ঢাকা, শুক্রবার, ০৭ আগস্ট ২০২০, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৬ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

ক্ষমতাসীন দলে ব্যাপক তৎপরতা

দক্ষিণাঞ্চলে উপজেলা নির্বাচন

বরিশাল ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৩ এএম


বিরোধী দলহীন উপজেলা নির্বাচন নিয়ে দক্ষিণাঞ্চলে ক্ষমতাসীন মহাজোটের মূল শরিক আওয়ামী লীগের মাঠ পর্যায়ে ব্যাপক তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে। চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়নের লক্ষ্যে জেলা পর্যায়ের নেতৃবৃন্দের কাছেই মনোনয়ন প্রত্যাশীদের তদবির চলছে। এরপরে জেলার সুপারিশ নিয়ে কেন্দ্রে তদবির শুরু হবে বলে জানান স্থানীয় নেতাকর্মীরা।

মনোনয়ন প্রত্যাশীদের ধারনা ক্ষমতাসীন মহাজোটের প্রার্থী হতে পারলেই কাঙ্খিত পদে নির্বাচিত হতে কোনো বাধা থাকছে না। দলের কেন্দ্রীয় নীতি নির্ধারকদের পক্ষ থেকে সব উপজেলার জন্য কেন্দ্রে তিন জনের নাম প্রস্তাব করার নির্দেশনা রয়েছে। তবে বরিশালের ১০টি উপজেলার মধ্যে যে ৯টিতে নির্বাচন হচ্ছে, তাতে কোন কোনটিতে একক প্রার্থীর নাম প্রেরনেরও সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। গত কয়েকদিন ধরে আগ্রহী প্রার্থীদের সাক্ষাতকার নিচ্ছেন জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুল হাসনাত আবদুল্লাহসহ নেতৃবৃন্দ। মেয়াদ উত্তীর্ণ না হওয়ায় মেহেদিগঞ্জ উপজেলা পরিষদের নির্বাচন হচ্ছে না।

জানা গেছে, হিজলার বর্তমান চেয়ারম্যান সুলতান মাহমুদ টিপু ও বানারীপাড়ার বর্তমান চেয়ারম্যান গোলাম ফারুককে একক প্রার্থী ঘোষণা করা হয়েছে। গত শনিবার প্রথম দিন বানারীপাড়া, হিজলা ও উজিরপুর উপজেলার প্রার্থীদের সাক্ষাতকার নেওয়া হয়। মনোনয়ন প্রত্যাশী সকল প্রার্থীরা সমঝোতা করায় বানারীপাড়ায় গোলাম ফারুক এবং হিজলায় সুলতান মাহমুদ টিপুকে আবারও দলীয় প্রার্থী করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

উজিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এসএম জামাল হোসেন এবং সাধারণ সম্পাদক আবদুল মজিদ সিকদার বাচ্চু ও বর্তমান চেয়রম্যান হাফিজুর রহমান ইকবালকে নিয়ে ৩ জনের প্যানেল গঠন করা হয়েছে। গতকাল বাকেরগঞ্জের প্রার্থীদের সাক্ষাতকার নেয়া হয়। আগামী শুক্রবার বরিশাল সদর উপজেলার আগ্রহী প্রার্থীদের সাক্ষাতকার নেওয়া হবে। বরিশাল সদরে বর্তমান চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান রিন্টু ছাড়াও ভাইস চেয়ারম্যানসহ বিভিন্ন প্রার্থীরা চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়ন লাভে তদবির করছেন।

এদিকে, একক প্রার্থী নিশ্চিত হতে ইউনিয়ন পর্যায়ের নেতাদের ওপর অনৈতিক প্রভাব বিস্তারের অভিযোগ উঠেছে বাবুগঞ্জ উপজেলার বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সরদার খালেদ হোসেন স্বপনের বিরুদ্ধে। একাধিক ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক তাদের কাছ থেকে স্বপন-এর লিখিত সমর্থন আদায়ের চেষ্টার অভিযোগ করেছেন। অপরদিকে মুলাদী উপজেলা কমিটির ৬২ জনের মধ্যে ৪৭ জন দলের সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান চেয়ারম্যান তরিকুল ইসলাম মিঠুর বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছেন। উপজেলা সভাপতি অধ্যাপক আবদুল বারীর সভাপতিত্বে এক সভায় মিঠুকে দলীয় প্রার্থী না করার জন্য সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।

এব্যাপারে বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট তালুকদার মো. ইউনুস সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, বরিশালের প্রতিটি উপজেলায় তিন জনের প্যানেল চ‚ড়ান্ত করার লক্ষ্যে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার নিচ্ছে জেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ। যে উপজেলাতে সব প্রার্থীরা একমত হয়ে একজনকে সমর্থন জানাবে সেখান থেকে একক প্রার্থীর নামই কেন্দ্রে পাঠানো হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন