ঢাকা, রোববার, ২১ এপ্রিল ২০১৯, ৮ বৈশাখ ১৪২৬, ১৪ শাবান ১৪৪০ হিজরী।

আন্তর্জাতিক সংবাদ

কুরআন তেলাওয়াতে শুরু পার্লামেন্ট অধিবেশন

আসসালামু আলাইকুম বলে ভাষণ শুরু করলেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ মার্চ, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

ক্রাইস্টচার্চে দুই মসজিদে হামলার পর প্রথমবারের মতো অধিবেশনে বসেছে নিউজিল্যান্ড পার্লামেন্টে। দেশটির নিয়মের ব্যতিক্রম ঘটিয়ে পবিত্র কুরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে শুরু হয় এবারের অধিবেশন। অপরদিকে, ‘আসসালামু আলাইকুম’ বলে ভাষণ শুরু করেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী। খবরে বলা হয়, এদিন জাসিন্ডা আরডার্ন ক্রাইস্টচার্চ হামলাকারীর নাম মুখে না নেওয়ার শপথ নেন। অন্যদেরকেও হামলাকারীর নাম মুখে না আনার অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমি আপনাদেরকে অনুরোধ করছি: যে ব্যক্তি অন্যদের জীবন কেড়ে নিয়েছে তার নাম না নিয়ে যারা জীবন হারিয়েছে তাদের নাম নিন।’
বিবিসি জানায়, মঙ্গলবার পার্লামেন্টে দেয়া এক ভাষণে আরডার্ন বলেছেন, “সে তার সন্ত্রাসী কর্ম থেকে অনেক কিছু চেয়েছিল, এর একটি কুখ্যাতি- এই কারণেই আমাকে কখনো তার নাম উচ্চারণ করতে শুনবেন না আপনারা।”
গত শুক্রবার জুমার নামাজের সময় নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে শ্বেত শ্রেষ্ঠত্ববাদী এক জঙ্গির হামলায় ৫০ জন নিহত ও বহু লোক আহত হয়। এ ঘটনায় স্বঘোষিত শ্বেত শ্রেষ্ঠত্ববাদী জঙ্গি অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক ব্রেন্টন ট্যারান্টের (২৮) বিরুদ্ধে নরহত্যার অভিযোগ আনা হয়েছে। নির্বিচার ওই হত্যাকান্ডের চার দিন পর রাজধানী ওয়েলিংটনে প্রধানমন্ত্রী আরডার্ন বলেন, “আমি আপনাদের অনুরোধ করছি, তাদের নাম নিন যারা এ ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন, তার নাম নয় যে তাদের প্রাণ নিয়েছে। ‘সে একজন সন্ত্রাসী। একজন অপরাধী। সে একজন চরমপন্থী। কিন্তু সে, যখন আমি কথা বলবো, নামহীন থাকবে।”
ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানের প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, এদিন মুসলিম রীতিতে ‘আসসালামু আলাইকুম’ বলে ভাষণ শুরু করেন তিনি। ক্রাইস্টচার্চ হামলায় নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা এবং মুসলিমদের প্রতি স¤প্রীতি জানিয়ে জাসিন্ডা এ পদক্ষেপ নেন বলে মনে করা হচ্ছে। দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্ন পার্লামেন্টে তার ভাষণে ক্রাইস্টচার্চ হামলায় হতাহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও একাত্মতা প্রকাশ করেন। একই সাথে ওই ঘটনার হামলাকারী ব্রেন্টন ট্যারান্টকে বাধা দিতে গিয়ে নিহত হওয়া নাঈম রশিদের আত্মত্যাগের বিষয়টিও স্মরণ করেন। পার্লামেন্ট ভাষণে নিউজিল্যান্ড প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, এ ঘটনার শিকার ব্যক্তি ও পরিবারগুলো অবশ্যই ন্যায়বিচার পাবে। অবশ্য তিনি পুরো ভাষণে কোথাও হামলাকারীর নাম উল্লেখ করেননি।
শুক্রবার নামাজের সময় হামলাকারী প্রথমে আল নূর মসজিদ এবং পরে লিনউড মসজিদে হামলা চালায়। এ সময় দুই মসজিদে ৫০ জন মারা যায়। তবে কয়েকজন মুসল্লির সাহসিকতার কারণে হামলা চালানো বন্ধ করে ফিয়ে যায় বন্দুকধারী। নয়তো হতাহতের সংখ্যা আরো অনেক বাড়তে পারতো। নিহতদের বেশিরভাগ নাগরিক পাকিস্তান, ভারত, তুরস্ক, কুয়েত ও সোমালিয়ার।
এদিকে নিউজিল্যান্ড পার্লামেন্টে ভাষণ চলাকালে চোখের পানি ধরে রাখতে পারেননি অনেক এমপি। দেখা যায় উইলিয়াম সিও কাদছেন, অন্যরাও চোখের পানি ধরে রাখার আপ্রাণ চেষ্টা করছেন। এদের মধ্যে রয়েছেন ক্রিস হিপকিন্স, মেগান উডস, সারাহ দাওয়ি প্রমুখ। গতকাল শাহাদাতবরণকারীদের লাশ স্বজনদের কাছে ফিরিয়ে দেয়ার কাজ শুরু হয়েছে। তবে এদিন কোনো বাংলাদেশীর লাশ হস্তান্তর করা হয়নি।
বিভিন্ন মহল থেকে লাশ হস্তান্তরে বিলম্বের জন্য সমালোচনার মুখে গতকাল ৬ জনের লাশ হস্তান্তর করা হয় এবং আরো ৬ জনের লাশ হস্তান্তরের জন্য প্রস্তুত আছে যা আজ বুধবার হস্তান্তর করা হবে বলে আশা করা যাচ্ছে। এর প্রধানমন্ত্রী বিলম্বের কারণ অনুসন্ধান করে দ্রুত লাশ হস্তান্তরে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন। জানানো হয়, সবগুলো লাশের সুরতহাল সম্পন্ন করতেই এতটা সময় লাগলো। সামনের দিনগুলোতে মুসলিম সম্প্রদায়কে কীভাবে শোক থেকে বের করে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনা যায় তার নিয়ে গতকাল সন্ধ্যায় সভা করেন স্থানীয় ডিন। দেড়শ’ মানুষের ২ মিনিট নিরবতায় শুরু সভায় বক্তারা পরামর্শ দেন শিশুদের এমন শিক্ষা প্রদানের যাতে তারা বর্ণবিদ্বেষী হয়ে না বড় হয়ে ওঠে।
শুক্রবার হিজাব পরার আহ্বান
মুসলিম সমাজের সাথে সংহতি এবং যে শোক তারা বয়ে বেড়াচ্ছেন তার মর্ম অনুধাবনের অংশ হিসেবে আগামী শুক্রবার সব ধর্মের নিউজিল্যান্ডবাসীর প্রতি হিজাব পরার আহ্বান জানানো হচ্ছে। #হেডস্কাফহার্মনি ব্যবহার করে আগামী ২২ মার্চ শুক্রবার হিজাব পরার আহ্বান জানিয়ে একটি গ্রুপ এ প্রচারণা চালাচ্ছে। শ্বেতাঙ্গ সন্ত্রাসী ব্রেন্টন টারান্টের ‘নজিরবিহীন’ সাজা হতে পারে বলে মনে করছেন দেশটির আইন বিশেষজ্ঞরা। দেশটির আইনজীবী সাইমন কুলেনের মতে, ব্রেন্টনের অপরাধ অনেক বেশি গুরুতর। কাজেই তার ক্ষেত্রে হয়তো ১০ বছরের কারাবাসের পরও প্যারোলে মুক্তির বিষয়টি বিবেচনা করা হবে না। এমনটা হলে এই সাজা হবে নিউজিল্যান্ডের সাম্প্রতিক ইতিহাসে ‘নজিরবিহীন’। নিউজিল্যান্ডে ১৯৬১ সালে মৃত্যুদন্ডের বিধান রহিত করা হয়। দেশটিতে হত্যার অভিযোগ প্রমাণিত হলে সর্বনিম্ন ১০ বছরের কারাদন্ডের বিধান রয়েছে। নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের অধিনায়ক কেন উইলয়ামন তার ফেসবুক পেজে একটি ছবি শেয়ার করেছে যেটি রীতিমতো ভাইরাল হয়েছে। ১৭ মার্চ কেন উইলিয়ামসনের শেয়ার করা ছবিটি দেশটির জাতীয় প্রতীক সিলভার ফার্ন। যেটি দেশটির জাতীয় প্রতীকের আদলে তৈরি করা নামাজের কাতার। নামাজরত কাতারবন্দী মানুষের বিপরীতে মানুষের প্রতিচ্ছবি যা বিনয় প্রকাশ করছে।
ফেসবুকের লাইভ নিয়ে নিউজিল্যান্ড যখন সোচ্চার তখন এই সামাজিক মাধ্যম দাবি করছে, ২০০ মানুষও নিউজিল্যান্ড হামলার লাইভ দেখেনি। তাদের দাবি, সরাসরি সম্প্রচারের সময় ভিডিওটি দেখেছে ২০০ জনেরও কম মানুষ। আর ভিডিওটি সেখান থেকে সরিয়ে ফেলার আগে পর্যন্ত মোট ৪ হাজার বার তা দেখা হয়েছে।
অস্ট্রেলিয়ার অন্যতম শীর্ষ মাওলানা শেখ সাদী আলসুলেমানকে প্রবেশে বাধা দিয়েছে নিউজিল্যান্ড। তবে অস্ট্রেলিয়া সরকারের অভিযোগের প্রেক্ষিতে তাকে পরে প্রবেশের অনুমতি দেয়া হয়। অস্ট্রেলীয় জাতীয় ইমাম পরিষদের প্রেসিডেন্ট শেখ সাদি ইসলামি বিষয়ে সরকারকে পরামর্শ দিয়ে থাকে। অনেকদিন ধরেই জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসের হিটলিস্টে রয়েছেন তিনি। এমন একজন মাওলানাকে নিউজিল্যান্ডে কেন প্রবেশে বাধা দেওয়া হলো তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। সূত্র : বিবিসি, রয়টার্স, গার্ডিয়ান, এক্সপ্রেস ট্রিবিউন ও নিউজিল্যান্ড হেরাল্ড।

 

ক্রাইস্টচার্চ হত্যাকান্ডের নিন্দা সউদী আরবের
ইনকিলাব ডেস্ক
সউদী আরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আদেল আল জুবায়ের বলেছেন, ক্রাইস্টচার্চে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় মুসলমানদের সঙ্গে ঐক্যবদ্ধভাবে সংহতি প্রকাশ করেছে বিশ্ব। ক্ষুদে ব্লগ টুইটারে জুবায়ের বলেন, এতে পরিষ্কার হয়েছে, সন্ত্রাসের কোনো ধর্ম কিংবা বর্ণ নেই। তিনি বলেন, নিউজিল্যান্ড হচ্ছে নিরাপদ, শান্তিপূর্ণ ও সবার জন্য একটি উন্মুক্ত দেশ। নিউজিল্যান্ড সরকার ও জনগণ তা প্রমাণ করেছেন।
এর আগে এ হত্যাকান্ডের নিন্দা জানান সউদী আরবের বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ ও যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। সূত্র : ওয়েবসাইট।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (12)
MD Rezaul Karim ২০ মার্চ, ২০১৯, ৩:২০ এএম says : 1
Salute prime minister of New Zealand
Total Reply(0)
Esrafil Khan ২০ মার্চ, ২০১৯, ৩:২০ এএম says : 1
ma sa Allah. Allah jeno sobaike islamer pothe nia asen ameen
Total Reply(0)
Al Mamun Shamim ২০ মার্চ, ২০১৯, ৩:১৮ এএম says : 1
প্রকৃতই একজন মানবিক রাষ্ট্রনায়ক।ইতিহাসে অমর হয়ে থাকবে। সন্রাসী হামলার পর মুসলমানদের সর্বোচ্চ সন্মান দেখাচ্ছেন।Love and respect for Jacinda Arden.
Total Reply(0)
Md Kokan ২০ মার্চ, ২০১৯, ৩:২১ এএম says : 1
সবাই দোয়া করুন যাতে এই পবিত্র কোরআনের বাণী নিউজিল্যান্ডের পার্লামেন্ট পর্যন্ত ইতিমধ্যে পৌছে গেছে আল্লাহ রাব্বলআলামীন যেন পুরো জাতির অন্তরের মধ্যেই স্থান করে দেন আমিন ।সবাই দোয়া করুন ।
Total Reply(0)
Arif Rubel ২০ মার্চ, ২০১৯, ৩:২১ এএম says : 1
নিউজিল্যান্ডের সকল নাগরিকদের প্রতি সম্মান, শ্রদ্ধা বেড়ে গেলো। কেমন মানবিক প্রধানমন্ত্রী তারা নির্বাচিত করেছে। আপনাদের রুচির সাক্ষর রাখছেন আপনাদের নেতা। ভালোবাসা রইলো সকল নিউজিল্যান্ড বাসীর জন্য।
Total Reply(0)
MD Nayeem Mojumder ২০ মার্চ, ২০১৯, ৩:২২ এএম says : 1
তাদের অধিবেসনে যেন কেয়ামতের অাগ পর্যন্ত এই কোরঅান চালো থাকে সে জন্য অাল্লাহর নিকট সকলে খাস করে দোয়া করি।
Total Reply(0)
Md Iqbal Hossain Hossain ২০ মার্চ, ২০১৯, ১০:০৮ এএম says : 1
ইসলামের বিজয় হবে একটু ত্যাগ স্বীকারের মধ্যমে সবাই কে ধয্য ধরতে হবে ।আমরাই জয়ী হবো ইনশাআল্লাহ........!
Total Reply(0)
Anowar Hussain Tuhin ২০ মার্চ, ২০১৯, ১০:০৭ এএম says : 1
আল্লাহ কবুল করো ইসলামের জন্য
Total Reply(0)
Samim Hasan ২০ মার্চ, ২০১৯, ১০:০৭ এএম says : 1
মাশাআল্লাহ। এই উচিলায় আল্লাহ নিউজিল্যান্ডবাসীকে ইসলামের জন্য কবুল করে নাও। আমীন
Total Reply(0)
Shofiq Sadi ২০ মার্চ, ২০১৯, ১০:০৭ এএম says : 1
ইসলাম শান্তির ধর্ম।সে অনুযায়ী সবচে শান্তি ও নিরাপত্তার দেশ হওয়ার কথা ছিল কোন মুসলিম কান্ট্রি।অথচ বিশ্বে সবচে শান্তির দেশ ভাবা হয় নিউজিল্যান্ডকে।যার প্রমান তারা দিয়ে যাচ্ছে।কেনই বা এমনটি হবে না! আমরা যে আমাধের ধর্ম থেকে অনেক দূরে সরে গেছি
Total Reply(0)
Mmizan ২০ মার্চ, ২০১৯, ১১:২৫ এএম says : 1
হে আল্লাহ্ নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী কে হেদায়েত দিয়ে দেন।
Total Reply(0)
Md. Anisul Islam ২০ মার্চ, ২০১৯, ১১:৫৩ এএম says : 1
তাদের অধিবেসনে যেন কেয়ামতের অাগ পর্যন্ত এই কোরঅান চালো থাকে সে জন্য অাল্লাহর নিকট সকলে খাস করে দোয়া করি।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন