ঢাকা, বুধবার ১৭ জুলাই ২০১৯, ০২ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৩ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

জাতীয় সংবাদ

মানুষদের বাঁচাতে পাইপ চেপে ধরি

ফাটা পাইপ চেপে ধরে প্রশংসায় ভাসছে শিশু নাঈম

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩০ মার্চ, ২০১৯, ১২:০৩ এএম


রাজধানীর বনানীর এফআর টাওয়ারে অগ্নিকাÐের পরে উদ্ধারসহ নানা বিষয়ের অসংখ্য ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এর মধ্যে কিছু ছবি প্রশংসা কুড়ালেও উৎসুক জনতার অহেতুক ভিড়ের ছবি নিন্দা কুড়িয়েছে সর্বমহলে। তবে এসব ছবির মধ্যে নাঈম নামে ছোট্ট একটি ছেলের পানির পাইপের ফাটা অংশ চেপে ধরার ছবি ভাইরাল হয়, যা সবার প্রশংসা কুড়িয়েছে। গতকাল বনানীতে নাঈমের সঙ্গে কথা হয়। সে জানায়Ñ ‘মানুষদের বাঁচাতে পাইপের ফাটা জায়গা চেপে ধরে রাখি।’
আলাপকালে বীর বনে যাওয়া ছেলেটি জানায়, তার পুরো নাম নাঈম ইসলাম। রাজধানীর কড়াইল বস্তিতে বাবা-মা ও বোনের সঙ্গে থাকে। ব্র্যাকের পরিচালিত স্থানীয় আরবান ¯øাম আনন্দ স্কুলে পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ে। নাঈমের বাবা ডাব বিক্রি করেন আর মা কর্মজীবী।
নাঈম জানায়, অগ্নিকাÐের ঘটনার আগে মা নাজমা বেগম টিভি ছাড়তে বলেন। টিভিতে আগুনের খবর দেখে দৌড়ে এফআর টাওয়ারের সামনের রাস্তায় যায়। তারপর সেখানে পানির ফাটা পাইপটি দেখতে পেয়ে সেটিকে দুই হাত দিয়ে শক্ত করে চেপে ধরে রাখে। নাঈম বলে, মানুষকে বাঁচাতে পাইপ চেপে ধরে রেখেছিলাম। পাইপ ফাটা থাকলে তো পানি অন্য দিকে পড়ে যায়।
আগুনের দ্বারা ভুক্তভোগী এই শিশু জানায়, আগুনের ঘটনায় আমার নিজেরই রয়েছে দুঃসহ স্মৃতি। কড়াইল বস্তিতে চোখের সামনে আমাদের ঘর পুড়ে যেতে দেখেছি। এফআর টাওয়ারের আগুন দেখে সেই স্মৃতি মনে পড়ে যায়। তাই তো নিজের সবটুকু শক্তি দিয়ে ফাটা পাইপটি চেপে ধরে রাখি।
নাঈম জানায়, আমি কোনো ভয় পাইনি, ওই সময় ভেতরের মানুষগুলো বেঁচে থাকার জন্য সবাই আল্লাহর কাছে দোয়া করছিল। আমিও চাইছিলাম ছোট একটু সাহায্য করতে। আগুন নেভার পর বাসায় গেলে তার নানী ও এলাকার অন্যরা তাকে বাহবা দিয়েছে। সবাই জড়িয়ে ধরেছে। স্বপ্নের বিষয়ে জানতে চাইলে নাইম বলে, বড় হয়ে সরকারি চাকরি করে সংসারের হাল ধরতে চাই। আমি পুলিশ হতে চাই। ওই সময় নাঈম পাশে উপস্থিত এক পুলিশ কর্মকর্তার সাথে ছবি তোলে। ওই কর্মকর্তা তার কাঁধে হাত রেখে ছবি তোলেন। এর আগে ভালোভাবে পড়াশোনা করে নিজের স্বপ্ন পূরণের ইচ্ছা বাস্তবায়ন করতে সবার দোয়া চেয়েছে নাঈম।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন