ঢাকা, রোববার ২১ জুলাই ২০১৯, ০৬ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৭ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

শিক্ষাদিক্ষা

নোবিপ্রবি উপাচার্যকে সংবর্ধনা

দ্যা ফ্রেন্ড অব হিউম্যানিটি পদক অর্জন

নোয়াখালী ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১ মে, ২০১৯, ৭:৩৮ পিএম

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. এম অহিদুজ্জামান প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে জাপানের ‘তকুরঞ্জি এশিয়ান বুদ্ধিস্ট পিস অ্যাওয়ার্ড ২০১৯’ এবং ‘দ্যা ফ্রেন্ড অব হিউম্যানিটি’ পদক প্রাপ্তিতে সংবর্ধনা অনুষ্ঠান বিশ্ববিদ্যালয়ের হাজী ইদ্রিস অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় বক্তব্য রাখেন, নোবিপ্রবি কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফারুক উদ্দিন, বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. সেলিম হোসেন, প্রকৌশল অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ইউছুফ মিঞা, মানবিক ও সমাজ বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সৈয়্যদ আতিকুল ইসলাম, আইআইএস ইনস্টিটিউটের পরিচালক ড. আবদুল্লাহ আল মামুন, রেজিস্ট্রার প্রফেসর মো. মমিনুল হক, বিএলডব্লিএস বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. দিব্যদ্যুতি সরকার, ফিমস বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মেহেদি মাহমুদুল হাসান, সিএসটিই বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. নাহিদ আক্তার, শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. গাজী মো. মহসিন।

অফিসার্স এসোসিয়েশন এর সভাপতি ডা. মো. মোখলেস-উজ-জামান, সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান, সিএসটিই বিভাগের সহকারি অধ্যাপক কৌশিক চন্দ্র হাওলাদার, বিএলডব্লিএস বিভাগের সহকারি অধ্যাপক মোস্তাফিজুর রহমান, ফার্মেসি বিভাগের প্রভাষক সালাউদ্দিন মিল্লাত, কৃষি বিভাগের প্রভাষক রায়হান আহমেদ, কর্মকর্তাদের পক্ষে সেকশন অফিসার মেহেদি হাসান নিশান ও অলিউদ্দিন আহাদ, কর্মচারীদের পক্ষে মাহবুবুর রহমান রিপসন, শিক্ষার্থীদের পক্ষে সাদ্দাম হোসেন প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. গাজী মো. মহসিন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন রেজিস্ট্রার প্রফেসর মো. মমিনুল হক।
বক্তারা বলেন, নোবিপ্রবি উপাচার্যের ‘দ্যা ফ্রেন্ড অব হিউম্যানিটি পদক অর্জন’ গৌরব ও সম্মানের। এর মাধ্যমে উপাচার্য মহোদয় এ পরিবারের সকলের মুখ বিশ্বদরবারে উজ্জ্বল করেছেন। এছাড়াও বক্তারা আরো বলেন, প্রফেসর ড. এম অহিদুজ্জামান এর মতো দেশবরণ্যে শিক্ষাবিজ্ঞানী, সততা ও ন্যায়ের মূর্ত প্রতীক, বঙ্গবন্ধুর আদর্শের অগ্রসেনানির মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের সামগ্রিক কল্যাণ সাধিত হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ও চলমান ভৌত অবকাঠামোগত উন্নয়ন কর্মকা-ের ধারা অব্যাহত রাখতে উপাচার্য মহোদয় তার সমগ্র মেধা, সততা, নিষ্ঠা, সত্তা, শ্রম ও প্রজ্ঞা দিয়ে নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।

সংবর্ধিত অতিথি হিসেবে সংক্ষিপ্ত বক্তৃতায় উপাচার্য প্রফেসর ড. এম অহিদুজ্জামান বলেন, আমি আপনাদের প্রতি খুবই কৃতজ্ঞ। বিশ্ববিদ্যালয়ের দায়িত্ব নেয়ার পর আমি এখানে দাঁড়িয়ে বলেছিলাম নিজের সমস্ত মেধা, যোগ্যতা, সততা ও যোগাযোগ সক্ষমতা দিয়ে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়নে কাজ করবো। এখানকার শিক্ষার্থীরা আমাকে যে অকৃত্রিম ভালোবাসা দিয়েছে তার তুলনা হয় না। এ নোয়াখালীবাসি আমাকে যে বন্ধনে আবদ্ব করেছে, তা কখনো দাম দিয়ে কেনা যাবে না। গতকাল প্রখর রৌদ্রে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার ও গোলচত্বর ঘিরে শিক্ষার্থীদের অবস্থান আমাকে আপ্লুত করেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় তিন সহস্রাধিক শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ এতে স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করে। আমি সবাইকে কৃতজ্ঞতা জানাই।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন