ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৭ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৫ জামাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

সাইফুদ্দিনের দিনে আলোচনায় তাসকিন

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ এপ্রিল, ২০১৯, ৭:৫৭ পিএম | আপডেট : ১২:১২ এএম, ২০ এপ্রিল, ২০১৯

বিশ্বকাপ যতই ঘনিয়ে আসছে ততই নিজেকে নতুনভাবে চেনাচ্ছেন মোহাম্মাদ সাইফুদ্দিন। এক ম্যাচে আগে প্রাইম দোলেশ্বরের বিপক্ষে ৯ রানের এক স্পেলে নিয়েছিলেন ৫ উইকেট। আজও একই মাঠে ডানহাতি পেস অলরাউন্ডারের তোপের মুখে অল্প রানে গুটিয়ে যায় প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব। আবাহনী লিমিটেডও ম্যাচ জিতেছে হেসেখেলে, ৬ উইকেটের বড় ব্যবধানে। তবে ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে সুপার লিগ পর্বের ম্যাচে এদিন সবচেয়ে বেশি অলোচনায় এসেছেন তাসকিন আহমেদ। ‘ফিটনেস’ সমস্যার কারণে বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলে জায়গা হারানো এই ডানহাতি পেসার দারুণ বোলিংয়ে এদিন নিয়েছেন চার উইকেট। ভালো বোলিং করেন মোহাম্মাদ শহিদও। তাদের প্রতিপক্ষ প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাবও গুটিয়ে যায় দুইশ পার হতেই। শাহরিয়ার নাফিসের অপরাজিত শতকে যা ৭ উইকেট হাতে রেখে পেরিয়ে যায় পয়েন্ট তালিকার শীর্ষ দল লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ। সাভারে শহিদ-তাসকিনের বোলিংয়ের সামনে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারায় দোলেশ্বর। তাদের সামনে সবচেয়ে বড় প্রতিরোধ আসে সৈকত আলির ব্যাট থেকে। ওয়ানডাউনের নামা এই ব্যাটসম্যান করেন সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ৭২ রান, দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৭ রান আসে সাইফ হাসানের ব্যাট থেকে। ৫ ওভার বাকি থাকতে ২০৫ রানে শেষ হয় মার্শাল আয়ুবের দলের ইনিংস। ৩৫ রানে ৩ উইকেট নেন শহিদ, ৫৪ রানে ৪টি নেন তাসকিন। তবে ১৪২ বলে ১১ চার ও এক ছক্কায় অপরাজিত ১১৩ রানের ইনিংস খেলে ম্যাচসেরার স্বীকৃতি পেয়েছেন শাহরিয়ার নাফিস। ৩৪ বল ও ৭ উইকেট হাতে রেখে রূপগঞ্জ ম্যাচ জিতে নেয়। মিরপুরে সাইফুদ্দিনের দিনে বল হাতে কার্যকর ছিলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা ও সৌম্য সরকারও। যে কারণে ৩ বল বাকি থাকতে ২২৬ রানে গুটিয়ে যায় প্রাইম ব্যাংক। ৬৬ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়া দলকে লড়াইয়ের পুঁজি এনে দেয় অলক কাপালির ৮০ ও নাঈম হাসানের অপরাজিত ৫১ রানের ইনিংস দুটি। ৩২ রানে ৫ উইকেট নেন সাইফুদ্দিন। দুটি করে উইকেট নেন মাশরাফি ও সৌম্য। মামুলি লক্ষ্যে টপ-অর্ডারে রান পেয়েছেন সবাই, কেবল সৌম্য সরকার ছাড়া। বিশ্বকাপের দলে জায়গা পাওয়া অন্য খেলোয়াড়রা যেখানে নিজেদের সামর্থ্যের পরিচয় দিয়েই যাচ্ছেন সেখানে বাঁ-হাতি এই ওপেনার যাচ্ছেন রান খরার মধ্য দিয়ে। শেষ দশ ম্যাচে কোন ফিফটি নেই। ৮৪ বলে ৪ বাউন্ডারি ও এক ছক্কায় ৭৭ রানে অপরাজিত থাকেন নাজমুল হোসেন শান্ত। মোহাম্মাদ মিথুন এসে ২৪ বলে অপরাজিত ৩৩ রান করে দ্রুত জয় নিশ্চিত করেন। দিনের আরেক ম্যাচে ফতুল্লায় মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। নাসির-তাইজুল-সানি-খালেদদের নিয়ন্ত্রিত বোলিং আঘাত হানে টপ অর্ডারে। শেষ দিকে দ্রুত উইকেট তুলে নিয়ে মোহামেডানকে ১৫৯ রানে গুটিয়ে দেন মোট ১৬ রানে ৪ উইকেট নেয়া তানবির হায়দার। সর্বোচ্চ ৫৬ রানের প্রতিরোধ আসে তুষার ইমরানের ব্যাট থেকে। ৯৯ বল হাতে রেখেই লক্ষ্য পূরণ করে শেখ জামাল। ৮৫ বলে অপরাজিত ৮৩ রানের ইনিংসের কারণে ম্যাসচেরা হন দলপতি ও উইকেটরক্ষক নুরুল হাসান। ১৪ রাউন্ড শেষে ১২ জয় ও ২ হারে ২৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রূপগঞ্জ। এক ম্যাচ বেশি হারায় ২ পয়েন্ট পিছিয়ে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন আবাহনী। ৯ জয় ও ৫ পরাজয়ে ১৯ পয়েন্ট নিয়ে তিনে শেখ জামাল। ৮টি করে জয় পয়েন্ট তালিকার পরের দুই দল প্রাইম ব্যাংক ও প্রাইম দোলেশ্বরের। ৬ জয় ও ৮ হারে সুপার সিক্সের ছয় নম্বর দল মোহামেডান।  প্রাইম দোলেশ্বর- রূপগঞ্জ, সাভার প্রাইম দোলেশ্বর : ৪৫ ওভারে ২০৫ (সাইফ ৩৭, সৈকত ৭২, তাইবুর ২৭, মাহমুদুল ২৫*; শহীদ ৩/৩৫, ধাওয়ান ২/৩২, তাসকিন ৪/৫৪)। রূপগঞ্জ : ৪৪.২ ওভারে ২০৮/৩ (মারুফ ৪১, শাহরিয়ার ১১৩*, নাঈম ৩২*; মানিক ১/৩২, এনামুল জুনিয়র ১/৪৯, সাইফ ১/৩৪)। ফল : লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ ৭ উইকেটে জয়ী। ম্যাচসেরা : শাহরিয়ার নাফীস।  মোহামেডানশেখ জামাল, ফতুল্লা মোহামেডান : ৪৪.৪ ওভারে ১৫৯ (লিটন ২৬, তুষার ৫৬; খালেদ ২/৩২, নাসির ১/২০, তাইজুল ১/৩৫, সানি ১/২৩, এনামুল হক ১/২৩, তানবীর ৪/১৬)। শেখ জামাল : ৩৩.৩ ওভারে ১৬৩/৩ (ইমতিয়াজ ৫৪, সানি ৮, তাইজুল ১, সোহান ৮৩*, মুনাবিরা ১৫*; শফিউল ১/১২, সোহাগ ১/২২, সাকলাইন ১/৩৬)। ফল : শেখ জামাল ধানম-ি ক্লাব ৭ উইকেটে জয়ী। ম্যাচসেরা : নুরুল হাসান সোহান।  প্রাইম ব্যাংক-আবাহনী, মিরপুর প্রাইম ব্যাংক : ৪৯.৩ ওভারে ২২৬ (কাপালী ৮০, নাঈম ৫১*; সাইফ ৫/৩২, মাশরাফি ২/৫০, সৌম্য ২/৪২, মিরাজ ১/৩৬)। আবাহনী : ৪৪.৪ ওভারে ২২৮/৪ (জহুরুল ২৪, সাব্বির ২৬, জাফর ৬৪, শান্ত ৭৭*, মিঠুন ৩৩*; নাঈম ২/৪৯, আরিফুল ১/২৭, রাজ্জক ১/৬৮)। ফল : আবাহনী ৬ উইকেটে জয়ী। ম্যাচসেরা : মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন