শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২১ মাঘ ১৪২৯, ১২ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

খেলাধুলা

বৃথা গেল রাজিনের সেঞ্চুরি ম্যাচ উইনিং সেঞ্চুরিতে মাহামুদুল্লাহ’র মাইলস্টোন

প্রকাশের সময় : ২৭ মে, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বিশেষ সংবাদদাতা : লিস্ট ‘এ’ ম্যাচের সেঞ্চুরিতে মাহামুদুল্লাহ রিয়াদ উপহার দিয়েছেন সেঞ্চুরি। সিসিএস’র বিপক্ষে তার ১৩০ রানের ইনিংসে ভর করে শেখ জামাল জিতেছে বিশাল ব্যবধানে। গতকাল শেখ জামাল অধিনায়ক মাহামুদুল্লাহ সেঞ্চুরিতে লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে ৫ হাজারী ক্লাবের সদস্যপদ পেয়েছেন। লিস্ট ‘এ’ ক্যারিয়ারে তার ৬ষ্ঠ সেঞ্চুরির (১১৪ বলে ৫ চার ৩ ছক্কায় ১০৭) ম্যাচটি আবার অল রাউন্ড (৩/২৯) পারফরমেন্সে ভাস্বর। অধিনায়কের এমন অল রাউন্ড পারফরমেন্সে বিকেএসপিতে ব্রাদার্সের বিপক্ষে ১১ রানে জিতে সুপার লীগের পথে বাড়িয়েছে পা শেখ জামাল ধানমন্ডী ক্লাব (৮ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট)।
আসলেই দিনটি ছিল মাহামুদুল্লাহ’র। নিজে শুধু সেঞ্চুরিই করেননি, মার্শাল আইয়ুবকে সঙ্গে নিয়ে তৃতীয় জুটিতে ১১৯ রানের পার্টনারশিপে দিয়েছেন নেতৃত্ব। মার্শাল আইয়ুবের সাথে তার বোঝাপড়াটা ভালই। সিসিএস’র বিপক্ষে মাহামুদুল্লাহ’র সেঞ্চুরিতে উদ্বুদ্ধ মার্শাল আইয়ুবও করেছিলেন সেঞ্চুরি। গতকাল মাহামুদুল্লাহ’র সেঞ্চুরিময় ইনিংসের পাশে মার্শাল আইয়ুব করেছেন ফিফটি (৫৪)। শ্লগে বেপোরোয়া ব্যাট করেছেন মাহামুদুল্লাহ, শেষ ৬০ বলে ৭৫ রানেই শেখ জামাল পুঁজি পেয়েছে ২৫২/৮। জবাব দিতে এসে ১ম জুটির ৪৪ এবং দ্বিতীয় জুটির ১০০ রানে ভালই লড়েছে ব্রাদার্স। লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে মাহামুদুল্লাহ’র ৫ হাজারী ক্লাবের সদস্যপদের দিনে তুষার ইমরান পেয়েছেন ৪ হাজারী ক্লাবের সদস্যপদ। তবে তুষার ইমরান ৫৫ এবং ইমরুল কায়েস ৭০ রানে ফিরে যাওয়ায় কঠিন হয়েছে ব্রাদার্সের লড়াই। শেষ ৬০ বলে ৭০ রানের টার্গেট পেরুতে পারেনি, তাও আবার হাতে ৭ উইকেট নিয়েও। ৪৭তম ওভারে পেস বোলার শফিউল সাদিকুর এবং আসিফকে ফিরিয়ে দিলে লড়াই থেকে ছিটকে পড়ে ব্রাদার্স। এই হারে সুপার লীগের পথ কঠিন হয়ে গেল ব্রাদার্সের (৮ ম্যাচে ৮ পয়েন্ট)।
এদিকে ফতুল্লা স্টেডিয়ামে বৃথা গেছে সিসিএস অধিনায়ক রাজিনের সেঞ্চুরি। ১৩৮ বলে ১০৬ রানের ইনিংসে দলকে ২৪২/৭ পর্যন্ত টেনে নিয়েও নায়ক হতে পারেননি তিনি। বরং নার্ভাস নাইনটিজে (৯০) কাঁটা পড়েও ম্যাচের হিরো লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের মিডল অর্ডার মিঠুুনের ইনিংস। ৪র্থ জুটিতে ১২৭ রানের পার্টনারশিপে নেতৃত্ব দিয়েছেন তিনিই। শেষ ৬০ বলে ৬৮ রানের লক্ষ্যটা পাড়ি দিয়েছে লিজেন্ডস ১০ বল হাতে রেখে ৬ উইকেটে জিতে। এই জয়ে সুপার লীগের পথে এক পা এগিয়ে গেল লিজেন্ডস (৮ ম্যাচে ১১ পয়েন্ট)। হেরে অবনমনের শংকা তীব্র হলো সিসিএস’র (৮ ম্যাচে ২ পয়েন্ট)।

স ং ক্ষি প্ত স্কো র
শেখ জামালÑব্রাদার্স ইউনিয়ন
শেখ জামাল : ২৫২/৮ (৫০.০ ওভারে), মামুন ২৭, মার্শাল আইয়ুব ৫৪, মাহামুদুল্লাহ ১০৭, সোহাগ গাজী ১৭, নূর আলম ২/৩২, নাবিল সামাদ ১/৪৪, সনজিত ৩/৬৯, সাদিকুর ১/২৫, মিলিন্দ ১/৪৬।
ব্রাদার্স ঃ ২৪১/৮ (৫০.০ ওভারে), শাহরিয়ার নাফিস ২০, ইমরুল কায়েস ৭০, তুষার ইমরান ৫৫, মিলিন্দ ২০, আরমান ২৬, শফিউল ৩/৪০, মাহামুদুল্লাহ ৩/২৯, মোক্তার ১/৬১, সোহাগ গাজী ১/৩০।
ফল : শেখ জামাল ১১ রানে জয়ী।
ম্যান অব দ্য ম্যাচ : মাহামুদুল্লাহ (শেখ জামাল)।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন