ঢাকা, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬, ১৬ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

জাতীয় সংবাদ

সুনির্দিষ্ট অভিযোগ ছাড়া মহাসড়কে বাস না থামানোর নির্দেশ

পুলিশ সদর দফতরে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বৈঠক

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২২ মে, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

ঈদে মহাসড়কে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ ছাড়া কোনো যানবাহন থামানো যাবে না। মহাসড়কে সব ধরনের চাঁদাবাজি বন্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার পাশাপাশি জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করতে হবে। সড়কসহ অন্যান্য নিরাপত্তায় নিরাপত্তায় হাইওয়ে ও থানা পুলিশ, বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের নেতা এবং কমিউনিটি পুলিশের সমন্বয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।
গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে পুলিশ সদর দফতরে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে এক বৈঠকে এ সব নির্দেশ দিয়েছেন আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী। বৈঠকে পুলিশের বিভিন্ন ইউনিট প্রধান, সকল পুলিশ কমিশনার, রেঞ্জ ও হাইওয়ে পুলিশ এবং বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, বৈঠকে আইজিপি মহাসড়কের গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট সিসি ক্যামেরার আওতায় এনে নিরাপত্তা নিশ্চিত করার নির্দেশনা দেন। এছাড়া মহাসড়কে নসিমন, করিমন, ভটভটি, ইজিবাইক ইত্যাদি যানবাহন চলাচল বন্ধ রাখার ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন। এছাড়া দেশের প্রধান প্রধান ঈদ জামাত স্থলে সুইপিং এবং আর্চওয়ে স্থাপন। গুরুত্বপূর্ণ ঈদ জামাতস্থলের ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করার জন্য ট্রাফিক পুলিশের পাশাপাশি প্রয়োজনে স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ করার নির্দেশ দেয়া হয়। এছাড়া বাস ও লঞ্চ টার্মিনাল এবং রেলস্টেশনে টিকিট কালোবাজারি প্রতিরোধ, অজ্ঞান ও মলম পার্টির অপতৎপরতা বন্ধ এবং চুরি ও ছিনতাই রোধে পোশাকধারী পুলিশের পাশাপাশি সাদা পোশাকে পুলিশ মোতায়েন করে নিি্চিদ্র নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে। এক্ষেত্রে মেট্রোপলিটন, জেলা, হাইওয়ে ও নৌপুলিশ সমন্বিতভাবে নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলা হয়েছে। সভায় ব্যাংক ও অর্থ লগ্নিকারী প্রতিষ্ঠানের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা এবং বড় অঙ্কের আর্থিক লেনদেনের ক্ষেত্রে মানি এস্কর্ট প্রদানেরও সিদ্ধান্ত হয়েছে। জঙ্গি ও উগ্রপন্থিদের তৎপরতা রোধে গোয়েন্দা কার্যক্রম বৃদ্ধি ও সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয়েও বৈঠকে আলোচনা হয়েছে।
সভায় পুলিশ কর্মকর্তাদের উদ্দেশে আইজিপি বলেন, রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বড় বড় শপিংমলে পোশাকধারী পুলিশের পাশাপাশি নারী পুলিশ ও সাদা পোশাকে পুলিশ মোতায়েনের মাধ্যমে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। মার্কেটে সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন, হ্যান্ড মেটাল ডিটেক্টরের মাধ্যমে নিরাপত্তা তল্লাশি এবং বড় বড় শপিংমলে আর্চওয়ে ব্যবহারের নিশ্চিত করতে হবে।
আইজিপি আরও বলেন, ঈদের ছুটিতে বসতবাড়ি, ফ্ল্যাট এবং অ্যাপার্টমেন্টে নিরাপত্তা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে টহল বাড়াতে হবে। সকল প্রকার গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা এবং কেপিআইসমূহের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার, পর্যটন স্পট বিশেষ করে বিনোদন কেন্দ্র, পার্ক, সিনেমা হল ও অন্যান্য জনসমাগমস্থলে প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। ট্যুরিস্ট পুলিশ দেশের গুরুত্বপূর্ণ ট্যুরিস্ট স্পটসমূহে হেল্প ডেস্ক স্থাপন করবে। জঙ্গি ও উগ্রপন্থীদের তৎপরতা রোধে গোয়েন্দা কার্যক্রম বৃদ্ধি ও সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন তিনি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন