ঢাকা, শনিবার ২০ জুলাই ২০১৯, ০৫ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৬ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

খেলাধুলা

লাওস’কে পেয়ে স্বস্তি বাংলাদেশের

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ এপ্রিল, ২০১৯, ৮:১৪ পিএম

রাশিয়া বিশ্বকাপের আগে বাংলাদেশকে খেলতে হয়নি প্রাক-বাছাই পর্ব। ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে এশিয়ার সেরা ৩৪-এ থাকায় সর্বশেষ বিশ্বকাপ বাছাইয়ে সরাসরি গ্রুপ পর্বে খেলেছিল লাল-সবুজরা। কিন্তু এবার কাতার বিশ্বকাপকে সামনে রেখে পরীক্ষার আগে আরেকটি পরীক্ষা দিতে হচ্ছে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলকে। খেলতে হবে প্রাক-বাছাই। অপেক্ষাকৃত সহজ প্রতিপক্ষ না পেলে এই পর্ব টপকানো কঠিনই হবে। লাল-সবুজ ফুটবলারদের এ চিন্তা বেশ কিছুদিন ধরেই ভোগাচ্ছে। অবশেষে দূর হলো চিন্তা, স্বস্তি ফিরল বাংলাদেশ ফুটবলে। না, শক্ত নয়, বিশ্বকাপ প্রাক-বাছাইয়ে সহজ প্রতিপক্ষই পেল বাংলাদেশ। বুধবার মালয়েশিয়ায় অনুষ্ঠিত লটারিতে লাওস’কে প্রতিপক্ষ হিসেবে পেয়েছে বাংলাদেশ। এখন বলাই যায়, লটারি ভাগ্যে কাতার বিশ্বকাপের বাছাইয়ের প্রথম পর্ব টপকানোর সম্ভাবনা বাড়লো বাংলাদেশের। যে ৬ দেশ ছিল সম্ভাব্য তালিকায় তাদের মধ্যে মালয়েশিয়াকে নিয়েই অস্বস্তি বেশি ছিল বাংলাদেশের ফুটবলারদের। ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে এশিয়ার নিচের ১২ দেশের মধ্যে শীর্ষে থাকা মালয়েশিয়া যদি বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ হতো তাহলে কষ্টটা বাড়তো জামাল ভুঁইয়াদের। সেই তুলনায় লাওস অনেকটাই সহজ প্রতিপক্ষ! আন্তর্জাতিক ফুটবলে লাওসের বিপক্ষে বেশি ম্যাচ খেলেনি বাংলাদেশ। তবে ফলাফল একেবারে খারাপ নয়। এ পর্যন্ত তিনটি ম্যাচ খেলে প্রথমটিতে হেরেছে বাংলাদেশ। দ্বিতীয়টি ড্র করে সর্বশেষ ম্যাচে লাওস’কে হারিয়েছে লাল-সবুজরা। পারফরম্যান্সের গ্র্যাফটা উর্ধ্বমূখি। বাংলাদেশ জয়ের তরতাজা স্মৃতি নিয়েই বিশ্বকাপ প্রাক-বাছাইয়ে আশিয়ান অঞ্চলের দেশ লাওসে’র বিপক্ষে খেলতে নামবে।

১৬ বছর আগে এএফসি এশিয়ান কাপের বাছাইয়ে প্রথম লাওসে’র মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ। ২০০৩ সালের ২৭ মার্চ অনুষ্ঠিত ওই ম্যাচে লাওস জিতেছিল ২-১ ব্যবধানে। দ্বিতীয়টি ছিল ফিফা আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচ। গত বছরের ২৭ মার্চ লাওসের মাটিতেই বাংলাদেশ দুই গোলে পিছিয়ে থেকে শেষ পর্যন্ত ২-২ ব্যবধানের ড্র নিয়ে ঘরে ফিরেছিল। আর সর্বশেষ ম্যাচটি ছিল গত বছরের ১ অক্টোবর সিলেটে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে। স্থানীয় তারকা বিপলু আহমেদের একমাত্র গোলে ওই ম্যাচে বাংলাদেশ ১-০ ব্যবধানে হারায় লাওস’কে।

এবার কাতার বিশ্বকাপের প্রাক-বাছাইয়ে বাংলাদেশ ৬ জুন লাওসে গিয়ে প্রথম ম্যাচ খেলবে। ঘরের মাঠে ১১ জুন ফিরতি ম্যাচে লাওস’কে মোকাবেলা করবে লাল-সবুজরা। বাংলাদেশ গত প্রায় একবছরে দু’বার লাওসের বিপক্ষে খেলেছে। তাই দলটি সম্পর্কে বাংলাদেশের ধারণা তরতাজাই বলা চলে।

বিশ্বকাপ প্রাক-বাছাইয়ে হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে ভিত্তিতে লাওসকে হারালে বাংলাদেশ উঠবে এশিয়ার সেরা ৪০ দলের মধ্যে। র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষ ৩৪ দলের সঙ্গে বাছাইয়ের প্রথম পর্ব টপকে যোগ দেবে ৬টি দল। এই ৪০ দল পাঁচ গ্রুপে ভাগ হয়ে খেলবে কাতার বিশ্বকাপ বাছাইয়ের গ্রুপ পর্ব।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন