ঢাকা, বুধবার, ০৫ আগস্ট ২০২০, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

কবিরহাটে গূহবধূকে গণধর্ষণ, জড়িতদের শাস্তি দাবী আ’লীগের

নোয়াখালী ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২০ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:১৭ পিএম

কবিরহাট উপজেলার ধানসিঁড়ি ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড নবগ্রামে ঘরের সিঁধ কেটে এক গৃহবধূ (২৭) কে গণধর্ষণের ঘটনায় জড়িত অপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবী করেছে উপজেলা আওয়ামী লীগ।

শনিবার রাত সাড়ে ১০টায় কবিরহাট উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জহিরুল হক রায়হান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। গ্রেপ্তারকৃত জাকির হোসেন জহির ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের কোন প্রকার সদস্য নয় বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়। নবগ্রামের বাসিন্দা আবুল হোসেনের ঘরে চুরির উদ্দেশ্যে প্রবেশ করে জহিরসহ কয়েকজন ভিকটিমের উপর পাশবিক নির্যাতন চালায়। তিনি এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে গ্রেপ্তারকৃত জহিরসহ অভিযুক্ত আসামীদের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবী করেন।

উল্লেখ্য, শুক্রবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে জাকির হোসেন জহিরসহ ৭জন স্থানীয় আবুল হোসেনের ঘরের সিঁধ কেটে ভিতরে প্রবেশ করে। এসময় তারা আবুল হোসেনের স্ত্রীর কাছে ৬০হাজার টাকা দিতে বলে। এনিয়ে ভিকটিমের সাথে তাদের কথা কাটাকাটি হয়। তারা ঘরের বৈদ্যুতিক লাইট বন্ধ করে ভিকটিমের মা (৬৫), ভিকটিমের এক ছেলে ও দুই মেয়েকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে তাদের মধ্যে তিনজন পালাক্রমে ভিকটিমকে গণধর্ষণ করে।
পরে রাত আনুমানিক ৩টার দিকে ধর্ষকরা ঘর থেকে বের হয়ে যায়। এসময় তারা ঘরে থাকা নগদ টাকা, ২ভরি স্বর্ণ, মোবাইল ও মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। ভিকটিমকে উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনায় শনিবার দুপুরে ভিকটিম বাদী হয়ে জাকির হোসেন জহিরসহ কয়েকজনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। এদের মধ্যে জাকির হোসেন জহিরকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

অপরদিকে গ্রেপ্তারকৃত জাকির হোসেন জহির স্থানীয় একজন মুদি ব্যবসায়ী হলেও ঘটনার পর বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে জহিরকে স্থানীয় যুবলীগ নেতা বলে সংবাদ প্রচার করা হয়েছে প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে অভিযোগ করা হয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন