ঢাকা, শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৫ ফাল্গুন ১৪২৬, ০৩ রজব ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

চাঁদাবাজি হলে দায় ওসিদের -সিএমপি কমিশনার

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৩০ এপ্রিল, ২০১৯, ৪:৪৯ পিএম | আপডেট : ৪:৫৮ পিএম, ৩০ এপ্রিল, ২০১৯

পবিত্র রমজানে কোনো মার্কেট বা শপিংমলে চাঁদাবাজি হবে না জানিয়ে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান বলেছেন, চাঁদাবাজি হলে তার দায় সংশ্লিষ্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের (ওসি) নিতে হবে। মঙ্গলবার নগরীর দামপাড়া পুলিশ লাইন্সে সিএমপি কমিশনার কার্যালয়ের কনফারেন্স হলে রমজান উপলক্ষে ব্যবসায়ী, পরিবহন মালিক ও শ্রমিক নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা শেষে এমন হুশিয়ারী দেন তিনি।
ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্যে সিএমপি কমিশনার বলেন, আপনাদেরকে দৃঢ়ভাবে বলতে চাই-কোনো মার্কেটে চাঁদাবাজি হবে না। চাঁদাবাজি হলে তাৎক্ষণিক মৌখিক বা ফোনে অভিযোগ জানাবেন, লিখিত অভিযোগ জানাতে হবে না। আমরা ব্যবস্থা নেবো।
ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্যে সিএমপি কমিশনার বলেন, নিজেদের নিরাপত্তা আগে নিজেদেরকেই নিশ্চিত করতে হবে। আপনি সিসিটিভি ক্যামেরা রাখবেন না, স্বেচ্ছাসেবক রাখবেন না; অপরাধ হলে পুলিশ আসামি ধরবে-এমন ভাববেন, তা এ যুগে চলবে না।
মার্কেটে আসা গাড়িগুলোর জন্য টোকেন সিস্টেম চালু করে কত সময় ধরে মার্কেটের পার্কিংয়ে অবস্থান করছে তা জানাতে ব্যবস্থা নেওয়ার পরামর্শ দেন তিনি। অতিরিক্ত সময় গাড়ি রাখলে তার জন্য ফি নেওয়ার পরামর্শও দেন সিএমপি কমিশনার।
ঈদের আগে যথাসময়ে গার্মেন্টস শ্রমিকদের বেতন-বোনাস পরিশোধ করতে মালিকদের প্রতি অনুরোধ জানান সিএমপি কমিশনার।
এ সময় সিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) আমেনা বেগম, উপ-কমিশনার (ট্রাফিক-উত্তর) হারুনুর রশিদ হাযারীসহ সিএমপির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, ব্যবসায়ী ও পরিবহন সংশ্লিষ্ট নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
ম নাছিরউদ্দীন শাহ ৩০ এপ্রিল, ২০১৯, ৭:০৯ পিএম says : 0
সম্মানিত কমিশনার মহোদয় সত্যিই কি ওসিদের চাদাঁ বাজীর দায়িত্ব নিতে হবে। বড় বড় প্রতিষ্ঠান মার্কেট এর চাদাঁবাজরা রাজনৈতিক ভাবে শক্তিশালী বিভিন্ন কলেজের ছাত্রনেতা সরকারি দলের নেতা। নিরভ চাদাঁবাজ প্রকাশ হয়না। রমজানের পবিত্রতা রমজানের সম্মানে খারাপ মানুষটি ও ভাল হয়। আমাদের দেশে সব বিপরীত ব্যবসায়ী সব জিনিসের দান বাড়িয়ে দেন। অথচ হওয়ার কথা রমজানের ছোয়াব পাওয়ার উদ্দেশ্যে দাম কমানো। সিসি টিভি ক্যামেরা অবশ্যকরণীয় জীবন্ত সাক্ষী। সত্যটি প্রকাশ পায়। মহান আল্লাহর তায়ালার ক্যামেরাই সকলের কণা পরিমাণ ভাল মন্দ দুই কাধের দুই পেরেস্তা জম্ম থেকে লিপিবদ্ধ করছে। দুনিয়ার শান্তির আশায় এই সব নীতিকথা শুনলে সভ্য সমাজের মানুষ হাসে। এবং মন্তব্য করেন নানাভাবে। আমি পুলিশের পক্ষেই বলি বলতে চেষ্টা করি। পুলিশ আছে বলেই আমরা শান্তিতে ঘুমাতে পারি। রাতদিন দেশ জাতির নিরাপত্তার ব্যস্ত থাকেন। রাজনৈতিক ভাবে সরকার ক্ষমতায়। পুলিশ বাস্তবে সত্যিকার আজিবন ক্ষমতাপ্রাপ্ত। এই আইন শৃংখলা বাহিনী যদি স্বাধীন ভাবে কাজ করতে পারতেন। সবার জন্য ভাল হতো। এইদিন কখনো কি আসবে ?
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন