ঢাকা, সোমবার, ২৬ আগস্ট ২০১৯, ১১ ভাদ্র ১৪২৬, ২৪ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

খেলাধুলা

ছাড় দেয়নি ‘আধা’ বাংলাদেশও

ব্যাটিংয়ে উজ্জ্বল মাহমুদউল্লাহ-মুশফিক

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

বিপিএলের ফাইনালে শেষে গতপরশু রাতে নিউজিল্যান্ডের পথে রওয়ানা দিয়েছেন ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা, দেশসেরা ওপেনার তামিম ইকবাল, পেসার রুবেল হোসেন আর অলরাউন্ডার সাইফউদ্দিন। তবে তার আগেই দুই কিস্তিতে তাসমান দেশটিতে পৌঁয়ে যাওয়াদের নিয়েই প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে নামতে হয়েছে বাংলাদেশকে। যদিও হেরেছে তারপরও সহজে ছাড়েনি মেহেদী হাসান মিরাজের ‘আধা’ বাংলাদেশ। একমাত্র ওয়ানডে প্রস্তুতি ম্যাচে নিউজিল্যান্ড একাদশের কাছে ২ উইকেটে হেরেছে সফরকারীরা। ২৪৮ রানের লক্ষ্য ১১ বল বাকি থাকতে পেরিয়ে যায় স্বাগতিকরা।
গতকাল ভোরে লিঙ্কনের বার্থ সার্টক্লিফ ওভালে টস হেরে শুরুতে ব্যাট করতে নেমেই বিপর্যয়ে পড়ে বাংলাদেশ। বাঁহাতি পেসার হ্যাজেলডাইনের বাউন্সারে ভড়কে গিয়ে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ওপেন করতে নামা মুমিনুল হক। খানিকপর লিটন দাস ম্যাকপিককে ড্রাইভ করতে গিয়ে স্লিপে ক্যাচ দেন। হ্যাজেলডাইনের লাফানো বলে পয়েন্টে ক্যাচ দেন সৌম্য সরকার। পাঁচে নামা মোহাম্মদ মিঠুন অফ স্টাম্পের অনেক বাইরের লাফানো বল তাড়া করে ক্যাচ দেন স্লিপে। ৩১ রানেই চার উইকেট হারিয়ে বসে বাংলাদেশ। চরম বিপর্যয় থেকে দলকে টেনে তুলে লম্বা জুটি গড়েন মুশফিক ও মাহমুদউল্লাহ। পঞ্চম উইকেটে দুজনের ব্যাট থেকে আসে ১০৮ রান। ৮ চারে ৬১ বলে ৬২ রান করে ফেরেন মুশফিক।
৮৮ বলে ১০ চারে ৭০ রান করে ম্যাকপিকের শিকার হন মাহমুদউল্লাহ। সাতে নামা সাব্বির ছিলেন সাবলীল। তার ব্যাটে জুতসই সংগ্রহের দিকেই এগুচ্ছিল বাংলাদেশ। ৬ চারে সাব্বিরের ৪১ বলে ৪০ রানের ইনিংস শেষ হয় বাঁহাতি স্পিনারকে ইনসাইড আউটে পেটাতে গিয়ে।
শেষ দিকে দ্রুত উইকেট খুইয়ে পুরো পঞ্চাশ ওভার টিকতে পারেনি বাংলাদেশ। ওই রান তুলতেও এক পর্যায়ে দারুণ দাপট দেখানো কিউইরা শেষ দিকে উইকেট খুইয়ে জিতেছে কিছুটা কষ্ট করে। টেস্ট খেলার অভিজ্ঞতা থেকে জিত রাভাল এই ম্যাচে অধিনায়কত্ব করেন নিউজিল্যান্ডের দলটির। রান তাড়ায় তার ব্যাট থেকে আসে ৫২ রান। সবচেয়ে বেশি ৯২ রান করেন আন্ড্রু ফ্লেচার।
বাংলাদেশের হয়ে হাত ঘুরিয়েছে মোট আটজন। মুস্তাফিজ, মিরাজ ও মাহমুদউল্লাহ নিয়েছেন ২টি করে উইকেট। মুস্তাফিজ ৯ ওভারে দিয়েছেন ৩৩ রান, মিরাজ ১০ ওভারে ৪৬, মাহমুদউল্লাহ ৭.১ ওভারে ৩৭। নাঈম ৭ ওভারে ৪৩ রানে ও সৌম্য ৬ ওভারে ২৮ রানে পেয়েছেন একটি করে উইকেট। তাসকিনের চোটে ওয়ানডে দলে ডাক পাওয়া শফিউল ৫ ওভারে ৪০ রান দিয়ে উইকেটশূন্য ছিলেন।
আগামী বুধবার নেপিয়ারে হবে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডে। নিউজিল্যান্ডের মাটিতে নিউজিল্যান্ডকে কখনো হারাতে পারেনি বাংলাদেশ। তিন ফরম্যাট মিলিয়ে ২১ ম্যাচের সবগুলোই বাংলাদেশ হেরেছে। এবার জয়-খরা কাটে কি না, সেটাই দেখার।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
বাংলাদেশ : ৪৬.১ ওভারে ২৪৭ (লিটন ৩, মুমিনুল ৬, সৌম্য ১, মুশফিক ৬২, মিঠুন ১, মাহমুদউল্লাহ ৭০, সাব্বির ৪০, মিরাজ ৭, নাঈম ১৭*, শফিউল ৭, মোস্তাফিজ ১২ ; হ্যাজেলডাইন ২/৪৬, ম্যাকপিক ৪/৩৮, ব্রাউন ১/৫৭, সলিয়া ১/৩২, ওয়েরকুম ০/৩৯, রবীন্দ্র ২/৩৪)।
নিউজিল্যান্ড একাদশ : ৪৮.১ ওভারে ২৫১/৮ (রাভাল ৫২, ফ্লেচার ৯২, সলিয়া ১১, রবীন্দ্র ১৭, অ্যালেন ৩০, ক্লার্ক ১৯, ফিলিপস ৪, চু ৭*, ওয়েরকুম ০, হ্যাজেলডাইন ২*; শফিউল ০/৪০, মুস্তাফিজ ২/৩৩, মিরাজ ২/৪৬, নাঈম ১/৪৩, মাহমুদউল্লাহ ২/৩৭, মুমিনুল ০/৯, সাব্বির ০/১১ , সৌম্য ১/২৮)।
ফল : নিউজিল্যান্ড একাদশ ২ উইকেটে জয়ী।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন