শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ০৭ কার্তিক ১৪২৮, ১৫ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

চ্যাম্পিয়ন নাসরুল্লাহ বায়েজিদ রানারআপ ফজলে রাব্বি-মামনুল

পুষ্টি পবিত্র কোরআনের আলো প্রতিযোগিতা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৯ মে, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

পুষ্টি পবিত্র কোরআনের আলো প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন নেত্রকোণার হাফেজ হাসান নাসরুল্লাহ বায়েজিদ। প্রথম ও দ্বিতীয় রানারআপ হয়েছেন যথাক্রমে- রাজবাড়ীর হাফেজ ফজলে রাব্বি ও সুনামগঞ্জের হাফেজ মামনুল সাঈদ। গতকাল (মঙ্গলবার) রাজধানীর হোটেল প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁওয়ে অনুষ্ঠিত কোরআনের আলো প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ড ফিনালে অনুষ্ঠানে তারা দেশ সেরা হাফেজের খেতাব অর্জন করেন। প্রতিযোগিতার শীর্ষ ৫ প্রতিযোগীর মধ্যে চতুর্থ স্থান অর্জন করেছেন ময়মনসিংহের হাফেজ আবিদ হাসান রাফি ও পঞ্চম হয়েছেন চট্টগ্রামের হাফেজ আশরাফুর রশীদ। দেশের ৪০ হাজার হাফেজকে নিয়ে শুরু হওয়া এই প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ড ফিনালেতে অংশগ্রহণ করেন চূড়ান্তভাবে বিজয়ী হওয়া ৫ প্রতিযোগী। এদের মধ্যে চ্যাম্পিয়ন পেয়েছেন তিন লাখ টাকা, প্রথম রানার আপ দুই লাখ এবং দ্বিতীয় রানার আপ পেয়েছেন এক লাখ টাকা পুরষ্কার। এছাড়া এই তিনজনই পাচ্ছেন ওমরা করার সুযোগ। অন্য দুই প্রতিযোগী প্রত্যেকে পেয়েছেন ৫০ হাজার টাকা করে পুরষ্কার। কুরআনের আলো হাফেজদের নিয়ে যে প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে তার প্রশংসা করে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, এধরণের আয়োজনের মাধ্যমে শহর থেকে গ্রামাঞ্চলের মানুষ কুরআনের প্রতি আকৃষ্ট হবে। মানুষ তাদের সন্তানদের কুরআনের হাফেজ বানাতে আগ্রহী হবে। যাদের সুমধুর কণ্ঠে তেলাওয়াত শুনে বিশ্ববাসী বিমোহিত হয়। মন্ত্রী কুরআনের হাফেজদের জন্য আল্লাহর দরবারে দোয়া করেন এবং কুরআনের অন্তর্নিহিত যে শিক্ষা তা যেন সকলে বাস্তব জীবনে, দেশ, সমাজের কল্যাণে কাজে লাগাতে পারেন সেই কামনা করেন।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. মোঃ আখতারুজ্জামান বলেন, কোরআনের হাফেজগণ হলেন কুরআনের শিল্পী। তাদের কণ্ঠে উচ্চারিত কুরআনের বাণী হৃদয় ছুয়ে যায়। তাদেরকে সঠিকভাবে পরিচর্যা করতে পারলে কুরআনের সংস্কৃতি বিকাশে তারা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। তিনি বলেন, কুরআন আমাদের ইতিহাস শেখায়। পূর্ববর্তী সভ্যতার ইতিহাস আমাদের সামনে তুলে ধরে। সেই সভ্যতা থেকে আমাদের শিক্ষাগ্রহণে উদ্বুদ্ধ করে। আখতারুজ্জামান বলেন, কুরআন শুধুমাত্র মুসলমানদের জন্য নয়, এই কুরআন সমগ্র মানবজাতির জন্যই নাযিল হয়েছে। তিনি আশা প্রকাশ করেন কুরআনের যে শিক্ষা তা সকলেই গ্রহণ করবে এবং সমাজে প্রতিষ্ঠা করবে।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান, চাঁদপুর-২ আসনের এমপি নূরুল আমিন রুহুল, মাদরাসা শিক্ষকদের একমাত্র অরাজনৈতিক সংগঠন বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের সভাপতি ও দৈনিক ইনকিলাব সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দীন, ড্যাফেডিল গ্রুপের চেয়ারম্যান সবুর খান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষক ও মানারাত ইউনিভার্সিটির সাবেক ভিসি প্রফেসর ড. চৌধুরী মাহমুদ হাসান, মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর একেএম ছায়েফ উল্ল্যা, তরুণ উদ্যোক্তা হাবিবুর রহমান জুয়েল, সাবেক এমপি গোলাম মাওলা রনি, বাংলাভিশনের আসাদুল ইসলাম, আবুল কালাম আজাদ, ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রব্বানী প্রমূখ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (6)
বাবুল ২৯ মে, ২০১৯, ১০:৩৯ এএম says : 0
আমার মনে হচ্ছে, ছাত্রলীগের নেতাকে অতিথি হিসেবে না আনলেই ভালো হতো
Total Reply(0)
কাওসার আহমেদ ২৯ মে, ২০১৯, ১০:৪২ এএম says : 0
এরকম একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করায় সকলকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি
Total Reply(0)
Mohammad Tanveer ২৯ মে, ২০১৯, ১০:৩৩ এএম says : 0
বিজয়ীদেরকে অভিনন্দন
Total Reply(0)
সাদ্দাম ২৯ মে, ২০১৯, ১০:৩৪ এএম says : 0
এরকম অনুষ্ঠান আরও বেশি বেশি হওয়া দরকার।
Total Reply(0)
নাসির ২৯ মে, ২০১৯, ১০:৩৫ এএম says : 0
এরকম একটি অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার জন্য মাদরাসা শিক্ষকদের একমাত্র অরাজনৈতিক সংগঠন বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের সভাপতি ও দৈনিক ইনকিলাব সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দীন সাহেবকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি
Total Reply(0)
রিফাত ২৯ মে, ২০১৯, ১০:৩৬ এএম says : 0
রমজান ছাড়াও এরকম অনুষ্ঠান করলে তার টিআরপিও ভালো থাকবে
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন