ঢাকা, বুধবার ১৯ জুন ২০১৯, ৫ আষাঢ় ১৪২৬, ১৬ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

খেলাধুলা

রানবন্যার বিশ্বকাপ দেখছেন কোহলিও

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ মে, ২০১৯, ৬:০১ পিএম

‘আসন্ন ওয়ানডে বিশ্বকাপটি হবে রানবন্যার আসর’- অন্য ক্রিকেট বোদ্ধাদের মত এমনটি মনে করেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলিও। বর্তমান কন্ডিশনের কারণে ব্যাটসম্যানরা সুবিধা পাবে বলেই হাই-স্কোরিং ম্যাচ হবে বলে জানান তিনি। এছাড়া এবারের আসর সবচেয়ে বেশি চ্যালেঞ্জিং হবে বলেও মন্তব্য করেছেন কোহলি।
চ্যালেঞ্জিং বিশ্বকাপে আত্মবিশ্বাসী হয়েই যাচ্ছে টিম ইন্ডিয়া। ইংল্যান্ডের উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়ার আগে গতকাল মুম্বাইয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে আসন্ন বিশ্বকাপ নিয়ে কথা বলেন কোহলি। তার সাথে ছিলেন কোচ রবি শাস্ত্রী। এই দলের উপর আস্থা রয়েছে কোচের। তাই বিশ্বকাপে সাফল্যের ব্যাপারে আশাবাদি তিনিও। আজ ইংল্যান্ডের উদ্দেশ্যে ভারত ছাড়ার কথা কোহলি-ধোনিদের।
১৯৭৫ সালে বিশ্বকাপ আসর শুরুর পর প্রথম দুই আসরে প্রথম রাউন্ড থেকেই বিদায় নেয় ভারত। তবে নাটকীয়ভাবে ১৯৮৩ সালের চ্যাম্পিয়ন হয় তারা। এরপর সাত আসরের অপেক্ষা। অবশেষে ২০১১ সালে দ্বিতীয়বারের মত চ্যাম্পিয়ন হয় ভারত। শচীন টেন্ডুলকার, বিরেন্দার শেবাগ, যুবরাজ সিং-হরভজনদের নিয়ে গড়া দলকে শিরোপার স্বাদ দেন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। এরপর ২০১৫ সালে সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নিতে হয় ভারতকে।
বিশ্বকাপের দ্বাদশ আসরে শিরোপা পুনরুদ্ধারে উদগ্রীব ভারত। এজন্য নিজেদের সেরা খেলাটাই আসল লক্ষ্য টিম ইন্ডিয়ার বলে জানালেন কোহলি, ‘গেল দুই-তিন বছর আমরা যেরকম ক্রিকেট খেলেছি, ঠিক সেভাবেই আসন্ন বিশ্বকাপে খেলতে চাই। আমাদের আসল লক্ষ্য ভালো ক্রিকেট খেলা এবং মাঠের লড়াইয়ে নিজেদের উজাড় করে দেয়া।’
আসন্ন বিশ্বকাপটি অনেক বেশি চ্যালেঞ্জিং বলে মনে করেন কোহলি, ‘ব্যক্তিগতভাবে আমি মনে করি, এটিই সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং বিশ্বকাপ। কারণ, এবারের বিশ্বকাপের ফরম্যাট ভিন্ন। আমার খেলা অন্য বিশ্বকাপের থেকে এটি সম্পূর্ণ আলাদা। এই ফরম্যাটে যেকোন দল অঘটন ঘটাতে পারে। প্রত্যকটি দলের সাথে ব্যবধান খুব বেশি নয়। তাই দ্রুতই এই ফরম্যাটের সাথে মানিয়ে নিতে হবে।’
বিশ্বকাপের দল নিয়ে বেশ আত্মবিশ্বাসী কোহলি। আইপিএলের কারনেই দলের খেলোয়াড়দের প্রতি আস্থা বেড়েছে তার। এমনটাই বললেন কোহলি, ‘আমরা ভারসাম্যপূর্ণ ও আত্মবিশ্বাসী একটি দল নিয়ে বিশ্বকাপে খেলতে যাচ্ছি। দলের তিন বিভাগেই ভালো খেলোয়াড় রয়েছে। যারা নিজেদের সামর্থ্যের প্রমান দিয়েছে। আইপিএলে প্রত্যক খেলোয়াড়ই নিজেদের সেরা ফর্মে ছিলো। আইপিএলের কারনে দলের সবাই নিজেদের ফর্ম নিয়ে আত্মবিশ্বাসী। সবাই ক্রিকেটকে উপভোগ করতে চায়। যেকোন পরিস্থিতি সামাল দেয়ার ক্ষমতা আছে দলের।’
ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপে ব্যাটসম্যানরা সুবিধা পাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন কোহলি। ইংল্যান্ডে এ সময়কার কন্ডিশন ক্রিকেটের জন্য উপযোগি বলে মনে করেন তিনি, ‘আমরা বিশ্বকাপে বড় স্কোর আশা করি। আইসিসির ইভেন্টে পিচ খুবই ভালো হয়। ব্যাটসম্যানদের পক্ষেই থাকে। আমি বলবো না, লো-স্কোরিং ম্যাচ হবে না। কিন্তু ২৬০-২৭০ রানের যেকোন দলের জন্য ভালো সংগ্রহ হবে। বোলারদের লড়াই করতে সুবিধা হবে। তবে কন্ডিশনের কারনে বেশিরভাগ ম্যাচই হাই-স্কোরিং হবে।’
কোহলির সাথে তাল মিলিয়ে দলের কোচ শাস্ত্রী বলেন, ‘পিচ হবে ফ্লাট। ইংল্যান্ডের এখনকার কন্ডিশনে কি হতে পারে তা বুঝতে কিছুটা সময় লাগবে। তবে আমরা নিজেদের কন্ডিশনের সাথেই মানিয়ে নিবো। দলের খেলোয়াড়রা ভালো ফর্মে রয়েছে এবং মাত্রই আইপিএল শেষ করেছে। দেড় মাস ধরে আইপিএল খেলেছে তারা। সকলেই খেলার মধ্যে ছিলো। নিজেদের সেরাটা বিশ্বকাপের মঞ্চে সকলেই দিতে পারবে বলে আমি আশাবাদি।’
বিশ্বকাপের মূল লড়াইয়ের আগে দু’টি প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ খেলবে ভারত। ২৫ মে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ও ২৮ মে বাংলাদেশের বিপক্ষে দু’টি প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ রয়েছে টিম ইন্ডিয়ার। তবে সাউদাম্পটনে ৫ জুন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে নিজেদের বিশ্বকাপ মিশন শুরু করবে কোহলির দল।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন