ঢাকা, বুধবার ২৬ জুন ২০১৯, ১২ আষাঢ় ১৪২৬, ২২ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

জাতীয় সংবাদ

দলবেঁধে পাঁচ দিন ধরে কিশোরীকে ধর্ষণ

শিকার আরো ৩ আটক ৬

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ মে, ২০১৯, ১২:০২ এএম

বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে টানা পাঁচদিন ধরে এক কিশোরীকে গণধর্ষণ করেছে কথিত প্রেমিক ও তার বন্ধুরা। এমন নৃশংস ঘটনা ঘটেছে কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে। গাজীপুরে স্কুলছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা ও টাঙ্গাইলের নাগরপুরে ৯ম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ফরিদপুরে নিজের মেয়েকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে বাবাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এছাড়া মাদারীপুরে অভিযুক্ত সেই পুলিশ সদস্য, ফেনীর সোনাগাজীতে বিয়ের প্রলোভনে এক তরুণীকে ধর্ষণ মামলায় একজন সহ বিভিন্ন স্থানে ৬ জনকে আটক করেছে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী
কিশোরগঞ্জ : কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক কিশোরীকে (১৫) পাঁচদিন বিভিন্ন জায়গায় নিয়ে গণধর্ষণ করেছে কথিত প্রেমিক ও তার বন্ধুরা। এ ঘটনায় সহায়তা ও ধামাচাপায় জড়িত থাকার অভিযোগে কটিয়াদীর লোহাজুরি ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আব্দুর রশিদকে (৩৫) গতকাল মঙ্গলবার সকালে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আর এ ঘটনায় কিশোরীর বাবা সোমবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে কটিয়াদী মডেল থানায় চার জনের নাম উল্লেখ করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করেন।
কিশোরীর পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত বুধবার রাত সাড়ে আটটার সময় সুমন মেয়েটিকে ফোন করে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে বাড়ি থেকে বের করে আনে। পরে সুমন ও তার বন্ধু লোহাজুরি ইউনিয়নের দশপাখি গ্রামের জুলহাস উদ্দিনের ছেলে শোভন (২৩) মোটরসাইকেলে করে পূর্বচর পাড়তালা গ্রামের একটি নির্মাণাধীন দোতলা বাড়ির নিচতলায় একটি কক্ষে নিয়ে যায়। পরে রাতে কথিত প্রেমিক সুমন, শোভন ও পূর্বচর পাড়াতলার গিয়াস উদ্দিনের ছেলে শামীম (২৫) দলবেঁধে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে। ওই রাতেই তারা স্থানীয় ইউপি সদস্য রশিদের সহযোগিতায় মেয়েটিকে পার্শ্ববর্তী পাকুন্দিয়া উপজেলার একটি নির্জন বাড়িতে নিয়ে যায়। এরপর আরও তিনদিন ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করা হয়। গত রোববার রাত আটটার দিকে কিশোরীকে আসামিরা তার বাড়ির সামনে রেখে পালিয়ে যায়। কটিয়াদী মডেল থানার দায়িত্বপ্রাফত ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, ধর্ষণের ঘটনায় মামলার পর ইউপি রশিদকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাছাড়া অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।
মাদারীপুর : মাদারীপুর শহরের টিবি ক্লিনিক এলাকায় গত রবিবার রাতে দশম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে যৌন নির্যাতনের ঘটনায় অভিযুক্ত পুলিশ লাইন্সের নায়েক মোক্তার হোসেনকে গত সোমবার রাতে গ্রেফতার করে গতকাল সকালে মাদারীপুরের বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ হোসেনের আদালতে মোক্তার হোসেনকে হাজির করা হলে আদালত তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করেন আদালত। এছাড়াও যৌন নির্যাতনের অভিযোগ তদন্ত করার জন্য অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বদরুল আলম মোল্লাকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটিও গঠিত হয়।
ফেনী : ফেনীর সোনাগাজীতে বিয়ের প্রলোভনে এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় সাইফ উদ্দিন রিশাদ নামে (২৫) এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। গতকাল সকালে নিজ বাড়ি থেকে থেকে তাকে আটক করা হয়। আটক সাইফ উদ্দিন রিশাদ সোনাগাজী পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের চরগণেশ গ্রামের বকশ আলী ভ‚ঞা বাড়ির মৃত সাহাব উদ্দিনের ছেলে।
সোনাগাজী মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মঈন উদ্দিন আহম্মেদ বলেন, মেয়েটির অভিযোগের ভিত্তিতে ওই যুবককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। দুই পক্ষ সমঝোতায় গিয়ে তাদের বিয়ে দিতে পারলে ভালো। তাছাড়া ওই তরুণী নিয়মিত মামলা করলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।
গাজীপুর : গাজীপুর মহানগরীর সালনা এলাকায় শিক্ষকের ধর্ষণে ৮ম শ্রেণির এক ছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষক সোহেল রানাকে (৪০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত সোমবার রাতে সালনা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এর আগে এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা গাজীপুর সদর থানায় মামলা করেন।
গ্রেফতার সোহেল রানা মহানগরের দক্ষিণ সালনা এলাকার মো. জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে এবং সালনা ল্যাবরেটরি স্কুলের শিক্ষক।
মামলার বরাত দিয়ে সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সমীর চন্দ্র সূত্রধর জানান, গত বছর ওই ছাত্রীকে স্কুলের অফিস কক্ষে নিয়ে সোহেল নানা ভয়ভীতি দেখিয়ে ধর্ষণ করেন। পরে ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রী কান্নাকাটি শুরু করলে তাকে ভয়ভীতি দেখিয়ে স্কুল থেকে বের করে দেয়া হয়। এ সময় ঘটনাটি কাউকে বললে তাকেসহ পরিবারের সকলকে খুন করার হুমকি দেন শিক্ষক সোহেল রানা।
ভয়ে স্কুলছাত্রী ঘটনাটি তার অভিভাবক বা বাবা-মা কাউকেও জানায়নি। সম্প্রতি মেয়েটি অসুস্থ হয়ে পড়লে তার স্বজনরা সালনা সেবা মেডিকেল সেন্টারের চিকিৎসা দিতে নিয়ে যান। এ সময় চিকিৎসকের পরামর্শে আল্ট্রাসনোগ্রাম করলে ওই ছাত্রী প্রায় সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার বিষয়টি ধরা পড়ে। পরে ওই ছাত্রী সোহেল রানা কর্তৃক ধর্ষণ ও প্রাণনাশের হুমকির কথা জানায়।
নাগরপুর (টাঙ্গাইল) : টাঙ্গাইলের নাগরপুরে ৯ম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় করা মামলার আতিকুর রহমান ওরফে রহমানকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত সোমবার রাতে গাজীপুর জেলার কড্ডা বাজার থেকে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে নাগরপুর থানায় নিয়ে আসে। গতকাল সকালে তাকে কোর্টের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।
ফরিদপুর : ফরিদপুরের ভাঙ্গায় নিজের কিশোরী মেয়েকে (১৫) ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে বাবা শহীদুল ফকিরকে (৪৫) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় স্বামীকে একমাত্র আসামি করে শহীদুলের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মামলা করেছেন ওই কিশোরীর মা। ভাঙ্গা উপজেলার নূরুল্যাগঞ্জ ইউনিয়নের একটি গ্রামে গত সোমবার দিবাগত রাতে এ ঘটনা ঘটে।
ভাঙ্গা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নিখিল অধিকারী জানায়, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে শহীদুলকে আটক করে। রাতেই শহীদুলের স্ত্রী তার স্বামীকে একমাত্র আসামি করে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে একটি মামলা করেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (9)
Shazol Rahman ২২ মে, ২০১৯, ১:৩৬ এএম says : 0
এসব কেয়ামতের আলামত ! একটা সমাজ পুরোপুরি নষ্ট হয়ে যাওয়ার পুর্বাভাস ! পশু/জানোয়ারদেরও কিন্ত মিনিমাম একটা বিবেক থাকে !
Total Reply(0)
Md Rafi Alam ২২ মে, ২০১৯, ১:৩৬ এএম says : 0
ধর্মীয় শিক্ষা শুধু প্রাথমিক পর্যায়ে না এটি সকল ধাপে বাস্তবায়ন করা উচিত তাহলে নৈতিকতা বাস্তবায়িত হবে
Total Reply(0)
Raju Ahammad ২২ মে, ২০১৯, ১:৩৭ এএম says : 0
হয়তো আল্লাহর গজব আমাদের জন্য অতি নিকটে .............কয়েকজন পাপীর জন্য সারা বাংলাদেশের মানুষকে আজাব ভোগ করতে হবে............
Total Reply(1)
MAHMUD ২২ মে, ২০১৯, ১:৪৪ পিএম says : 0
Tai sotik bicharer dorker. Bichar hoi na bidai ALLAR azab obodarito.
Mehedi Hasan Emon ২২ মে, ২০১৯, ১:৩৭ এএম says : 0
আমাদের সমাজে কিছু মানুষ রুপি শয়তান আছে তাদের শায়েস্তা করতে হলে ইসলামী আইন গুলো প্রয়োগ করতে হবে
Total Reply(0)
Md Masud Rana ২২ মে, ২০১৯, ১:৩৮ এএম says : 0
ধর্ষনের বিচার ফাসি কার্যকর করতে হবে
Total Reply(0)
Md Bulbul Ahamed ২২ মে, ২০১৯, ১:৩৯ এএম says : 0
ওদেরকে ফাসি দেওয়া হোক
Total Reply(0)
Md. Shohidul Islam ২২ মে, ২০১৯, ৯:৫৬ এএম says : 0
এগুলো সবই হচ্ছে পর্নো গ্রাফির প্রভাব। এটা বাংলাদেশে শিক্ষিত অশিক্ষিত ছোট বড় অনেকেই আজ এ রোগে আক্রান্ত। যার কারণে আজ মানুষ বিবেক বুদ্ধি হারিয়ে বিকৃত এক প্রনীতে পরিনত হয়ে যাচ্ছে। তাদের অবস্থা এমন যে, তারা স্থান কাল পাত্র সম্পর্ক কোন কিছুরই ধার ধরেনা। কারন পর্নোগ্রাফিতে এডিক্টেড মানুষ এর মধ্যে কোন মনুষ্যত্ব বোধ বা আল্লাহর ভয় থাকে না। আল্লাহ এই ফেতনার থেকে মানুষকে রক্ষা করুন।
Total Reply(0)
Zaman ২২ মে, ২০১৯, ১২:৪২ পিএম says : 0
ধর্ষকদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া হোক যা শরিয়ত আমাদের শিক্ষা দেয় । এক্ষেত্রে মুষ্টিমেয় অপরিণামদর্শী প্রগতিবাদীদের প্রতিবাদ কানে দিলে অনেক দেরী হয়ে যাবে যার দুর্ভোগ সবাইকে পোহাতে হবে ।
Total Reply(0)
আকাশ ২২ মে, ২০১৯, ১১:৪৫ এএম says : 0
মেয়েকে ধর্ষণ মামলায় বাবা আটক কিছু বলার নাই আল্লাহর গজব
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন