ঢাকা, সোমবার ২৪ জুন ২০১৯, ১০ আষাঢ় ১৪২৬, ২০ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

ইসলামী বিশ্ব

সউদী আরবের প্রথম পরমাণু চুল্লি নির্মাণ কাজ প্রায়ই শেষ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৫ এপ্রিল, ২০১৯, ১২:০৬ এএম


সউদী আরবের পরমাণু চুল্লি নির্মাণের কাজ আগামী কয়েক মাসের মধ্যেই শেষ হতে যাচ্ছে। উপগ্রহ থেকে তোলা ছবিতে এমন তথ্যই দিয়েছে বলে ব্রিটিশ দৈনিক গার্ডিয়ানের খবরে বলা হয়েছে। কিন্তু পরমাণু বোমা বানানো থেকে বিরত থাকতে যেসব রক্ষাকবচ মেনে চলতে হয়, তা মেনে চলা হচ্ছে কিনা, ছবিতে এমন কিছু দেখা যায়নি। রিয়াদের বাইরে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির জন্য গড়ে তোলা বাদশাহ আবদুল আজিজ শহরে এ চুল্লি নির্মিত হচ্ছে। আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থার পরমাণু পরিদর্শনের সাবেক পরিচালক রবার্ট কেলি জায়গাটি শনাক্ত করেছেন। এটি ৩০ কিলোওয়াটের ছোট গবেষণা চুল্লি, যার কাজ এখনও শেষ হয়নি। কেলি বলেন, আমার মনে হচ্ছে- এক বছরের মধ্যে তারা কাজটি শেষ করে ফেলবেন। এ সময় তারা স্থানটি ছাদ ও বিদ্যুৎ চালু করতে পারবেন। মার্কিন পরমাণু অস্ত্র কমপ্লেক্সে তিন দশকেরও বেশি সময় ধরে গবেষণা ও প্রকৌশল বিভাগে কাজ করেছেন কেলি। উপগ্রহের ছবিতে দেখা গেছে, পরমাণু জ্বালানি ধারণ করার জন্য ১০ মিটার লম্বা স্টিলের নলাকার পাত্র নির্মাণ করা হয়েছে। কংক্রিটের ভবনের চারপাশে অবকাঠামো নির্মাণকাজ চলছে। তিনি বলেন, গবেষণা চুল্লির মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে- প্রকৌশলীদের প্রশিক্ষণ দেয়া। কিন্তু চুল্লিতে জ্বালানি প্রয়োগের আগে সউদী আরবকে একগুচ্ছ বিধিমালা বাস্তবায়ন করতে হবে। যার মধ্যে আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থার পরিদর্শন করতে পারে। বিদীর্ণ বস্তু যাতে অস্ত্র নির্মাণের দিকে মোড় না নেয়, সেই পরিকল্পনা নিশ্চিত করতে হবে, যা একেবারে এড়িয়ে যেতে হবে। আর্জেন্টিনার রাষ্ট্রায়ত্ত কোম্পানি আএনপিএপি এসই এই চুল্লির নকশা করেছে। আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থায় আর্জেন্টিনার দূত রাফায়েল মারিয়ানো গ্রসি বলেন, বলতে গেলে চলতি বছরের শেষ দিকে এই চুল্লির কার্যক্রম শুরু করা যাবে। গার্ডিয়ান।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (5)
Waheed Ashraf ৫ এপ্রিল, ২০১৯, ৩:৩৯ এএম says : 0
আর যাই হোক, সৌদী আরব যে পারমানবিক বোমা বানাবে এবং ব্যাপকভাবেই বানাবে এটা গোটা বিশ্ব ভাল করেই জানে।।। শুধু তা-ই নয়, খুব দ্রুতই বিশ্বের এক নম্বর পারমানবিক শক্তিধর দেশে তারা উঠে আসবে আর আরব জনগণ বিশেষ করে ফিলিস্তিনবাসী ইসরাইলের গণহত্যা থেকে বাঁচবে এই শক্তির যথার্থ প্রয়োগে---- এটা কেবলি কিছু সময়ের অপেক্ষা মাত্র। সারা বিশ্বের মনে রাখা উচিৎ যে, আজ যারা সর্বদিকে এক, দুই কিংবা তিন নম্বরে,তাদের অর্থ শক্তির উৎস কিন্তু এই সম্পদশালী সৌদী বন্ধুত্ব!
Total Reply(0)
Norul Islam Alhanafe ৫ এপ্রিল, ২০১৯, ৩:৪০ এএম says : 0
সৌদি সরকার কষ্ট করে বানাবে কিন্তু এগুলোর মালিক হবে ট্রাম্প কারণ বর্তমান সৌদি সরকারের সাথে ট্রাম্পের সাথে অনেক ঘনিষ্ঠতা রয়েছে
Total Reply(0)
Hm Imran Aiyan ৫ এপ্রিল, ২০১৯, ৩:৪০ এএম says : 0
ইহুদীদের দালালি করলে কোন আইনি জটিলতা আসার কথা না
Total Reply(0)
Faisal Alam ৫ এপ্রিল, ২০১৯, ৩:৩৮ এএম says : 0
দুর্বলের উপর সবাই নির্যাতন চালায়। মুসলিম দেশগুলো সামরিক ও অর্থনৈতিক ভাবে অনেক দুর্বল।। মুসলিমদের শক্তিশালী হতে হবে। এদিক থেকে সৌদি তুরস্ক বেশ এগিয়ে যাচ্ছে।। কারন আমেরিকার, রাশিয়া, ইসরাইল হল দানব। আর দানব মোকাবিলা করতে হলে দানব হতে হবে।। কিছু মানুষ থাকবেই যারা সারাদিন পেছন থেকে গালাগালি দিবে, তাদের কথা ছুড়ে ফেলে এগিয়ে যেতে হবে।।
Total Reply(0)
Md Samsuzzoha ৫ এপ্রিল, ২০১৯, ৩:৩৮ এএম says : 0
Thanks
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন