ঢাকা, বুধবার, ২১ আগস্ট ২০১৯, ০৬ ভাদ্র ১৪২৬, ১৯ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

সারা বাংলার খবর

সখিপুর নলুয়া বাছেত খান উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষকের সহযোগীতায় দুই শিক্ষার্থীর বাল্য বিবাহ সম্পন্ন

সখিপুর(টাঙ্গাইল)উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৩১ মে, ২০১৯, ১:২৭ পিএম

টাঙ্গাইলের সখিপুর নলুয়া বাছেত খান উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেনীর দুই শিক্ষার্থীর বাল্য বিবাহ সম্পন্ন হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা গেছে,একই বিদ্যালয়ে একই শ্রেনীতে পড়–য়া দুই শিক্ষার্থী প্রেমের টানে পালিয়ে যায়। পরে শিক্ষক আ.হান্নান গং ও অভিভাবকগন একত্রিত হয়ে স্থানীয় প্রশাসনকে ম্যানেজ দুই নাবালকের বাল্যবিবাহ সম্পন্ন করেছে। বাল্যবিবাহের বরের নাম শিহাম আহমেদ পিতা সুরুজ মিয়া সাং বেড়বাড়ি নলুয়া বাছেদ খান উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেনী বিজ্ঞান শাখার রোল নং ২১ এবং কনে একই বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেনীর ছাত্রী ফারজানা পিতা ফারুক মিঞা সাং ঘেচুয়া রোল নং ০৪ । শিহাম আহমেদ দীর্ঘ দিন যাবৎ ঐ স্কুলের পিছনে একই স্কুলের শিক্ষক হান্নান মাষ্টারের নিজস্ব হোষ্টেলে থেকে একই স্কুলের শিক্ষকদের নিকট কোচিং পড়তো এবং কোচিংয়ে ফারজানার এর সাথে প্রেমের টানে পালিয়ে গেলে কোচিং শিক্ষকগন সার্বিক বিষয় ধামা চাপা দিতেই স্থানীয় প্রশাসনকে ম্যানেজ করে গত ১২মে/১৯ইং নাবালক ও নাবালিকার মধ্যে বিবাহ কার্য সম্পন্ন করা হয়। নলুয়া বাছেদ খান উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তোফাজ্জল হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন। মেধাবী দুই শিক্ষার্থীর মেধাশূন্য করার এ প্রচেষ্টার কোন বিচার হচ্ছে না।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন