ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০১৯, ০৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৭ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ইরানের সঙ্গে যুদ্ধ চায় না যুক্তরাষ্ট্র যুদ্ধ হবে না বললেন খামেনিও

ইনকিলাব ডেস্ক : | প্রকাশের সময় : ১৬ মে, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেছেন, সা¤প্রতিক সময়ে ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে বিবাদ চরমে উঠলেও দেশটির সঙ্গে যুদ্ধে জড়াতে চায় না ওয়াশিংটন। মঙ্গলবার রাশিয়ার সাশি শহরে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভের সঙ্গে এক বৈঠকে পম্পেও এ কথা বলেন বলে বিবিসির প্রতিবেদনে প্রকাশ। পম্পেও বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র চায় ইরান স্বাভাবিক একটি দেশের মতন আচরণ করুক। অন্যথায় নিজেদের কোনো স্বার্থ বিঘ্নিত হলে যুক্তরাষ্ট্র তার প্রতিক্রিয়া দেখাবে।’ যুক্তরাষ্ট্র মূলত ইরানের সঙ্গে যুদ্ধ করতে চায় না উল্লেখ করে পম্পেও বলেন, ‘আমরা ইরানকে এটাও স্পষ্ট করে জানিয়েছি যে যুক্তরাষ্ট্রের স্বার্থ আক্রান্ত হলে, নিশ্চিতভাবেই আমরাও স্বাভাবিক প্রতিক্রিয়া দেখাব।’ অন্যদিকে ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনিও জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে কোনো যুদ্ধ হবে না। ‘আমরা কোনো যুদ্ধ চাই না, তারাও (যুক্তরাষ্ট্র) নয়,’ বলেন ইরানের এই সর্বোচ্চ নেতা। রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম ও টুইটারে নিজের অ্যাকাউন্টে খামেনি ইরানের অবস্থান পুনর্ব্যক্ত করে বলেন, ‘ইরান আগের পরমাণু চুক্তির জায়গায় নতুন কোনো চুক্তির মধ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আপস করবে না।’ গত বছর নিজেদের প্রত্যাহার করা চুক্তিতেই যুক্তরাষ্ট্রকে ফিরতে হবে বলে জানান তিনি। এর আগে গত সোমবার ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি আলেমদের সঙ্গে হওয়া এক বৈঠকে বলেন, ‘ইরান অন্য কোনো দেশকে অনুসরণ করার মতো সামান্য নয়। আল্লাহ চায় তো আমরা শত্রুদের পরাজিত করে বিজয়ীর বেশে মাথা উঁচু করে এই আপৎকালীন সময় পার হয়ে যাব।’ এদিকে যুক্তরাষ্ট্র ইরান আক্রমণের জন্য মধ্যপ্রাচ্যে এক লাখ বিশ হাজার মার্কিন সৈন্য পাঠানোর পরিকল্পনা করছে। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদমাধ্যম নিউইয়র্ক টাইমসের এমন এক প্রতিবেদন নাকচ করে দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ট্রাম্প ওই প্রতিবেদনের প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ‘আমরা এমন কোনো পরিকল্পনা করিনি। আশা করি, তেমন কোনো পরিকল্পনা আমাদের করতে হবে না। আর তেমন কিছু যদি করতেই হয়, তাহলে আমরা আরো অনেক বেশি সৈন্য পাঠাব।’ এর একদিন আগে ট্রাম্প ইরানকে দুই দেশের মধ্যে চলমান উত্তেজনা বৃদ্ধির সূত্র ধরে হুঁশিয়ার করে বলেন, ‘ইরান যদি অস্বাভাবিক কিছু করে, তাহলে তাদের ভয়ংকরভাবে ভুগতে হবে।’ ইরান ২০১৫ সালে ছয় পারমাণবিক ক্ষমতাধর দেশের সঙ্গে আন্তর্জাতিক পারমাণবিক চুক্তি স্বাক্ষর করেছিল। গত বছর যুক্তরাষ্ট্র ইরানের সঙ্গে করা ওই পারমাণবিক কর্মসূচি বা জয়েন্ট কমপ্রিহেনসিভ প্ল্যান অব অ্যাকশন (জেসিপিওএ) থেকে বেরিয়ে যায় এবং তার পর থেকে ইরানে পুনর্বার অর্থনৈতিক অবরোধ আরোপ করে। শুধু তাই নয়, ওই চুক্তিতে থাকা ইউরোপীয় মিত্র দেশগুলোকেও তারা ওই অবরোধে শামিল হওয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করছে। যদিও যুক্তরাষ্ট্র ছাড়া সবাই এই পারমাণবিক চুক্তিটি রাখার পক্ষে। এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের চলমান অর্থনৈতিক অবরোধ, ইরানের রেভল্যুশনারি গার্ডকে ‘সন্ত্রাসী’ হিসেবে তালিকাভুক্ত করা ও বিভিন্ন উস্কানির মুখে স¤প্রতি ইরান আবারও নিজের পারমাণবিক কর্মসূচি শুরু করবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছে। সিএনএন, রয়টার্স, বিবিসি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (9)
Asis M A Hasem ১৬ মে, ২০১৯, ১:৩৪ এএম says : 0
USA should behave like a civilized country. World most terrorist nation is USA. They protect all the terrorist country like Israel as well as IS, PKK.
Total Reply(0)
Nurur Rahman ১৬ মে, ২০১৯, ১:৩৪ এএম says : 0
"ইরান একটি স্বাভাবিক দেশের মতো আচরণ করবে বলে আশা করে যুক্তরাষ্ট্র।" -------- সমগ্র বিশ্ব আশা করে যুক্তরাস্ট্র তাদের নিজেদের অস্বাভাবিক আচরণ শুধরে নেবে।
Total Reply(0)
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ১৬ মে, ২০১৯, ১:৩৪ এএম says : 0
"স্বাভাবিক দেশের মতো আচরণ করবে বলে আশা করে যুক্তরাষ্ট্র" তো স্বাভাবিক যে সব দেশ আছে তারা তো অন্য দেশে তেল বিক্রি করতে পারে। ইরান তো সেটা করতে পারছে না তাহলে কিভাবে তাদের পক্ষে স্বাভাবিক থাকা সম্ভব?
Total Reply(0)
সোলায়মান ১৬ মে, ২০১৯, ১:৩৫ এএম says : 0
তাইলে যুদ্ধ জাহাজ পাঠাইছেন ক্যান?
Total Reply(0)
বিপ্লব ১৬ মে, ২০১৯, ১:৩৫ এএম says : 0
আমেরিকা র ট্রাম্প প্রশাসন টাউট , এরা ‘ মুগুরে ‘ ই ভালো থেকে ও কাজ করে। ১. চীনের সাথে বাণিজ্য যুদ্দে তীরে এসে তরী ডুবালো ট্রাম্প, বিভিন্ন ভাবে টাউট করা, হুমকি ধামকি। এর পর যখন চীন উল্টা তারিফ দিলো , ট্রাম্প শিয়ালের মতো লেজ গুটিয়ে দৌড়। নতুন করে বিভন্ন টুইট বার্তাতে টাউট শুরু। ২. ইরানকে রসাতলে দিবে। ট্রাম্প এর দরকার আমেরিকার সেল গ্যাস কে অবমুক্ত করা। কেবল ক্রুড অয়েলের দাম বাড়লেই সেটা সম্ভব। তাই তাদের দোসর সৌদিকে নিয়ে মিডোলিস্ট এ উত্তেজনা বাড়াতে সব অপকর্ম শুরু করছে। যখন ইয়ামেন সৌদি পাইপ লাইনে বোমা মারলো, জাহাজে বোমা মারলো , তখন আবার সেই শিয়াল এর মত লেজ গুটিয়ে দৌড় , মিন মিন করে আজ বললো তারা ইরানের সাথে যুদ্ধ চায় না !! এই হলো আমেরিকার প্রশাসন , টুইট হলো এদের মুখপত্র !!
Total Reply(0)
Nurun Nabi ১৬ মে, ২০১৯, ১:৩৫ এএম says : 0
But Israel want.
Total Reply(0)
AR Rubel ১৬ মে, ২০১৯, ১:৩৬ এএম says : 0
বাবা ইসরায়েলকে রক্ষা করতে যুদ্ধ চায় না।যুদ্ধ করলেই বাবা ইসরায়েল বিশ্ব মানচিত্র থেকে মুচে যাবে।
Total Reply(0)
AR Rubel ১৬ মে, ২০১৯, ১:৩৬ এএম says : 0
ইর‌া‌নের সা‌থে যুদ্ধ হ‌বে তো‌দের ঐ‌তিহা‌সিক ভূল । কারন ইরানের "গাদর" ক্ষেপনাস্র তো‌দের উপকূ‌লে আঘাত কর‌তে সক্ষম । আর ইরানী ডু‌বোজাহাজগু‌লো তো‌দের NATO অ‌ধিনায়ক প্য‌ট্রিক কুত্তার ম‌তে সনাক্ত করা খুব মুশ‌কিল । কার এগু‌লোর ৯০%এর সাইজ হল ৪৫ ফুট বাই ১৮ ফুট । যাহা দেখ‌তে বড় মা‌ছের মত । আর স্বল্পপাল্লার ক্ষেপনাস্রবাহী স্পীড‌বোটগু‌লো তো ভারী চমৎকার । এছাড়া ২৬৭টি কাওসার বিমান ও ৮৯টি F16 তো আরও দারুন অবস্থায় র‌য়ে‌ছে। রা‌শিয়া থে‌কে ""সু"" বিমান পে‌লেই তো‌দের B52 বিমা‌নের বা‌রটা বাজা‌বে । এছাড়া র‌য়ে‌ছে আকাশ প্র‌তিরক্ষা ব্যবস্থা S300 এবং S400 । এগু‌লো ফা‌কি দেয়া তো‌দের মত ইহুদীর প‌ক্ষে প্রায় অসম্ভব । তাই যুদ্ধ শুরু হ‌লে তো‌দের মত জারজ সন্তানরাও নিরাপ‌দে হোয়াইট হাউ‌হে ব‌সে থাক‌তে পার‌বি না । তোরা ৩য় বিশ্বযু‌দ্ধের মু‌খোমু‌খি এখন ।
Total Reply(0)
mahbubur rahman babu ১৬ মে, ২০১৯, ৩:৫৬ এএম says : 0
নেতাহীন মুসলিম বিশ্ব ।সবাই নিজেদের স্বারথঅ নিয়ে বেস্ত ।
Total Reply(0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন