ঢাকা শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৮ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ভারতের মাটিতে পা রাখলেন মুক্ত অভিনন্দন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১ মার্চ, ২০১৯, ৭:৩৯ পিএম | আপডেট : ১০:৩৭ পিএম, ১ মার্চ, ২০১৯

ভারতীয় সময় বিকেল ৫.৪৫। দেশের মাটিতে পা রাখলেন উইং কম্যান্ডার অভিনন্দন বর্তমান। শুক্রবার বিকেল সাড়ে চারটে নাগাদ পাক সেনাদের একটি কনভয়ে ওয়াগা সীমান্তে নিয়ে আসা হয় অভিনন্দনকে। সেখানে তার এক প্রস্থ মেডিক্যাল চেকআপ হয়। পাক রেঞ্জার্স-এর ‘বিটিং দ্য রিট্রিট’-এর পরই ভারতের হাতে তুলে দেওয়া হল অভিনন্দনকে। 

এ দিন সকালে তাকে প্রথমে ইসলামাবাদ থেকে লাহৌরে সড়ক পথে নিয়ে আসা হয়। সেখান থেকে বিকেল সাড়ে চারটে নাগাদ নিয়ে আসা হয় ওয়াগা-আতারি সীমান্তে। অভিনন্দনকে স্বাগত জানাতে বিকেলেই হাজির হন সেনা ও এয়ারফোর্সের শীর্ষ আধিকারিকরা। অভিনন্দনকে স্বাগত জানাতে এয়ার ভাইস মার্শাল আর জি কে কপূর হাজির হয়েছেন।এ দিন সকালেই সীমান্তে পৌঁছে যান অভিনন্দনের বাবা এয়ার মার্শাল এস বর্তমান এবং মা শোভা বর্তমান।

অভিনন্দনকে অভিনন্দন জানাতে সকাল থেকে ওয়াগা-আতারি সীমান্তে হাজির হয়েছেন কয়েকশো মানুষ। ‘ভারত মাতা কি জয়’, ‘বন্দে মাতরম’ ধ্বনিতে মুখরিত হয়ে উঠেছে সীমান্ত এলাকা। সকলেই অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছিলেন সীমান্তের এ পারে কখন আসবেন অভিনন্দন।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী শুক্রবার কন্যাকুমারীতে গিয়ে উইং কম্যান্ডার অভিনন্দনের প্রশংসা করে বলেন, ‘প্রত্যেক ভারতীয়ের গর্ব করা উচিত যে বাহাদুর উইং কম্যান্ডার অভিনন্দন তামিলনাড়ুর ছেলে।’

অভিনন্দন বর্তমানের মুক্তির বিষয়টির কথা বিবেচনা করেই আতারি সীমান্তে ‘বিটিং দ্য রিট্রিট’ বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএসএফ। অমৃতসরের ডেপুটি কমিশনার শিব দুলার সিংহ ঢিলোঁ সংবাদ সংস্থা এএআইকে এ কথা জানান। সূত্রের খবর, ‘বিটিং দ্য রিট্রিট’-এর সময়ই অভিনন্দনকে ভারতের হাতে তুলে পাকিস্তান চাইছিল ভারত।

সূত্রের খবর, অভিনন্দনকে বিমানে ভারতে ফেরত পাঠানো হোক— এমনটাই নাকি ইসলামাবাদের কাছে অনুরোধ জানিয়েছিল দিল্লি। কিন্তু ইসলামাবাদ সেই অনুরোধ নস্যাৎ করে দিয়ে দিল্লিকে জানিয়েছে ওয়াগা-আতারি সীমান্ত দিয়েই নিয়ে আসা হবে অভিনন্দনকে। তার পর তুলে দেওয়া হবে ভারতের হাতে।

ঘোষণাটা বৃহস্পতিবারেই হয়ে গিয়েছিল অভিনন্দন বর্তমানকে মুক্তি দেবে পাকিস্তান। পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান তার বক্তব্যে ‘পিস জেসচার’ শব্দ দুটো ব্যবহার করার পর পরই বলেন, শুক্রবার মুক্তি দেওয়া হবে অভিনন্দনকে। কোথায়, কখন তাকে ভারতের হাতে তুলে দেওয়া হবে তা নিয়ে একটা জল্পনা ছিল। অবশেষে সেই জল্পনার অবসান হয় এ দিন সকালেই। সেনা সূত্রে জানা যায়, অভিনন্দনকে ওয়াগা-আতারি সীমান্তে ভারতের হাতে তুলে দেওয়া হবে। সূত্র: টিওআই।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন