ঢাকা, বুধবার, ২৭ মে ২০২০, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৩ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

বাদ পড়লেন হেভিওয়েটরা

মন্ত্রিসভার ৪৮ জনের ৩৬ জনই নেই

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়ী এমপিদের শপথ গ্রহণের পর মন্ত্রিসভার সকলেই মন্ত্রীত্বের স্বপ্ন দেখেন। অপেক্ষা করছিলেন মন্ত্রি পরিষদের টেলিফোনের। প্রত্যাশা-উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা সব কিছুই ছিল তাদের অপেক্ষায়। কিন্তু টেলিফোনের অপেক্ষা যেন শেষ হয় না। শেষ পর্যন্ত মন্ত্রিপরিষদ থেকে গতকাল ৪৭ জন মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী-উপমন্ত্রীকে ফোন দেয়া হয়। এদের মধ্যে পুরনোদের ১১জন ডাক পান। কিন্তু জাদঁরেল, প্রভাবশালী ৩৬ জনের অপেক্ষা শেষ হয় না। দিনশেষে বিকেলে জানতে পারেন আটকে গেছে ভাগ্যের চাকা।
দশম সংসদের মেয়াদকালে প্রধানমন্ত্রীসহ মন্ত্রী ছিলেন ২৯ জন, প্রতিমন্ত্রী ১৭, উপমন্ত্রী ২ জন। নতুন মন্ত্রিসভায় প্রধানমন্ত্রীসহ ২৫ জন মন্ত্রী, ১৯ জন প্রতিমন্ত্রী ও তিনজন প্রতিমন্ত্রী স্থান পেয়েছেন। বিগত মন্ত্রিসভার ২৫ মন্ত্রী, ৯ প্রতিমন্ত্রী ও ২ উপমন্ত্রী এবারের মন্ত্রিসভায় স্থান পাননি। আর আগের মন্ত্রিসভার জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম গত ৩ জানুয়ারি মারা যান।
এবার মন্ত্রিসভায় আওয়ামী লীগের শরিক দলের কাউকেই রাখা হয়নি। আর দলে বাম ঘরানার সাবেক ছাত্র ইউনিয়নের নেতাদেরও বাদ দেয়া হয়েছে। এছাড়া জাতীয় পার্টি বিরোধী দল হওয়ায় মন্ত্রিসভায় না থাকার বিষয়ে দলের নীতিগত সিদ্ধান্তের কারণে তাদের রাখা হয়নি। এবার যারা বাদ পড়েছেন তারা হলেন, অর্থ মন্ত্রণালয় মন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী, স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম; স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন, সমাজকল্যাণমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রী নুরুল ইসলাম, পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী মুহাঃ ইমাজ উদ্দিন প্রামাণিক, তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, পরিবেশ মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, পানিসম্পদ মন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু, শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, নৌ-পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান, ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী, রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক, প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান, সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ, খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম, মৎসমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ, বিমানমন্ত্রী এ. কে. এম শাহজাহান কামাল ও ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান। মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী নির্বাচনে মনোনয়ন পাননি। মন্ত্রীদের মধ্যে টেকনোক্রাট দুই মন্ত্রী নুরুল ইসলাম ও অধ্যক্ষ মতিউর রহমান ভোটের আগেই পদত্যাগ করেন।
প্রতিমন্ত্রীদের মধ্যে বাদ পড়েছেন শ্রম প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক (চুন্নু), বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বীরেন শিকদার, জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেক, মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম, পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম, স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রী মসিউর রহমান রাঙ্গা, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষাবিভাগের প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী।
বাদ পড়েছেন দুই উপমন্ত্রীও। এরা হলেন, পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব এবং যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের আরিফ খান জয়। আরিফ খান জয় নির্বাচনে মনোনয়ন পাননি।
প্রসঙ্গত, নতুন মন্ত্রীসভায় জাতীয় পার্টির কেউ নেই। আগের মন্ত্রীসভায় দলটির তিনজন মন্ত্রী প্রতিমন্ত্রি ছিলেন। বিরোধী দলের ভূমিকায় থাকার কারণে এবার তারা মন্ত্রিসভায় যোগ দেবে না বলে শপথের পরদিনই দলটির চেয়ারম্যান এরশাদ জানিয়েছেন। মহাজোটের শরীক জাসদ, ওয়ার্কার্স পার্টি, জাতীয় পার্টি (জেপির) কেউই মন্ত্রিসভায় স্থান পাননি। আগের মন্ত্রিসভায় জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু, ওয়ার্কার্স পার্টির রাশেদ খান মেনন ও জেপির আনোয়ার হোসেন মঞ্জু ছিলেন।#

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (29)
MOHAMMAD AMIMUL IHSAN ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৪৭ এএম says : 0
তাদের উচিৎ ছিল নিজে থেকে অবসর নেয়া আর নতুনদের সুযোগ করে দেয়া। কিন্তু লোভ সামলাতে পারলনা ফলে বাদ দিতে হল তাদেরকে। এখন সইবেন কী ভাবে?
Total Reply(0)
Fyraz Tuhin ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৪৮ এএম says : 0
মন্ত্রী পরিষদ খুবই ভালো হয়েছে , বিতর্কিত ও বাটপার গুলো বাদ পড়েছে , হাসান মাহমুদ আর দিপুমনি কিভাবে টিকে গেলো ? এই দুইটারে বাদ দিলে ভালো হতো l
Total Reply(0)
SUBRATA BHOUMIK ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৪৮ এএম says : 0
শিক্ষা মন্ত্রনালয় কলংক মুক্ত হবে আশাবাদী ........
Total Reply(0)
Amir Abbas ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৪৮ এএম says : 0
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন আরো জোরদার করা হোক, কেউ যেন কোন মন্ত্রী, আমলা থেকে শুরু করে কারো বিরুদ্ধে কিছু লিখতে না পারে, যদি প্রশংসা করতে পারে করুক, বিরুদ্ধে লেখা যাবে না, প্রয়োজনে ফেসবুক বন্ধ করা হোক, সবাইকে স্টার জলসা, জি বাংলা নেটে বা টিভিতে দেখার সুযোগ সহজ করা হোক। নতুন সরকারের কাছে এটা আমাদের সবার চাওয়া।
Total Reply(0)
Milton ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৪৯ এএম says : 0
নতুন সকল মন্ত্রি মহোদয়দের জানাই অভিনন্দন। সবাই দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য কাজ করবেন সেই আশাবাদ ব্যক্ত করছি। জয় হোক সোনার বাংলার।
Total Reply(0)
মুজিবুর রহমান খান ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৪৯ এএম says : 0
নির্বাচনের দিন আওয়ামীলীগের নেতাদের সামনে ব্যালট পেপারে সিল না মেরে আরালে সীল দেয়ার অপরাধে ৭ দিন যাবত তাকে তার সিএনজি অটোরিকশা চালাতে দেয়া হচ্ছেনা , এই বিচার কার কাছে দেব !!!! এ কেমন গণতন্ত্র !!!!!!
Total Reply(0)
Jiban ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৪৯ এএম says : 0
আহহারে! ওনারা কত আশা নিয়ে স্বপ্নে ডুবেছিলেন আবার মন্ত্রী হবেন। কিন্তু সে আশায় গুড়ে বালি :)
Total Reply(0)
Sahid Hossen ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫০ এএম says : 0
লুটেরাদের চেহারা দেখেই জনগন হতাশ,কার্যকলাপ দেখার দরকার নেই। কে কোন খাত থেকে টাকা লুট করে ৫ বছরে কয়েকগুণ সম্পদের মালিক হবে তা জেনে আমাদের কি
Total Reply(0)
Engr.Anisur Rahman Shishir ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫০ এএম says : 0
আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, আসাদুজ্জামান নূর, তারানা হালিম এর জন্য সত্যিই অবাক লাগছে।উনাদের তো অত সমালোচনা ছিলনা।
Total Reply(0)
Rafiq Sumon ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫০ এএম says : 0
বিএনপি জামাত অধ্যুষিত এলাকা থেকে মন্ত্রীর সংখ্যা বেশি দেখা যাচ্ছে কিন্তু দক্ষিণবঙ্গ থেকে মন্ত্রী সংখ্যা নেই বললেই চলে ।
Total Reply(0)
সত্যের সন্ধানে ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫২ এএম says : 0
এবারের নির্বাচন আওয়ামী লীগের ১৯৭৩ সালের সালের নির্বাচনের সাথে ২০১৮ সালের নির্বাচনের কার্বন কপি ।দু’টি নির্বাচনের ভোট ডাকাতির ধরণ ও আসন বন্টন সবই একই সূত্রে গাথা । ১৯৭৩ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ আসন পেয়েছিল ২৯৩ সীট এবারও তারা তা পেয়েছে ,এমনকি ভোটের শতাংশ প্রায় একই । সেই সময় বিরোধী দলকে ৭ টি সিট আসন ভিক্ষা দিয়েছিল এবারও একই ভাবে তাই দিয়েছে । তবে ভোট ডাকাতির একটু পরিবর্তন আছে , ৭৩’ সালে হেলকিপ্টারের ভোটের বাক্স ঢাকা এনে তা সীল মেরে ভরে আবার কেন্দ্র পৌঁছায়ে দিয়েছিল । সেই সময় তা করেছিল রক্ষী বাহিনী , স্বেচ্ছাসেবক বাহিনী , আওয়ামী সন্ত্রাসীরা সহ নির্বাচনী কর্মকর্তারা সবাই মিলে । এবার কিন্তু তা করে নাই, থমথম অবস্হা তৈরী করে জনগনকে বাড়ির ভিতরে রেখে ইন্টারনেট ,মোবাইল বন্ধ করে । নির্বাচনের আগের রাতে কেন্দ্রের ভিতর বসে দরজা বন্ধ করে সারা রাত সীল মেরে বাক্স ভরে জিতেছে । এবার তা করছে পুলিশ, আনসার , আওয়ামী সন্ত্রাসী সহ নির্বাচনী কর্মকর্তা সবাই মিলে। ৭৩’ সালে নির্বাচনে জিতার পর সংসদে চার মিনিটে বাকশাল গঠন করেছিল, এবার কি হয় তা দেখার অপেক্ষায় জাতি ?
Total Reply(0)
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫২ এএম says : 0
খুশী হইলাম কিন্তু হাসান মাহমুদ কে তথ্য মন্ত্রণালয় দেয়া বোকামো। উনার ইমেজ একেবারে পচা।
Total Reply(0)
রুবেল ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫২ এএম says : 0
হাসান মাহমুদ তথ্য বিপ্লব ঘটাবেন দেশে.... উনি রামপালে কয়লা বাহিত জাহাজ ডোবার পেছনে খালেদা জিয়া জড়িত বলে দাবী করেছিলেন...নৈশ ভোটের সরকারের ইমেজ টিকিয়ে রাখতে ওনার মতোই লোক দরকার।
Total Reply(0)
Khairul Khokon ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫৩ এএম says : 0
ইনু আর কামরুল এর মত বাচালকে মন্ত্রীসভায় স্থান না দিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুরদর্শীতার পরিচয় দিয়েছেন
Total Reply(0)
Zulfiqar Ahmed ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫৩ এএম says : 0
মোজাম্মেল হক, হাসান মাহমুদকে মন্ত্রি না করা হলেই ভাল হতো!
Total Reply(0)
আমার ভোট আমিই দিবো ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫৪ এএম says : 0
ভোট ডাকাতেরা আমাদের অধিকার কেড়ে নিয়েছে...দেশকে একদলীয় সন্ত্রাসের জনপথে পরিণত করেছে...বাঁচতে চাইলে প্রতিবাদ করুন
Total Reply(0)
Nasir Uddin ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫৪ এএম says : 0
Where Barisal division minister... no like this cabinet
Total Reply(0)
Pulok Sharma ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫৪ এএম says : 0
উন্নত বিশ্বে মানুষের সেবার জন্য কম জনবল নিয়োগ করে সেবা করার সুযোগ সৃস্টি করে আর টিক উল্টো আমাদের সোনার দেশ লুটেপুটে খেতে বড় মন্ত্রীসভা দেওয়া হয়।।
Total Reply(0)
Kawsar Shah ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫৫ এএম says : 0
যারা ভোট ডাকাতি করে ক্ষমতা ছিনিয়ে এনেছে,তারা সারা জীবন জনগণের সম্পদই লুটপাট করে ডাকাতি করবে এটাই মহাসত্য! তাদের নতুন করে চিনার দরকার নেই তারা সবাই... রেখে যাওয়া চুরের খনির চুর! হায়রে!এইজাতির দূর্দশা কবে শেষ হবে?!!
Total Reply(0)
Md Labu Miah ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫৫ এএম says : 0
হাসান মাহমুদ বাদে সবই ভাল।এই লোকটির ও কথাবার্তায় শ্রুতিমাদুরতা নাই। আর শুধু বি এন পির কথাবার্তা নিয়েই ব্যস্ত।কাজের কথা কবে হবে?
Total Reply(0)
রহিম বাদশা ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫৫ এএম says : 0
নির্বাচন সমর্থযোগ্য না হলেও মন্ত্রীপরিষদ গঠনে এরকম সাহসী পদক্ষেপের জন্য "ধন্যবাদ" শেখ হাসিনার প্রাপ্য। ধন্যবাদ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী!
Total Reply(0)
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫৫ এএম says : 0
মানুষের ইজ্জত-সম্মান নিয়া কটাক্ষকারী ও মানুষের সমালোচনায় যিনি বিখ্যাত সেই ইনু সাহেব বাদ পড়বেন তো?
Total Reply(0)
Lutfor Rahman ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫৬ এএম says : 0
Good decision to exclude some unpopular ministers. At least these will help to reduce some public angers on ruling party!
Total Reply(0)
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫৬ এএম says : 0
বিগত ১০ বছর তোফায়েলের মুখে কখন হাসি দেখা যায়নি!! তাকে বাদ দেয়া সঠিক হয়েছে!!
Total Reply(0)
Jolkonna ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৪:০৬ এএম says : 0
What will happen to Innu Stupid... ????
Total Reply(0)
ash ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৫:৩১ এএম says : 0
VERY GOOD !! SHOB CHORRR OPODARTHO GULOKE BAD DEWA HOESE !!
Total Reply(0)
আলী ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৭ পিএম says : 0
হাসানুল হক ইনু , কামরুল ইসলাম ,নাসিম ত্রদের বক বক ত্রবার বন্ধ হবে
Total Reply(0)
রহিম ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:২৩ পিএম says : 0
সাংবাধীকদের উচিত ত্রবার ত্রদের দুরনীতি বাহির করা , আর দুরনীতি কমিশনের উচিত মামলা করা , দুরনীতির কারনে যদি খালেদা জিযা জেল খাটতে পারে ত্ররা কেন পারবে না
Total Reply(0)
ash ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:১০ পিএম says : 0
AI CHOR , BATPAR GULO JOTO CHURI KORECHE, AMI SURE ODER 40 GUSTHIR R KONO DIN KAJ KORE KHETE HOBE NA !! ODER 40 GUSTHI SHARA JIBON THANGER WPORE THANG REKHE KHETE PARBE !! ODER BANK BLANCE, SHOB SHOMPOTTI CHECK KORA WCHTH !! NASIMER SELE USA TE ATO BARIR MALIK KI VABE HOLO? OBOSHOE JACHAI KORA WCHITH !!
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন