বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ১৬ আষাঢ় ১৪২৯, ২৯ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

অভ্যন্তরীণ

প্রধান দুই দলের কোন্দলে এগিয়ে বিদ্রোহীরা

বাসাইলের ৪ ইউনিয়ন

প্রকাশের সময় : ২৮ মে, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বাসাইল (টাঙ্গাইল) উপজেলা সংবাদদাতা
আজ অনুষ্ঠিতব্য ইউপি নির্বাচনে টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলার ৪টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এতে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। নির্বাচনকে সুষ্ঠু করতে সার্বিক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে স্থানীয় প্রশাসন। নির্বাচনে প্রায় প্রতিটি ইউনিয়নেই আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীরা দলীয় প্রার্থীর চেয়ে ভাল অবস্থানে রয়েছে বলে এলাকাবাসীর দাবি। এদিকে ইউপি নির্বাচনে প্রার্থী মনোয়নকে কেন্দ্র করে উপজেলা বিএনপির আভ্যন্তরীণ কোন্দল প্রকাশ্য রূপ নিয়েছে। ফলে বিএনপি অধ্যুষিত বাসাইল উপজেলার ইউনিয়নগুলোর মধ্যে অন্তত দুইটিতে দলীয় প্রার্থীদের ভরাডুবির আশঙ্কা রয়েছে বলে এলাকা সূত্রে জানা গেছে। আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর সমস্যা ও বিএনপির দলীয় প্রার্থী নির্বাচনের জটিলতার কারণে অন্তত দু’টি ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা ভাল অবস্থানে রয়েছে বলে ৪টি ইউনিয়ন ঘুরে জানা গেছে। এদিকে উপজেলা ৪টি ইউনিয়নের ভোটাররা সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে শংকায় রয়েছে। ফুলকী ইউনিয়ন : এ ইউনিয়নে বিএনপির জাহিদুল ইসলাম বাবুল (ধানের শীষ), আওয়ামী লীগের শাহিন তালুকদার (নৌকা), স্বতন্ত্র প্রার্থী শামসুল আলম বিজু (আনারস) আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী আব্দুস সালাম খান (ঘোড়া), আমিনুল ইসলাম (মোটর সাইকেল) ও আব্দুর রাজ্জাক খান (চশমা) প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। এখানে আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুস সালাম খান (ঘোড়া) শামসুল আলম বিজু (আনারস) ও বিএনপির জাহিদুল ইসলাম বাবুল (ধানের শীষ)র মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে বলে ভোটারদের ধারণা। এ ইউনিয়নের মোট ভোটার ২৪ হাজার ৭৬৯ জন। কাউলজানী ইউনিয়ন : এ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে মোট ৪ জন প্রার্থী রয়েছে। তারা হচ্ছে, আওয়ামী লীগের হাবিবুর রহমান চৌধুরী হবি (নৌকা), বিএনপির আবু বকর সিদ্দিক (ধানের শীষ), কৃষক-শ্রমিক জনতা লীগের ওয়াজেদ আলী মাস্টার (গামছা) ও আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী নজরুল ইসলাম (আনারস)। এখানে হাবিবুর রহমান চৌধুরী (নৌকা), আবু বকর সিদ্দিক (ধানের শীষ) ও নজরুল ইসলাম (আনারস)’র মধ্যে ত্রিমুখী লড়াই হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এ ইউনিয়নে ভোটার সংখ্যা ১৬হাজার ৬৪১জন। কাঞ্চনপুর : এ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মো. আওলাদ হোসেন খান আদিল  (নৌকা), বিএনপির মাসুদুর রহমান বিপ্লব (ধানের শীষ), স্বতন্ত্র প্রার্থী মামুন অর রশিদ খান (মোটর সাইকেল) ও আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী আব্দুস সামাদ ফারুখ (আনারস) প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। এখানে স্বতন্ত্র প্রার্থী মামুন অর রশিদ খান (মোটর সাইকেল), মো. আব্দুস সামাদ ফারুক  (আনারস), মাসুদুর রহমান বিপ্লব (ধানের শীষ) ও মো. আওলাদ হোসেন খান আদিল (নৌকা)র মধ্যে চতুর্মুখী প্রতিদ্বন্দ্বিতা হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এ ইউনিয়নে ভোটার সংখ্যা হচ্ছে ১৯হাজার ৬৮০  জন। হাবলা ইউনিয়ন : এ ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী মো. খোরশেদ আলম (নৌকা), বিএনপির মনোনীত প্রার্থী সৈয়দ নিজামুল ইসলাম (ধানের শীষ), ও স্বতন্ত্র প্রার্থী খন্দকার আরিফুল ইসলাম নাজির  (আনারস), মো. আলী আজম (ঘোড়া), মো. মেহেদী হাসান মিয়া (মোটর সাইকেল) প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করছেন। এখানে মো. খোরশেদ আলম (নৌকা) ও সৈয়দ নিজামুল ইসলাম (ধানের শীষ)র মধ্যে দ্বিমুখী প্রতিদ্বন্দ্বিতা হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এ ইউনিয়নে ভোটার হচ্ছে ২৪ হাজার ৭৯৪ জন। উল্লেখ্য, উপজেলার বাসাইল সদর ও কাশিল ইউনিয়নে সীমানা সংক্রান্ত মামলা জটিলতার কারণে নির্বাচন হচ্ছে না।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps