ঢাকা, শনিবার ২৫ মে ২০১৯, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৯ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

আন্তর্জাতিক সংবাদ

মসজিদে হামলার বদলা চায় আইএস

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ মার্চ, ২০১৯, ৩:২২ পিএম

প্রায় ছয় মাস পরে মুখ খুলেই জোড়া বোমা ফাটাল আইএসের মুখপাত্র আবু হাসান আল-মুজাহির। মঙ্গলবার একটি ৪৪ মিনিটের একটি অডিও ক্লিপ পোস্ট করে তিনি বলেন, ‘নিউজিল্যান্ডের ওই শ্বেত সন্ত্রাস আসলে মুসলমানদের উপরে আঘাত। নিউজিল্যান্ডের মসজিদে ৫০ জন মুসলিমকে মারার বদলা নেওয়ার সময় এসে গিয়েছে।’ খবর নিউইয়র্ক টাইমস।
সিরিয়া থেকে সেনা সরানোর কথা ঘোষণা করতে গিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছিলেন, ‘এখন তো আইএস কোণঠাসা। ওদের কোথাও কোনও অস্তিত্বই নেই।’ কার্যত তারই জবাবে ওয়াশিংটনকে কটাক্ষ করে আবু হাসান বললেন, ‘এ বার আমাদের জেগে উঠতেই হবে। বদলা চাই। আমাদের অস্তিত্ব আছে, না নেই— এ বার সেই ভুলটাও ভাঙানো দরকার।’
সিরিয়ার প্রশাসন সূত্রে খবর, সেখানে আর মাত্র একটি গ্রাম বাঘুজে ঘাঁটি রয়েছে আইএসের। সেই গ্রামে সরকারি বাহিনীর হাতে কী ভাবে তাদেরও মার খেতে হচ্ছে তা ব্যাখা করতে গিয়ে আবু হাসান বলে, ‘গ্রামে মুসলিমদের জ্যান্ত পুড়িয়ে মারছে ওরা। কোথাও আবার নির্বিচারে বোমা মারছে। সব শেষ করে দিতে চাইছে।’ কিছু শহরের ছবিও একই রকম বলে দাবি করে তিনি বলেন, ‘মুসলিম মানেই যৌথ বাহিনীর চোখে হয় জঙ্গি, নয় জঙ্গির আত্মীয়।
অডিও-বার্তায় আইএস প্রথম থেকে যে ভাবে আমেরিকাকে নিশানা করেছে, ওয়াশিংটন তা নিয়ে মুখ না-খুললেও, বিষয়টা ভাবাচ্ছে অনেককে। তবে কে এই আবু হাসান, তা নিয়ে ধোঁয়াশা কাটছে না। আইএসের শীর্ষ নেতা আবু বকর আল-বাগদাদির মতো এরও বহু বার মৃত্যুসংবাদ শোনা গিয়েছে। অথচ এর পর মাঝে মাঝেই শোনা গিয়েছে তার অডিও-ক্লিপ। কিন্তু আইএসের কোনও ভিডিও কিংবা ছবিতে আজ পর্যন্ত তাকে দেখা যায়নি।
এ দিকে জানা গেছে, সিরিয়ার সেই গ্রাম বাঘুজ অর্থাৎ আইএসের শেষ শক্ত ঘাঁটিতে বুধবার জঙ্গিদের একটি শিবির পুনর্দখল করেছে মার্কিন সমর্থনপুষ্ট সিরীয় বাহিনী। তবে এখনই একে জঙ্গিদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে চূড়ান্ত জয় বলতে নারাজ বাহিনী। কুর্দ নিয়ন্ত্রিত সেনার মুখপাত্র মুস্তাফা বালি টুইটারে লেখেন, ‘বাঘুজের বহু এলাকায় এখনও সেনা-জঙ্গি যুদ্ধ চলছে। এর শেষ দেখেই ছাড়ব।’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
ওবাইদুল ইসলাম ২০ মার্চ, ২০১৯, ৬:১২ পিএম says : 0
আইএস এর কোন সংবাদ ছাপানো উচিৎ নয় । সকল সন্ত্রাসী ও তাঁদের দোসররা মুসলমানদের শুধু ক্ষতিই করছে ।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন