ঢাকা, রোববার, ২৫ আগস্ট ২০১৯, ১০ ভাদ্র ১৪২৬, ২৩ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

সারা বাংলার খবর

চবির প্রণীবিদ্যা বিভাগে শিক্ষক নিয়োগে হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা

চবি সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৮ এপ্রিল, ২০১৯, ৬:৫৪ পিএম

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের প্রভাষক পদে শিক্ষক নিয়োগে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন হাইকোর্ট। সেই সথে এই পদে নিয়োগের জন্য অনুষ্ঠিত হওয়া মৌখিক পরীক্ষা বাতিল করে প্রার্থী এমদাদুল হকের আবেদন দুই সপ্তাহের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে বিশ্ববিদ্যালয় ভিসির প্রতি নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।
আজ (বৃহ¯পতিবার) বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি মো. কামরুল কাদেরের হাইকোর্ট বেঞ্চ শিক্ষক প্রার্থী মো. এমদাদুল হকের করা রিটে শুনানি নিয়ে রুলসহ এই আদেশ দেন। আদালতে রিটের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়–য়া। আর রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার।
ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়–য়া বলেন, গত ২৭ মার্চ প্রাণিবিদ্যা বিভাগে প্রভাষক পদে নিয়োগের মৌখিক পরীক্ষা দেয়ার জন্য মো. এমদাদুল হক চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে আসলে বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী তাকে অপহরণ করে। এবং মৌখিক পরীক্ষার সময় শেষ হয়ে এলে শিবির সন্দেহে তাকে পুলিশে দেয়ে তারা। পুলিশ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সথে যোগাযোগ করেছিল। প্রক্টর ও ভিসিকে ঘটনা জানালেও তাঁরা কোনো রকমের পদক্ষেপ নেননি। তিনি আরও বলেন, দুইদিন পর ৩০ মার্চ এমদাদুলক হক বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি বরাবর লিখিত অভিযোগ দাখিল করে অনুরোধ করেন যেন তাকে মৌখিক পরীক্ষায় অংশ নেয়ার সুযোগ দেয়া হয়। এমদাদুল হক ২০১২-১৩ সালে প্রাণিবিদ্যা বিভাগ থেকে সিজিপিএ ৩.৮৮ পেয়েছিলেন। এই ফলাফলের জন্য ২০১৫ সালে প্রধানমন্ত্রীর স্বর্ণপদকও পান তিনি। এই ঘটনার কোনো সমাধান না পেয়ে হাইকোর্টে রিট আবেদন করা হয়।
বৃহস্পতিবার এ আবেদনটির শুনানি শেষে আদালত আদেশে বলেছেন, ৩০ মার্চ এমদাদুল হক যে আবেদনটি জানিয়ে ছিলেন ভিসির কাছে, সেটি আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে বলেছেন এবং এই সময়ের মধ্যে যেন প্রাণিবিদ্যা বিভাগের প্রভাষকের দুটো খালি পদে যেন নিয়োগ প্রক্রিয়া স¤পন্ন না করা হয়, সেটার ওপরও নিষেধাজ্ঞার আদেশ জারি করেছেন।
উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে ১৮ অক্টোবর বিভিন্ন বিভাগে শিক্ষক নিয়োগে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে চট্টগ্রাম বিশ^বিদ্যালয় কতৃপক্ষ। এর মধ্যে প্রাণিবিদ্যা বিভাগে প্রভাষক পদের বিপরীতেও দরখাস্ত আহ্বান করা হয়। সেটাতে আবেদন করেন মো. এমদাদুল হক।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন