ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৭ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৫ জামাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

অভ্যন্তরীণ

মধুখালী চেয়ারম্যান ও তার ২ ছেলের মালামাল ক্রোকের নির্দেশ

ফরিদপুর জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৬ এএম

একটি প্রতারণা মামলায় ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আ.লীগ নেতা আজিজার রহমান মোল্যার সম্পত্তি ক্রোকের হুকুম দিয়েছেন ফরিদপুরের অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেটের ১ নং আমলী আদালত। গত ১৪ জানুয়ারী এ আদেশ দেয়া হয়। তবে আদেশটি এখনো থানায় পৌছেনি বলে জানা গেছে। এছাড়া আদালত পলাতক আসামী হিসেবে আজিজার মোল্যার দুই ছেলে মামুন মোল্যা ও মাসুম মোল্যার বিরুদ্ধে আদালতের গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করেছেন। এর মধ্যে মামুন মোল্যা ইতিমধ্যে একটি মামলায় সাজাপ্রাপ্ত। তাদের কাউকেই পুলিশ গ্রেফতার করতে পারেনি।

বিগত উপজেলা নির্বাচনে বিএনপির টিকিটে উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর আ.লীগে যোগ দেন আজিজার রহমান মোল্যা। এবার তিনি আ.লীগ থেকে উপজেলা চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার জন্য এলাকায় পোস্টারিং করেছেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, আজিজার মোল্যা ও তার দুই ছেলে মামুন মোল্যা ও মাসুম মোল্যাকে আসামী করে জেলা যুগ্ন দায়রা জজ ১ নং আদালত এবং অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেটের ১ নং আমলী আদালতে পৃথক পৃথক মামলা দায়ের করেন ফরিদপুর শহরের হাবেলী গোপালপুর মহল্লার আব্দুস সাত্তার খান।

মামলার বাদি অভিযোগ করেন, ইট ক্রয়ের জন্য তিনি আজিজার রহমান মোল্যাকে ৬ লাখ টাকা এবং তার দুই ছেলে মামুন মোল্যা ও মাসুম মোল্যাকে ৬৪ লাখ প্রদান করেন। কিন্তু নির্ধারিত সময় পেরিয়ে গেলেও তাকে প্রতিশ্রুত ইট প্রদান করেননি। এরপর টাকা ফেরত চাইলে নানা অজুহাতে টালবাহানা করার কারণে তিনি আদালতের শরণাপন্ন হন। এর মধ্যে গত বছরের ৮ নভেম্বর দায়রা করা মামলার রায়ে আজিজার মোল্যার ছেলে মামুন মোল্যাকে ফরিদপুরের জেলা যুগ্ন দায়রা জজ-১ নং আমলী আদালতের বিচারক এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড এবং ২১ লাখ টাকা জরিমানা করেন। ওই মামলায় রায়ের আগের দিন পর্যন্ত জামিনে থাকা আসামী মামুন মোল্যা অবশ্য রায় ঘোষনার দিন থেকে পলাতক রয়েছেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন