ঢাকা, রোববার ২১ জুলাই ২০১৯, ০৬ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৭ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

আন্তর্জাতিক সংবাদ

পাকিস্তান-ভারত সঙ্ঘাতে বড় ভূমিকা ইসরাইলের

রবার্ট ফিস্ক | প্রকাশের সময় : ২ মার্চ, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

প্রথম যখন আমি খবরটা শুনি, মনে করেছিলাম এটা গাজা বা সিরিয়ার উপর ইসরাইলের এক বিমান হামলা। প্রথম কথাগুলো ছিল ‘সন্ত্রাসী শিবিরে’ বিমান হামলা। আমাদের বলা হল, একটি কমান্ড ও কন্ট্রোল সেন্টার ধ্বংস করা হয়েছে, নিহত হয়েছে বহু সন্ত্রাসী। সামরিক বাহিনী তার সৈন্যদের উপর সন্ত্রাসী হামলার বদলা নিয়েছে।
একটি ইসলামি জিহাদি ঘাঁটি নিশ্চিহ্ন করা হয়েছে। তখন আমি বালাকোট নামটি শুনলাম এবং বুঝতে পারলাম যে এটা গাজা বা সিরিয়ায় নয়, এমনকি লেবাননও নয়, এটা পাকিস্তানে। আশ্চর্য ব্যাপার! কেউ কী করে ইসরাইল ও ভারতকে মিশিয়ে ফেলতে পারে?
না, ধারণাটি ফিকে হয়ে যেতে দেবেন না। নয়াদিল্লীর প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে তেলআবিবের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের দূরত্ব আড়াই হাজার মাইল বটে, তবে উভয়ের কন্ঠে ঐকতানের কারণ আছে। ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে সংঘাত বৃদ্ধিতে ইসরাইল বড় ভ‚মিকা পালন করছে।
গত কয়েকমাস ধরে ভারত ইসরাইলের অস্ত্র বাণিজ্যের বৃহত্তম বাজারে পরিণত হয়েছে। অন্যদিকে ইসরাইল ভারতের বিজেপি সরকারের সাথে গাঁটছড়া বেঁধে এক অকথিত ও রাজনৈতিক ভাবে ভয়ংকর একটি ইসলাম বিরোধী, এক অনানুষ্ঠানিক, অ-স্বীকৃত জোট গড়ে তুলেছে।
ভারতের সংবাদ মাধ্যম জোরেশোরে জানিয়েছে যে, পাকিস্তানের অভ্যন্তরে জয়শে মোহাম্মদের (জেইএম) সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে হামলায় ভারতের বিমান বাহিনী ইসরাইলে নির্মিত রাফায়েল স্পাইস-২০০০ ‘স্মার্ট বোমা’ ব্যবহার করেছে।
অনুরূপ লক্ষ্যবস্তুতে ইসরাইলের বহু আঘাত হানার দম্ভ রয়েছে। তবে পাকিস্তানের অভ্যন্তরে ভারতের অভিযান সামরিক সাফল্যের চেয়ে কাল্পনিক ধারণাই বেশি। ইসরাইলের তৈরি ও ইসরাইলের সরবরাহকৃত জিপিএস-নির্দেশিত বোমায় ৩ থেকে ৪শ’ সন্ত্রাসী হত্যার গলাবাজি পাথর ও গাছপালা ধ্বংসের চেয়েও ন্যূনতম সাফল্যে পরিণত হতে পারে।
কিন্তু ১৪ ফেব্রুয়ারি কাশ্মিরে ভারতীয় সৈন্যদের উপর ভয়াবহ হামলায় ৪০ জন সৈন্য নিহত হওয়ার খবরে অসত্য কিছু নেই। এ হামলার দায়িত্ব স্বীকার করে জেইএম। তেমনি কোনো মিথ্যা নয় একটি ভারতীয় জঙ্গি বিমান ভ‚পাতিত করার ঘটনা।
২০১৭ সালে ভারত ছিল ইসরাইলি অস্ত্রের সবচেয়ে বড় ক্রেতা। ভারত আকাশ থেকে ভ‚মিতে নিক্ষেপযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্রসহ ৫৩০ মিলিয়ন পাউন্ডের ইসরাইলি বিমান প্রতিরক্ষা, রাডার ব্যবস্থা ও গোলাবারুদ কেনে। এসব অস্ত্রশস্ত্রের অধিকাংশেরই কার্যকারিতা ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে ও সিরিয়ার লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানার মাধ্যমে পরীক্ষা করা হয়েছে।
পশ্চিমা দেশগুলো যখন সংখ্যালঘু জাতিগোষ্ঠি ও মুসলিম রোহিঙ্গাদের নির্মূলের চেষ্টায় লিপ্ত মিয়ানমার সরকারের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করছে তখন ইসরাইল সামরিক স্বৈরাচারের কাছে অব্যাহতভাবে ট্যাংক, অস্ত্রশস্ত্র ও যুদ্ধ জাহাজ বিক্রির ব্যাখ্যা দেয়ার চেষ্টা করে যাচ্ছে। তবে ভারতের সাথে ইসরাইলের অস্ত্র বাণিজ্য বৈধ, অবিতর্কিত ও উভয়পক্ষের দ্বারা বহুল প্রচারিত।
ইসরাইলের বিশেষ কমান্ডো ইউনিট ও নেগেভ মরুভ‚মিতে প্রশিক্ষণ গ্রহণের জন্য প্রেরিত ভারতীয় সেনাদলের যৌথ মহড়া অনুষ্ঠিত হয়েছে যাতে গাজা ও অন্যান্য বেসামরিক লোক অধ্যুষিত যুদ্ধক্ষেত্রে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত বিশেষজ্ঞরা অংশ নেন।
৪৩ সদস্যের ভারতীয় সামরিক প্রতিনিধিদলের মধ্যে কমপক্ষে ১৬ জন ‘গরুড়’ কমান্ডো ইসরাইলের নেভাটিম ও পালমাচিম বিমানঘাঁটিতে কিছুদিনের জন্য প্রশিক্ষণ নেন। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ইসরাইল সফর করার পর ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনজামিন নেতানিয়াহু ভারত সফর করেন। সে সময় তিনি ২০০৮ সালে সংঘটিত মুম্বাই হামলার কথা স্মরণ করেন যাতে ১৭০ জন বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছিলেন। তিনি মোদিকে বলেন, ইসরাইল ও ভারত সন্ত্রাসী হামলার বেদনা খুব ভালো বোঝে। আমরা মুম্বাইয়ের সেই ভয়ঙ্কর ঘটনার কথা স্মরণ করি। আমরা দৃঢ় প্রত্যয়ের পরিচয় দিয়েছি। আমরা কখনো নতি স্বীকার করিনি। বিজেপির ভাষ্যও একই রকম।
ব্রাসেলসের মহিলা গবেষক শায়েরি মালহোত্রার একটি লেখা গত বছর ইসরাইলের হারেৎজ পত্রিকায় প্রকাশিত হয়। এতে তিনি উল্লেখ করেন যে, ইন্দোনেশিয়া ও পাকিস্তানের পরই তৃতীয় বৃহত্তম মুসলিম জনসংখ্যা রয়েছে ভারতে যাদের সংখ্যা ১৮ কোটিরও বেশি। তিনি বলেন, ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপি ও ইসরাইলের লিকুদ পার্টির মধ্যে চিন্তা-চেতনার যে স্বাভাবিক মিল রয়েছে তার উপরই গড়ে উঠেছে ভারত-ইসরাইল সম্পর্ক।
হিন্দু জাতীয়তাবাদীরা ঐতিহাসিকভাবে মুসলিমদের হাতে হিন্দুদের নিগ্রহের ইতিহাস রচনা করেছে। দেশভাগের কথা এবং পাকিস্তানের সাথে অব্যাহত গোলযোগপূর্ণ সম্পর্কের জাবর কাটা হিন্দুদের কাছে এ ইতিহাস এক আকর্ষণীয় বিষয়।
হারেৎজ পত্রিকায় শায়েরি বলেন, আসলে ভারতে ইসরাইলের বড় ভক্ত হচ্ছে ‘ইন্টারনেট হিন্দুরা’ যারা মূলত ফিলিস্তিনিদের দমন ও মুসলিমদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করার জন্য ইসরাইলকে ভালোবাসে।
কার্লটন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক বিবেক দেহেজিয়া ভারত, ইসরাইল ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে এটি ত্রিপক্ষীয় জোট গঠনের দাবি জানিয়েছেন। যেহেতু এ দেশ ৩টি ইসলামি সন্ত্রাসবাদের আত্মপ্রকাশে ক্ষতির শিকার সে কারণে তাদের এ জোট করা উচিত বলে তিনি যুক্ত দেন। শায়েরি তার এ দাবির নিন্দা করেন।
দেখা গেছে, মুসলিম খিলাফত প্রতিষ্ঠার জন্য আরব বিশে^ আবির্ভূত সংগঠন ইসলামিক স্টেটে ২০১৬ সালের শেষ পর্যন্ত মাত্র ২৩ জন ভারতীয় মুসলিম যোগ দেয়। অথচ ইউরোপের দেশ বেলজিয়াম থেকেই শুধু ৫শ’ যোদ্ধা ইসলামিক স্টেটের সাথে যোগ দেয়। বেলজিয়ামে মুসলিম জনসংখ্যা মাত্র আড়াই লাখ।
শায়েরি যুক্তি দিয়েছেন যে, ভারত-ইসরাইল সম্পর্ক মতাদর্শগত না হয়ে বাস্তব ভিত্তিক হওয়া উচিত।
কিন্তু ইসরাইল যখন ভারতকে বিপুল পরিমাণ সর্বাধুনিক অস্ত্র সরবরাহ করছে যা ইতিমধ্যে পাকিস্তানের অভ্যন্তরে ইসলামি জঙ্গিদের বিরুদ্ধে ব্যবহৃত হয়েছে, ১৯৯২ সাল থেকে যে দেশটির সাথে ভারতের কূটনৈতিক সম্পর্ক রয়েছে তখন হিন্দু জাতীয়তাবাদের মধ্যে ইহুদি জাতীয়তাবাদের মেলবন্ধন ঘটতে না দেখাটা কঠিন।
দু দেশের মধ্যে ‘সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ’ বিশেষ করে ‘ইসলামি সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ’ চুক্তি স্বাক্ষর স্বাভাবিক ব্যাপার যেহেতু ঔপনিবেশিক শাসন থেকে দেশবিভাগের মাধ্যমে সৃষ্ট দুটি দেশের নিরাপত্তাই তাদের মুসলিম প্রতিবেশিদের হুমকির সম্মুখীন।
উভয়ক্ষেত্রেই তাদের লড়াই হচ্ছে ভ‚খন্ড নিজ নিয়ন্ত্রণে রাখা নিয়ে বা অন্যের এলাকা দখলের। ইসরাইল, পাকিস্তান ও ভারতের প্রত্যেকেরই পরমাণু অস্ত্র রয়েছে। ফিলিস্তিন ও কাশ্মিরকে স্বাধীন হতে না দেয়ার যথেষ্ট কারণ রয়েছে ইসরাইল ও ভারতের। ১৮ কোটি মুসলিমের ক্ষেত্রেও ভারতের একই কথা।
*মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ক বিশেষজ্ঞ রবার্ট ফিস্কের এ নিবন্ধটি দি ইন্ডিপেন্ডেন্ট পত্রিকায় প্রকাশিত।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (22)
MD Ariful Islam ২ মার্চ, ২০১৯, ১:১২ এএম says : 0
ইসরাইলের সময় ও ঘনিয়ে আসছে। ইমরান খান শুধু পাকিস্তানের অর্থনৈতিক দূর্বলতা কাটিয়ে উঠুক।তারপরে কাশ্মীর স্বাধীন করে ইসরাইলের পিছনে লাগবে। আর বাংলাদেশীরা সবসময়ই পাকিস্তান কে সাপোর্ট করতে তৈরি আছে।
Total Reply(0)
Md Shahab Uddin ২ মার্চ, ২০১৯, ১:১২ এএম says : 0
এই পৃথিবীতে যত নষ্টের মূল এই ইহুদির বাচ্চারা।
Total Reply(0)
MD Owahid ২ মার্চ, ২০১৯, ১:০৮ এএম says : 0
১০০০% রাইট
Total Reply(0)
Rasel Sheikh ২ মার্চ, ২০১৯, ১:০৯ এএম says : 0
জি তাই আল্লাহ আমাদের কোরআনে অনেক যায়গায়,ইহুদীদের ব্যাপারে বলেছেন,৩ নাম্বার সুরাহ আয়াত ১১৮/১১৯/১২০ পরিষ্কার ভাবে বলেছেন, এখন সমস্যা আমরা কোরআন পড়িনা
Total Reply(0)
Sayed Reza Khan ২ মার্চ, ২০১৯, ১:০৯ এএম says : 0
এইবার উচিৎ দুই দেশের মিলে ইজরাইলে হামলা চালানো
Total Reply(0)
Abdullah Cjb ২ মার্চ, ২০১৯, ১:০৯ এএম says : 0
ইয়াহুদির কাজ ই হলো এটা
Total Reply(0)
Jahangir Alam ২ মার্চ, ২০১৯, ১:১৪ এএম says : 0
আবারো ইমরান খানের ফাস্ট বলে মিডল স্ট্যাম্প উড়ে গেলো নরেন্দ্র মোদির! ✌️✌️ কয়েকদিন আগেও পাকিস্তানে হামলা সিদ্ধান্ত চূড়ান্তকরণের জন্য দফায় দফায় মন্ত্রিসভার বৈঠক করেছিলো মোদি সরকার, এখন শেষমেশ সেই হামলার ফল হিসেবে পাকিস্তানের হাতে আটক ভারতীয় পাইলটকে মুক্ত করার উপায় বের করার জন্য এই দুইদিন দফায় দফায় মন্ত্রিসভার বৈঠক ডাকতে হয়েছে মোদির সরকারকে!
Total Reply(0)
Abdullah Al Mamun ২ মার্চ, ২০১৯, ১:১৪ এএম says : 0
ইসরায়েল বিশ্ব জন্যে বড় হুমকি, তাই আমার মতে ইসরায়েল কে প্রতিটি দেশে বয়কট করা দরকার
Total Reply(0)
Mohiuddin Sarker ২ মার্চ, ২০১৯, ১:১৫ এএম says : 0
দুইট দেশই মোসলমানের পরম শত্রু। একজন ফিলিস্তিনের মারে আর একজন কাশ্মীরিদের মারে।
Total Reply(0)
Subir Garai ২ মার্চ, ২০১৯, ১:১৫ এএম says : 2
বাংলাদেশ যুদ্ধের সময়ও ইসরাইল, ভারত বাংলাদেশের পাশে ছিল। নাহলে বাংলাদেশ এখনও পূর্ব পাকিস্তানই হয়ে থাকত।
Total Reply(0)
MD Rakib Hossain DC ২ মার্চ, ২০১৯, ১:১৫ এএম says : 0
আমার মনে ইসরাইল ভারত এক সাথে যুদ্ধ করলে পাকিস্তান লাভ কারন তখন সারা দুনিয়া মুসলিম এক হবে। ৫৭ দেশ জানে তাদের প্রধান শুত্রু ইসরাইল এখন যে মুসলিম জন্য ভারত হুমকি। কেয়ামত আগে কাফের সাথে যুদ্ধ হবে।
Total Reply(0)
হায়েনার অট্টহাসি ২ মার্চ, ২০১৯, ১:১৬ এএম says : 0
এই পৃথিবীতে যতো সমস্যা অশান্তি সব কিছুর মুল কারণ হচ্ছে এই ইহুদির বাচ্চারাা। সব কিছুর মধ্যে বাহাত ঢুকাই দেয়। কিন্তু ভাল কিছুর জন্য নয়। অশান্তি সৃষ্টি করার জন্য। মাদারিরা ভেজাল মিঠায় না, আরো বাড়ায়া দেয়। যাতে তাদের ব্যাবসা ভাল হয়।
Total Reply(0)
আহমেদ সাঈদ ২ মার্চ, ২০১৯, ১:১৬ এএম says : 0
বিধর্মীরা খুব সহজেই এক হয়ে যায়! ইসলাম বিরোধীরা এক এর বিপদে আরেকজন এগিয়ে আসে! কিন্তুু কি আপসোস মুসলিমরা এক হতে পারে না! দুঃখ হয় যখন দেখি আমাদের দেশের কিছু নামধারী মুসলিম (মুশরিকদের বন্ধু) যারা মুসলিমের বিপদে
Total Reply(0)
Engr Nasirul Islam ২ মার্চ, ২০১৯, ১:১৭ এএম says : 0
বুদ্ধিমান লোকদের বেশি বোঝাতে হয়না ওরা অল্প তেই সব কিছু বুঝতে পারে """"""" আর আমরা মনেকরি আমরা অনেক কিছু জানি বুঝি """""" জীবনে এখনো অনেক কিছু বোঝার আছে """"" কিছু কিন্তু জিনিস বা বিষয় আছে যা জানা ত দুরের কথা আমরা হয়তো এখনো কানেই শুনিনি """""" তারপর ও আমরা মনেকরি আমরা সব ই বুঝি """""" হাইরে অদ্ভুত মানুষ """"
Total Reply(0)
Rezaur Rahman ২ মার্চ, ২০১৯, ১:১৭ এএম says : 0
Thank you Robert Fisk. Hindu Jews ek hoice ata Muslim der bujte hobe. Muslim der united hote hobe.
Total Reply(0)
Anas Siddique Dse ২ মার্চ, ২০১৯, ১:১৭ এএম says : 0
আমার তো মনে হয় জংগী সংগঠন গুলোকে সব ধরনের পেট্রোনাইজ করে দুনিয়ার শান্তি ও স্থিতিশীলতা জঘন্য দুশমন এই ইসরাইল ।
Total Reply(0)
সেখ রাসেল ২ মার্চ, ২০১৯, ১:১৮ এএম says : 0
ইসরায়েল যুক্তরাষ্ট্রের রাসিয়া এদের কাজ যুদ্ধ লাগানো অস্ত্র ব্যবসা করা। এই দেশগুলো শান্তি চায় না তারা চায় যুদ্ধ । যুদ্ধ হলেই তাদের ব্যবসা রমরমা
Total Reply(0)
Miah Rasel Saruar ২ মার্চ, ২০১৯, ১:১৯ এএম says : 0
মধ্যপ্রাচ্যের বিষফোঁড়া ইহুদিবাদী সন্ত্রাসী গোষ্টিদের অস্তিত্ব বিশ্বের মানচিত্র থেকে মুছে ফেলার জন্য মুসলিম শাসকদের অগ্রনী ভুমিকা পালন করতে হবে।
Total Reply(0)
Shuhel Qadiri ২ মার্চ, ২০১৯, ১:১৯ এএম says : 0
ইসরায়েল ইসলাম ও মুসলমানদের চির শত্রু ৷ তারা ভারতকে দিয়ে ইসলামের ক্ষতি করতে চায় ৷
Total Reply(0)
মুহাম্মাদ নিজাম হক ২ মার্চ, ২০১৯, ১:১৯ এএম says : 0
বিশ্বশান্তির জন্য এরা কত বড় হুমকি। সেটা যত তারাতারি বিশ্ব বুঝতে পারবে তত মঙ্গল হবে।
Total Reply(0)
Habib Rahman ২ মার্চ, ২০১৯, ১২:১০ পিএম says : 0
Israel is state of terror. Israel occupied Palestinian land and killing raping frequently our Muslim brother and sister. India also occupied Kashmir and killing Muslim and raping all over the India. India are the hypocrisy country in the world. Muslim country should boycott dealing with Israel and Indian goods. they're common enemy of Muslim and Muslim country should realize it.
Total Reply(0)
Osman goni ২ মার্চ, ২০১৯, ১১:০২ পিএম says : 0
Israile praiminister netaneyahu soytaner cele,ar modi soytaner nati
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন