ঢাকা, মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০১৯, ১১ আষাঢ় ১৪২৬, ২১ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

সারা বাংলার খবর

শ্রমিকদের মানববন্ধনে মনজুরুল আহসান খান

ইসলামে ঘাম শুকানো আগে মজুরি দেয়ার নির্দেশনা আছে

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ মে, ২০১৯, ১২:২৫ এএম

ঈদের আগেই সব পাটকল শ্রমিকদের বেতন-ভাতা পরিশোধ করার দাবি জানিয়েছেন শ্রমজীবী ও শিল্প রক্ষা আন্দোলনের আহŸায়ক কমরেড মনজুরুল আহসান খান। তিনি বলেন, রমজান মাস। সবাই রোজা রেখেছেন। ইসলাম ধর্মে বলা হয়েছে শ্রমিকের ঘাম শুকানোর আগেই তার মজুরি পরিশোধ করতে হবে। কিন্তু আজকে সেই শ্রমিককে ঘাম শুকানো তো দূরের কথা, মরে কঙ্কাল শুকিয়ে যাওয়ার পরেও তার পাওনা মজুরি দেয়া হচ্ছে না। গতকাল রাজধানীর মতিঝিলে বাংলাদেশ পাটকল করপোরেশনের (বিজেএমসি) সামনে শ্রমজীবী ও শিল্প রক্ষা আন্দোলনের উদ্যোগে আয়োজিত মানববন্ধনে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন।
সিপিবির সাবেক সভাপতি মনজুরুল আহসান খান বলেন, পাটকল শ্রমিকরা বকেয়া মজুরির দাবিতে যে আন্দোলন করছে, তা অত্যন্ত যৌক্তিক ও ন্যায্য। পাটকল শ্রমিকদের পরিবার যেন ঈদ আনন্দ থেকে বঞ্চিত না হয়, তাই রোজার মধ্যেই তাদের বেতন-ভাতা পরিশোধ করতে হবে। এর জন্যে প্রয়োজন হলে আমরা বাংলাদেশের সব শ্রমিক-কর্মচারী নিয়ে ধর্মঘট করে পাটকল শ্রমিকদের বকেয়া বেতন আদায় করবো। তিনি আরো বলেন, দেশে বৈষম্য চরম পর্যায়ে গেছে। বৈষম্যের বারুদের স্তূপের উপর আমরা দাঁড়িয়ে আছি। যে কোনো সময় বিস্ফোরণ ঘটে আমাদের সব অর্জন ধ্বংস হয়ে যেতে পারে। বৈষম্য দূর করাটা সরকারের প্রধান কর্তব্য।
মনজুরুল আহসান বলেন, শ্রমিকদের অনেক টাকা বকেয়া রাখা হয়। পাটকল ছাড়া গার্মেন্টস শ্রমিকরাও বকেয়া বেতনের দাবিতে রাস্তায় লড়াই করতে বাধ্য হচ্ছেন। এই যে অবস্থা, এই অবস্থা থেকে মুক্তি কিভাবে হবে। তিনি বলেন, পাটকল শ্রমিকদের দাবি এতই ন্যায্য যে সরকারও সেটি মেনে নিয়ে লিখিত একটি চুক্তির পক্ষে স্বাক্ষর করেছিলেন। আমাদের মন্ত্রীও (মুন্নুজান সুফিয়ান) তাতে স্বাক্ষর করেছেন। কিন্তু সেই চুক্তি আজও বাস্তবায়ন হয়নি। মানববন্ধন শেষে ২০ রমজানের আগেই শ্রমিকদের বকেয়া মজুরি পরিশোধের দাবিতে বিজেএমসির চেয়ারম্যানকে একটি স্মারকলিপি দেয়া হয়।
মানববন্ধনে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন শ্রমজীবী ও শিল্প রক্ষা আন্দোলনের সদস্য সচিব হারুনুর রশীদ ভূইয়া, জলি তালুকদার, মোকাদ্দেস হোসেন, রফিকুল ইসলাম পথিক, মাহতাবউদ্দিন শহীদ, আ. কাদের হাওলাদার, শাহাবুদ্দিন আহমেদ প্রমুখ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন