ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০১৯, ০৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৭ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

সারা বাংলার খবর

কৃষক-শ্রমিক অধিকার পাচ্ছে না মানববন্ধনে ডাকসু ভিপি নুর

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার : | প্রকাশের সময় : ১৬ মে, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

বেশি উৎপাদনের কারণে নয় বরং সিন্ডিকেটের কারণে ধানের দাম কমে যাচ্ছে। চালকল মালিকরা পরিকল্পিতভাবে মূল্য কমিয়ে দিয়েছে। সরকারের এ ক্ষেত্রে কোনো নজরদারি নেই। তাই ইদের আগেই শ্রমিকদের মজুরি এবং ধানের ন্যায্য মূল্য নিশ্চিত করার জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানিয়েছেন ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুর। প্রয়োজনে একটি কমিটি করার মাধ্যমে কৃষক-শ্রমিকদের অধিকার নিশ্চিতের আহবান জানান তিনি।
গতকাল বুধবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে আয়োজিত এক মানববন্ধনে এসব কথা বলেন তিনি। বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের ব্যানারে ধানসহ সকল কৃষিপণ্যের ন্যায্যমূল্য নির্ধারণ, কৃষিখাতে পর্যাপ্ত ভর্তুকি প্রদান এবং এব মধ্যস্বত্ত¡ভোগীদের দৌরাত্ম্য কমিয়ে নিয়ে আসার দাবিতে এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।
মানববন্ধনে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের আহ্বায়ক হাসান আল মামুন ও ডাকসুর সমাজসেবা সম্পাদক আখতার হোসেনসহ দুই শতাধিক শিক্ষার্থী অংশগ্রহন করে।
ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুর বলেন, ‘যাদের উৎপাদিত পণ্য খেয়ে বেঁচে আছি তাদের সঠিক মূল্য আমরা দিতে পারছি না। মন্ত্রীরা বক্তব্য দিচ্ছেন ধান বেশি হওয়ায় দাম কমে যাচ্ছে। অথচ চালের দাম ঠিকই বেশি।
তিনি বলেন, ‘খুলনায় পাটকল শ্রমিকরা বকেয়া মজুরির দাবিতে আন্দোলন করছেন। সেখানে সরকার বাধা দিয়েছে। কোনো শ্রমিক সংগঠন বা সরকার তাদের পাশে দাঁড়ায়নি। রাজনৈতিক দলগুলো সাধারণ মানুষের পালস বোঝে না। আমরা কৃষকসহ সকল শ্রমিক, মেহনতি মানুষের পাশে আছি। প্রয়োজনে তাদের অধিকার রক্ষায় পাশে থাকব। এজন্য প্রয়োজনে লংমার্চ করা হবে।
ডাকসুর ভিপি আরও বলেন, যে সরকার যখনই ক্ষমতায় থাকে সিন্ডিকেটের অধিকার রক্ষায় ব্যস্ত থাকে। কৃষকদের রক্ষায় কোনো পদক্ষেপ নেয় না। নিলে ছাত্রসমাজকে এভাবে মাঠে নামতে হতো না।’
ডাকসুর সমাজসেবা সম্পাদক আখতার হোসেন বলেন, ‘আমি ছাত্র, আমি কৃষক পরিবারের সন্তান। এক মণ ধানের দাম ৪৫০-৫০০ টাকা। এই ধান থেকে চাল হয় ১২০০ টাকার। ৭০০ টাকা তারা খেয়ে ফেলছে। সিন্ডিকেট এই টাকা মেরে দিচ্ছে। অথচ বীজ উৎপাদন থেকে শুরু করে ধান উৎপাদন পর্যন্ত কৃষকদের কী পরিমাণ কষ্ট করতে হয় তা আমরা জানি। এর ন্যায্য মূল্য না পাওয়ার দায় রাষ্ট্রের।’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন