ঢাকা, সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ০৪ ভাদ্র ১৪২৬, ১৭ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

আন্তর্জাতিক সংবাদ

মুসলিমদের ওপর সহিংসতায় শ্রীলঙ্কা-পাকিস্তান বাণিজ্য বন্ধ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ মে, ২০১৯, ৪:৩১ পিএম

সম্প্রতি শ্রীলঙ্কায় সন্ত্রাসী হামলার পর থেকে দেশটির মুসলিম সম্প্রদায়ের ওপর ক্রমবর্ধমান হামলা চলছে। যার প্রভাব পড়েছে পাকিস্তানের সাথে বাণিজ্যিক সম্পর্কে। বর্তমানে পাকিস্তান থেকে শ্রীলঙ্কায় পন্য আমদানি বন্ধ হয়ে রয়েছে। খবর দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, পাকিস্তান থেকে বেশিরভাগ পণ্য আমদানি করে থাকে শ্রীলঙ্কার মুসলিম সম্প্রদায়ই। তারাই পাকিস্তানি রফতানিকারকদের সহযোগী। কিন্তু সাম্প্রতিক সহিংসতায় তাদের অনেকেরই ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

পাকিস্তান-শ্রীলঙ্কা বিজনেস ফোরামের চেয়ারম্যান আসলাম পাখালি বলেন, শ্রীলঙ্কার মুসলিম সম্প্রদায়ই মূলত পাকিস্তানি পণ্যগুলো আমদানি ও বিক্রি করে। তাদের দোকান, সুপার স্টোর ও গোডাউনে হামলা চালানো হচ্ছে। পাকিস্তান থেকে আমদানি করা পণ্যগুলো শ্রীলঙ্কার বিমানবন্দরে রাখা হয়েছে। কিন্তু আমদানিকারকরা তা সেখান থেকে নিচ্ছে না। বেশিরভাগ পণ্য, বিশেষ করে সবজি ও ফল বিমানবন্দরে থেকে নষ্ট হচ্ছে। শ্রীলঙ্কার আইন শৃঙ্খলার দুরাবস্তার কারণেই এমনটা হচ্ছে। তিনি বলেন, পাকিস্তানি চাল ও পোশাকজাত পণ্যের বড় আমদানিকারকদের একটি শ্রীলঙ্কা। পাকিস্তান থেকে শ্রীলঙ্কায় চাল ও পোশাক রফতানি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। কমে গেছে আলু রফতানিও। এমতাবস্থায়, শ্রীলঙ্কার রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে আলোচনা করেছে পাকিস্তানের একটি প্রতিনিধিদল। তারা শ্রীলঙ্কার মুসলিম সম্প্রদায়কে সুরক্ষা প্রদানের আহ্বান জানিয়েছে। পাশাপাশি গত ইস্টার সানডেতে দেশটির চার চার্চ, তিন হোটেল ও এক বাড়িতে হওয়া সন্ত্রাসী হামলার প্রতি নিন্দা জানিয়েছে।

পাখালি জানান, এখন পর্যন্ত স্থানীয়দের হামলায় মুসলিম সম্প্রদায়ের আনুমানিক ৫০ কোটি ডলারের মতো লোকসান হয়েছে। এছাড়া, পাকিস্তানি রফতানিকারকদের ৩ কোটি ডলারের মতো অর্থ পরিশোধ করা বাকি রয়েছে। তিনি আরো জানান, শ্রীলঙ্কায় পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত দুই দেশের মধ্যে বন্ধই থাকবে বাণিজ্য। এতে চলতি অর্থবছরের শেষ প্রান্তিকে রফতানি লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে কঠিন পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হবে পাকিস্তানকে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন