ঢাকা, মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০১৯, ১১ আষাঢ় ১৪২৬, ২১ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

স্বাস্থ্য

নানা রোগে জায়ফল

আফতাব চৌধুরী | প্রকাশের সময় : ২৪ মে, ২০১৯, ১২:০৬ এএম

জায়ফলের বোটানিক্যাল নাম মিরিস্টিকা ফ্র্যাগর‌্যানস। ইংরেজিতে নাটমেগ এবং আমাদের দেশে জায়ফল নামে বেশি পরিচিত। জায়ফলে মাইরিস্টিসিন সমৃদ্ধ এসেনশিয়াল অয়েল আছে। স্যাপোনিন, উদ্বায়ী বা ডলাটাইল অয়েল এবং বিশেষ স্নেহজাতীয় পদার্থ পাওয়া যায় যা জ্ঞনাটমেগ বাটারঞ্চ নামে পরিচিত। ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, শ্রীলঙ্কা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রভৃতি দেশে মূলত জায়ফল গাছের চাষ হয়ে থাকে। তবে ইতিহাস পর্যলোচনা করে জানা গেছে যে প্রাচীন ভারতে এ চিরহরিৎ বৃক্ষের চাষ ও ব্যবহারের প্রমাণ পাওয়া যায়। বর্তমানে দক্ষিণ ভারতের পশ্চিমঘাট পর্বতাঞ্চলে প্রচুর জায়ফলের চাষ হয়। জায়ফল বিভিন্ন রোগ আরোগ্যকারী গুণে সমৃদ্ধ। আয়–র্বেদ চিকিৎসা শাস্ত্রে একে ত্রিদোষনাশক ভেষজ বলে অভিহিত করা হয়। জায়ফল রুচি বৃদ্ধি করে বা এক কথায় বলা যায় অরুচিনাশক। শরীরকে উত্তাপ দেয়, শক্তিবর্ধক, খিদে বাড়ায়, বায়ু-পিত্ত-কফের বৈষম্যতা দূর করে, ব্রণ, মেচেতা, ত্বকের কালো দাগ ও শ্বেতী আরোগ্য করে। কোলাইটিস যাকে গ্রহণী বলে তা দূর করার একমাত্র উপায় হল জায়ফল।
ঃ জায়ফল ঘষে নিয়ে দিনে ২ বার মাথায় লাগালে বা কপালে প্রলেপ দিলে সাইনুসাইটিস জনিত মাথার যন্ত্রণায় চটপট আরাম দেয়। ঃ বুক ধড়ফড় করলে বা অতিরিক্ত পালপিটেশন হলে জায়ফল চ‚র্ণ ২৫ মিলিগ্রাম দুধ সহ খেলে অব্যর্থ উপকার হয়। ঃ পেশীর খিঁচুনি বা মাসকুলার ক্র্যা¤প হলে ২৫-৪০ মিলিগ্রাম জায়ফল চ‚র্ণ মধু সহ খেলে অব্যর্থ উপকার হয় বা জায়ফল ঘষে নিয়ে ব্যথার জায়গায় লাগালে চটজলদি আরাম পাওয়া যায়। ঃ দাঁতের যন্ত্রণায় জায়ফলের তেল তুলোয় একটু লাগিয়ে ব্যথার স্থানে লাগালে উপকার হয়। ঃ গায়ে চাকা চাকা দাগ যাকে আমরা আমবাত বা আর্টিকারিয়া বলি, জায়ফলের তেল এ ক্ষেত্রে আশ্চর্য ফলদায়ক। ঃ নিদ্রা মানুষের শারীরিক ও মানসিক বিপর্যয়ের একটি অন্যতম কারণ বলা যায়। তা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য শুকনো আমলকী ২ টুকরো সামান্য বিট লবণ ও এক চিমটে জায়ফল চ‚র্ণ রাতে শোওয়ার আগে পানি সহ খেলে উপকার পাওয়া যায়। ঃ মধুর সঙ্গে জায়ফল ঘষে পেস্ট তৈরি করে খেলে অতিরিক্ত হিক্কা ও বমিভাব তৎক্ষণাৎ দূর হয়। ঃ জায়ফলের মলরোধ করার শক্তি আছে তাই অ্যাইমবিক কোলাইটিসে বা গ্রহণী রোগে সামান্য আখের গুড়ে জায়ফল চ‚র্ণ মিশিয়ে দিনে ২ বার খেলে অব্যর্থ উপকার হয়। ঃ খাবার রুচি বৃদ্ধি করতে, খিদে বাড়াতে ও হজম শক্তি বাড়াতে আপেল, কলা প্রভৃতিতে বা যে কোনও ফল ও স্যালাডে সামান্য জায়ফলের গুঁড়ো বা চ‚র্ণ ব্যবহার করলে উপকার হয়। ঃ গরমের দিনে একটা জায়ফল ০০.২৫ কাপ পানিতে সারা রাত ভিজিয়ে রেখে ওই পানি এক গÐাস ডাবের পানিতে মিশিয়ে খেলে ডিহাইড্রেশন জনিত মূত্রকৃচ্ছতা দূর হয়। ঃ পায়োরিয়ায় জায়ফলের তেল অত্যন্ত উপকারী। ঃ যারা নিয়মিত ঘামের দুগন্ধে ভোগেন তারা নিয়মিত একটি জায়ফল চন্দন পাটায় ঘষে তা ১ লিটার পানিতে মিশিয়ে স্নানের শেষে গা ধুয়ে নিলে অবশ্যই সুফল পাবেন। ঃ জায়ফল তেল বাতের ব্যথায় অত্যন্ত উপকারী। জায়ফল চ‚র্ণ তিল তেলে ফুটিয়ে ঠান্ডা করে গেঁটে বাত ও সন্ধিবাতে নিয়মিত মালিশ করলে ফোলাভাব, ব্যথা ও আড়ষ্টভাব কমে গিয়ে আরাম হয় এবং হাঁটাচলা করা অনেক সহজ হয়ে যায়।

সাংবাদিক ও কলামিষ্ট। বৃক্ষরোপণে জাতীয় পুরস্কার (স^র্ণ পদক ১ম) প্রাপ্ত।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন