রোববার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৮ কার্তিক ১৪২৮, ১৬ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

দেশের প্রথম ১০তলা হোমিওপ্যাথিক মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল ভবন

চসিক মেয়রের প্রশংসনীয় উদ্যোগ

আইয়ুব আলী : | প্রকাশের সময় : ২১ এপ্রিল, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

চট্টগ্রাম মহানগরীর প্রাণকেন্দ্র কোতোয়ালী থানাধীন ফিরিঙ্গী বাজার মোড়ে দেশে প্রথম ১০তলা বিশিষ্ট হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল ভবন হচ্ছে। কর্ণফুলী নদীর উপক‚লে চসিক প্রদত্ত জায়গায় স্বাস্থ্যসম্মত মনোরম পরিবেশে নির্মিত হচ্ছে ডা. জাকির হোসেন সিটি কর্পোরেশন হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল।
স্বাস্থ্যসেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের প্রতিটি বিভাগে একটি করে হোমিও ডিগ্রী কলেজ প্রতিষ্ঠার ঘোষণার পর ”ট্টগ্রাম সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন এ হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালকে ১০ তলা ভবনে উন্নীত করার উদ্যোগ নেন।
চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম জানান, সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের আন্তরিক প্রচেষ্টায় ২ কোটি ৩৬ লাখ ২৫ হাজার টাকা ব্যয়ে হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ ভবন নির্মিত হচ্ছে। ইতোমধ্যে ৬তলা ভবনের নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে।
কলেজের অধ্যক্ষ ডা. মোহাম্মদ নুরুল আমিন বলেন, হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল ভবন নির্মাণের মাধ্যমে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন হোমিওপ্যাথিক জগতে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। তিনি শীঘ্রই নবনির্মিত ভবনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন।
চট্টগ্রামের কৃতী সন্তান হোমিও দার্শনিক অধ্যক্ষ ডা. জাকির হোসেন চৌধুরী ১৯৩৪ সালের ১ মার্চ নগরীর ফিরিঙ্গী বাজার এলাকায় হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালটি প্রতিষ্ঠা করেন। চসিক সূত্রে জানা যায়, স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন ক্রমে ১৯৯৭ সালে এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে তৎকালীন সিটি মেয়র এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী এ কলেজটি অধিগ্রহণ করেন।
২০১২ সালের বর্তমান অধ্যক্ষ ডা. মোহাম্মদ নুরুল আমিন নিয়মিত অধ্যক্ষ হিসাবে নিয়োগ প্রাপ্তির পর ২০১৩ সালে বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথি বোর্ডের পত্রানুযায়ী তার আবেদনের প্রেক্ষিতে সাবেক মেয়র এম মনজুর আলম ফিরিঙ্গী বাজার মোড়ে সাড়ে সাত গন্ডা জায়গা কলেজের নামে রেজিস্ট্রি প্রদান করেন। তিনি ওই বছরের ২১ নভেম্বর কলেজ ও হাসপাতাল ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।
অধ্যক্ষ জানান, কলেজেটিতে বর্তমানে ১৪জন অভিজ্ঞ শিক্ষকের তত্তাবধানে দিবা ও নৈশ বিভাগে ১ম বর্ষ হতে ৪র্থ (চূড়ান্ত) বর্ষ পর্যন্ত প্রায় ১২শ’ ছাত্র-ছাত্রী অধ্যয়ন করছে। ২০১৫-২০১৬ শিক্ষাবর্ষে এ কলেজ হতে বিভিন্ন বর্ষের শিক্ষার্থী মেধা-তালিকায় স্থান করে চট্টগ্রাম বিভাগের হোমিওপ্যাথিক কলেজ সমূহের মধ্যে প্রথম স্থান অধিকার করে।
এছাড়া অত্র কলেজ হতে প্রতি বছর শতাধিক ছাত্র ছাত্রী ডিএইচএমএস কোর্স সম্পন্ন করে বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে এবং পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে সুনামের সাথে হোমিও চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছে।
বাংলাদেশের পূর্বাঞ্চলের হোমিও ডিগ্রী কোর্স পড়–য়া ছাত্র-ছাত্রীদের প্রাণের দাবি পূরণ করতে অত্র কলেজে ডিগ্রী কোর্স চালুসহ ৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতাল চালু করতে মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন উদ্যোগ নিয়েছেন। ১৯৭২ সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান প্রথম ‘বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথি বোর্ড’ প্রতিষ্ঠা করেন। তারই উত্তরসূরী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হোমিওপ্যাথি বোর্ডের জন্য জায়গা প্রদান করেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন