শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ০৬ কার্তিক ১৪২৮, ১৪ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

অভিমানে অবসরে রবিউল

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:৩১ এএম

একটা সময় বাংলাদেশ দলে খেলেছেন দাপটের সঙ্গে। পেস বোলিংয়ে দলের অন্যতম ভরসাও ছিলেন। চোটে পড়ে জাতীয় দল থেকে বাদ পড়েছেন চার বছরের বেশি সময় হয়ে গেল। এরপর অনেক চেষ্টা করেও আর ফিরতে পারেননি রবিউল ইসলাম শিবলু। সর্বশেষ গত অক্টোবরে জাতীয় ক্রিকেট লিগে খুলনা বিভাগের হয়ে প্রথম শ্রেণীর একটি ম্যাচ খেলেছিলেন ফিটনেস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েই।
তবে গত সোমবার ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের প্লেয়ার্স ড্রাফটে দল পাননি ৩২ বছর বয়সি এই ডানহাতি পেসার। এমনকি আগামী মাসের শুরুতে হতে যাওয়া জাতীয় ক্রিকেট চ্যাম্পিয়নশিপে (আন্তঃজেলা ক্রিকেট) নিজ জেলা সাতক্ষীরার ৩৪ জনের প্রাথমিক স্কোয়াডেও তার জায়গা হয়নি! সেই অভিমানেই সব ধরনের ক্রিকেট থেকে নিজেকে সরিয়ে রাখার ঘোষণা দিয়েছেন রবিউল, ‘এখন মনে হচ্ছে ক্রিকেটকে বোধ হয় আমার দেওয়ার আর কিছু নেই! তাই টপ লেভেলের সব ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছি। তবে সাতক্ষীরায় স্থানীয় ক্রিকেট লিগে আরো কিছুদিন খেলার ইচ্ছা আছে।’
বাদ পড়া কিংবা হোঁচট খাওয়ার পরও ঘুরে দাঁড়াতে চেয়েছিলেন। কিন্তু হাল ছেড়ে দিলেন কেন? অভিমানি কণ্ঠে সেটও জানালেন এই পেসার, ‘এখন আর ভালো লাগছে না। অভিমান বা ক্ষোভ তো আছেই। তবে এখন আর এসব বলে কী হবে। হয়তো আমার আর ক্রিকেটকে কিছু দেওয়ার নেই, সেজন্যই ডাক পাইনি। আমি গত মৌসুমেও ঢাকা প্রিমিয়ারে দল পাইনি। এ বছরও পাইনি, নিজেকে ফিরে পাওয়ার এত চেষ্টার পরেও দল না পাওয়া কষ্টের। চলতি মৌসুমে এনসিএলে খুলনার হয়ে ম্যাচ খেলেছি আমি। নিজেকে ফিট প্রমাণ করেই দলে জায়গা পেয়েছিলাম। চারটা দিন মাঠে থাকা কিন্তু কম না। আমি ২৩ ওভার বোলিংও করেছিলাম। তার পরেও দল পেলাম না, এটা তো কষ্টেরই। জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপে (আন্তঃজেলা ক্রিকেট) সাতক্ষীরা জেলার ৩৪ সদস্যের প্রাথমিক স্কোয়াড দেওয়া হয়েছে গতকাল (পরশু)। ওই টিমেও আমার জায়গা হয়নি। এতটা কষ্টের পরেও যখন আমার মূল্যায়ন হলো না, তখন বুঝলাম আামার বোধ হয় ক্রিকেটকে আর কিছুই দেওয়ার নেই। তবে আমার কারও ওপর রাগ বা ক্ষোভ নেই। হয়তো দোষটা আমারই।’
খেলা থেকে অবসর নিলেও ক্রিকেট ছাড়ছেন না। নিজেকে কোচিং পেশায় জড়ানোর ইচ্ছা তার। নিজ জেলা সাতক্ষীরার পেসারদের নিয়ে কাজ করতে চান ভবিষ্যৎ জীবনে, ‘ক্রিকেট ছেড়ে থাকাটা আমার জন্য আসলেই কষ্টের। ক্রিকেট ছেড়ে থাকা হবে না। খেলা ছাড়ার পর আমি কোচিং পেশায় মনোনিবেশ করতে চাই। কোচিংয়ে ‘এ’ লেভেল করে সাতক্ষীরাতে একটি ক্রিকেট একাডেমি করার ইচ্ছা আছে আমার।’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন