ঢাকা, শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০১৯, ০৪ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৫ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

আন্তর্জাতিক সংবাদ

কলকাতার দুই মসজিদে নারীদের নামাজের বিশেষ ব্যবস্থা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৯ মে, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

পবিত্র রমজানসহ সারা বছর নামাজ পড়ার জন্য বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করছে কলকাতার ঐতিহ্যবাহী টিপু সুলতান মসজিদ এবং নাখোদা মসজিদ। দুই মসজিদের এই নজিরবিহীন সিদ্ধান্তে খুশির হাওয়া বইছে সেখানকার মুসলিম স¤প্রদায়ের মধ্যে। সারা বছর নামাজ পড়ার জন্য মুসলিম নারীদের জন্য পৃথক বসার ব্যবস্থা, অযুখানা ও বাথরুমের ব্যবস্থা করতে যাচ্ছে এই দুই মসজিদ কর্তৃপক্ষ। এ ব্যাপারে বেঙ্গল ইমাম অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে নাখোদা মসজিদ এবং টিপু সুলতান মসজিদকে চিঠি দিয়ে অনুরোধ জানানো হয়। পরে মসজিদ কর্তৃপক্ষ এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে।
নাখোদা মসজিদের ইমাম শাফিক কাশমি বলেন, অ্যাসোসিয়েশন থেকে প্রাপ্ত চিঠিতে তারা সম্মতি জ্ঞাপন করেছেন এবং সেইমতো পরিকল্পনা এগোচ্ছে। তিনি বলেন, ‘আমরা চিঠি পাওয়ার পরই বিষয়টি নিয়ে চিন্তাভাবনা শুরু করি। বহু নারী আসেন নামাজ পড়তে এবং তারা মসজিদের এক কোণায় বসে নামাজ আদায় করেন। কিন্তু এবার ম্যানেজিং কমিটির পক্ষ থেকে তাদের জন্য আরও ভালো বন্দোবস্ত করা হচ্ছে।’
নাখোদা মসজিদে ঢোকার তিনটি রাস্তা রয়েছে। এর একটি নারীদের যাতায়াতের জন্য খুলে দেয়া হবে। এছাড়া নারীদের জন্য আলাদা নামাজ পড়ার জায়গা, বাথরুম এবং বিশ্রাম ঘরেরও ব্যবস্থা করা হচ্ছে। বেঙ্গল ইমাম অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান ইয়াহিয়া বলেন, ‘আমরা অনেকদিন ধরে লক্ষ্য করেছি, এই দুই বিখ্যাত মসজিদে নারীদের নামাজ পড়ার জন্য কোনও সুবন্দোবস্ত নেই। শরিয়তে বলা হয়েছে, একমাত্র পর্দাঘেরা স্থানে বসেই নারীরা নামাজ পড়তে পারবেন। কিন্তু এর কোনও বিধান আলাদা করে পাওয়া যায় না।’
তিনি বলেন, ‘বিদেশ থেকে নারীরা এই মসজিদ পরিদর্শন করতে আসেন। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে এখানে নামাজ আদায় করতে পারেন না। তাই অনেক আলাপ আলোচনার পর আমরা এই সিদ্ধান্ত নিয়ে মসজিদ কর্তৃপক্ষকে চিঠি পাঠাই। আমরা খুব খুশি যে মসজিদ কর্তৃপক্ষ আমাদের সিদ্ধান্তকে সমর্থন করেছে।’
মসজিদ ছাড়াও চিঠিটির একটি কপি কলকাতা পৌরসভায় পাঠানো হয়েছে। এতে নারীদের জন্য আলাদা পর্দার ব্যবস্থা, বাথরুম এবং প্রতিবন্ধীদের জন্যও পৃথক ব্যবস্থার কথা বলা হয়েছে। চিঠিতে বলা হয়েছে, ‹বিদেশ থেকে অনেক নারী আসেন মসজিদ পরিদর্শন করতে। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে এখানে নামাজ আদায় করতে পারেন না তারা। এই কারণে আমরা অত্যন্ত লজ্জিত।
দক্ষিণ কলকাতার একটি বেসরকারি ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের শিক্ষিকা আমিনা খাতুন বলেন, ‘খুবই ভালো হয় যদি মসজিদের মধ্যেই আমাদের জন্য আলাদা জায়গা বরাদ্দ থাকে। আমরা পুরুষদের সঙ্গে বসে নামাজ পড়তে পারি না, কারণ তা ইসলামবিরোধী। যদি এরকম ব্যবস্থা পাওয়া যায় তাহলে বাইরে থেকেও আমরা নামাজ পড়তে পারবো।
টিপু সুলতান মসজিদ কলকাতায় মুসলমানদের জন্য সবচেয়ে প্রাচীন মসজিদ। টিপু সুলতানের ছোট ছেলে গুলাম মুহাম্মাদ ১৮৪২ সালে নিজের বাবার নামে এটি নির্মাণ করেন। অপরদিকে, নাখোদা মসজিদের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয় ১৯২৬ সালের ১১ সেপ্টেম্বর। সূত্র : ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন