সুবুদ্ধি দাও....,সেনাদের কে সবসময় সত্যের পথে চালাও
Total Reply(0)
হান্নান ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১০:৫৮ এএম says : 0
I very happy to know that our forces are being deployed at last for a while duty. It will much better if it is in aid to civil power to hand over the power and we hope it is so. As a result, our neutral forces can keep a well contribution to that time election to make the that peace and fare by taking part of all the general people. And at the end I strongly hope from them(army) their ever past equailty and fairness.
Total Reply(0)
রেজাউল করিম ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১১:৫৭ এএম says : 0
আমাদের এলাকায় বি এন পির অনেক কর্মীদের গ্র ছাড়া করছে আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীরা। জন সাধারণকে ভোট কেন্দ্রে যেতে নিষেধ করতেছে। তারা বলে ভোট কেন্দ্রে নাকি মারা মারি হবে
Total Reply(0)
S B Rofijul Islam ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২:১২ পিএম says : 0
আল্লাহ তাদের কে হেফাজতে রাখুক *****
Total Reply(0)
Mostafizur Rahman ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ৪:১৫ পিএম says : 0
এ খবর টি এখানে ছাড়া অন্য মিডিয়ায় দেখতে পাচ্ছি না ৷ আশ্চর্য সব মিডিয়া কি সরকারের দালালী শরু করল নাকি বুঝতে পারছি না ৷
Total Reply(0)
Md Mehedi Hasan ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ৮:৪০ পিএম says : 1
I Love U Bangladesh Army... ♥♥♥
Total Reply(0)
মাসুদ ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ৯:৩৯ পিএম says : 0
give me a number of An Army officer. From: Bashbari, Dagortoli, Mirzanagar, Ashulia, Dhaka.
Total Reply(0)
Sharif ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ৯:৪০ পিএম says : 0
I will pray for army force same time I pray inqilab ....tnx
Total Reply(0)
অম্বল ঠাকুর ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১১:২৪ পিএম says : 0
সবাই এই নিউজ পড়ার পর ইনকিলাবএর পেইজের এড গুলা তে ক্লিক মেরে চলে যান। ধন্যবাদ সবাইকে
Total Reply(0)
Mehedi ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১১:১৮ পিএম says : 1
ধন্যবাদ বাংলাদেশ সেনাবাহিনী
Total Reply(0)
Hridoy ২৯ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১২:৪৮ এএম says : 1
Tnq bAngladesh Army,, Selut,,
Total Reply(0)
স্বপন রহমান ২৯ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১:৪২ এএম says : 1
আমাদের দেশপ্রেমিক সেনাবাহিনীর প্রতি জনসাধারণের অগাধ আস্থা। এই আস্থাটুকু যেন শেষ না হয়ে যায় সেনাবাহিনীর প্রতি এটাই চাওয়া। সবার সমান সুযোগ নিশ্চিত করার দায়িত্ব সেনাবাহিনীকেই নিতে হবে। তাহলেই দেশের মানুষ স্বস্তি পাবে।
Total Reply(0)
রবি ২৯ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১২:০৭ পিএম says : 0
জাতির পক্ষ থেকে আমি "সুষ্ঠু" ভোট আশা করি।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন