ঢাকা, বুধবার, ১২ আগস্ট ২০২০, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭, ২১ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

নিরস্ত্রীকরণের পূর্ণাঙ্গ রূপরেখা চায় জাতিসংঘ

ট্রাম্প-কিমের দ্বিতীয় সম্মেলনকে স্বাগত সিউলের

ইনকিলাব ডেস্ক : | প্রকাশের সময় : ২০ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরীয় নেতা কিম জন উং-এর মধ্যকার দ্বিতীয় বৈঠকের দিনক্ষণ নির্ধারিত হওয়ার ঘটনাকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছে জাতিসংঘ। হোয়াইট হাউস জানিয়েছে, ফেব্রুয়ারির শেষ নাগাদ ওই বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। জাতিসংঘ মহাসচিব এক বিবৃতিতে বলেছেন ‘উপযুক্ত সময়ে’ বৈঠকের ঘোষণা এসেছে। ওই বিবৃতিতে মহাসচিব অ্যান্টোনিও গুতেরেসের দুই নেতাকে কোরীয় উপদ্বীপের পরমাণু নিরস্ত্রীকরণে একটি সুস্পষ্ট রূপরেখা প্রণয়নের আহ্বান জানিয়েছেন। ট্রাম্প ও কিমের দ্বিতীয় বৈঠকের দিন-ক্ষণ নিয়ে আলোচনা করতে ১৮ জানুয়ারি ওয়াশিংটনে পৌঁছান পিয়ংইয়ং এর শীর্ষ দূত কিম ইয়ং চোল ছেন। উত্তর কোরিয়ার পক্ষের নেতৃত্বস্থানীয় ওই আলোচক ট্রাম্পের সঙ্গে দেখা করার পর হোয়াইট হাউসের পক্ষ থেকে বৈঠকের দিনক্ষণ ঘোষণা করা হয়। কোথায় দুই নেতার মধ্যে বৈঠক হবে, আনুষ্ঠানিকভাবে তা এখনও জানানো হয়নি। তবে সম্ভাব্য বৈঠকস্থল হিসেবে ভিয়েতনামের নাম শোনা যাচ্ছে। বৈঠকের দিনক্ষণ ঘোষণার প্রতিক্রিয়ায় মহাসচিব গুতেরেস বলেছেন, ‘আমরা মনে করি, পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ প্রশ্নে যুক্তরাষ্ট্র ও উত্তর কোরিয়ার সংলাপ আবারও শুরু হওয়া ও কোরীয় উপদ্বীপের পূর্ণাঙ্গ নিরস্ত্রীকরণের সুস্পষ্ট একটি রূপরেখা প্রণয়নের এটাই উপযুক্ত সময়’। গত বছরের ১২ জুন সিঙ্গাপুরে প্রথমবারের মতো উত্তর কোরীয় নেতা কিম জং উনের সঙ্গে মিলিত হন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ঐতিহাসিক বৈঠক শেষে এক সমঝোতা চুক্তিতে দীর্ঘদিনের বৈরী দু’দেশ যৌথভাবে কোরিয়া উপদ্বীপকে পারমাণবিক অস্ত্রমুক্ত করার অঙ্গীকার করে। তবে উত্তর কোরিয়া তাদের পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণের বিষয়ে কোনও সুনির্দিষ্ট রূপরেখা উল্লেখ না করায় দু’দেশের মধ্যেএখনো দর কষাকষি চলছে। এদিকে, দক্ষিণ কোরিয়া মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের মধ্যে পরিকল্পিত দ্বিতীয় সম্মেলনকে স্বাগত জানিয়ে বলেছে, তারা আশা করছে এই বৈঠক কোরীয় উপদ্বীপের শান্তির জন্য একটি ‘বাঁক ফেরা পদক্ষেপ’ হবে। ট্রাম্প ফেব্রুয়ারি মাসের শেষের দিকে উত্তর কোরিয়ার নেতার সঙ্গে ফের বৈঠক করবেন হোয়াইট হাউস এমন কথা জানানোর কয়েক ঘণ্টা পর সিউলের প্রেসিডেন্টের দপ্তর থেকে এ ঘোষণা দেয়া হলো। তবে তাদের মধ্যে বৈঠকটি কোথায় অনুষ্ঠিত হবে তা এখনো জানানো হয়নি। দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইনের মুখপাত্র কিম উয়ি-কিয়োম বলেন, ‘আমরা আশা করছি পরিকল্পিত উত্তর-মার্কিন এ সম্মেলন কোরীয় উপদ্বীপে শান্তিপূর্ণ একটি স্থায়ী সরকার প্রতিষ্ঠায় ঘুরে দাঁড়ানোর পদক্ষেপ হবে। তিনি বলেন, ‘সম্পূর্ণ নিরস্ত্রীকরণের’ লক্ষ্য অর্জনে দক্ষিণ কোরিয়া তাদের গুরুত্বপূর্ণ মিত্র দেশ যুক্তরাষ্ট্রের সাথে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ অব্যাহত রাখবে।’ তিনি আরো জানান, পরিকল্পিত এ সম্মেলন সফল করতে সিউল পিয়ংইয়ংয়ের সাথে সংলাপ জোরদার করবে। গত জুনে সিঙ্গাপুরে কিম ও ট্রাম্প প্রথম বৈঠক করেন। সেখানে তারা একটি অস্পষ্ট চুক্তি স্বাক্ষর করেন। ওই চুক্তিতে কিম কোরীয় উপদ্বীপের নিরস্ত্রীকরণ প্রক্রিয়াকে এগিয়ে নিতে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দেন। এএফপি, রয়টার্স।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন